php glass

ত্রিপুরা বেম্বো মিশন-এমওইউ’র চুক্তি সই

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মঞ্চে ত্রিপুরা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবসহ অন্যরা। ছবি: বাংলানিউজ

walton

আগরতলা (ত্রিপুরা): ত্রিপুরা রাজ্যের বাঁশ ভিত্তিক কুটি ও হস্তশিল্পকে আরও এগিয়ে নিতে আগরতলার বেম্বো অ্যান্ড কেইন ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউট এবং ত্রিপুরা বেম্বো মিশনের মধ্যে মেমোরেন্ডাম অব এগ্রিমেন্ট (এমওইউ) চুক্তি সই হয়েছে।

রোববার (২ জুন) দুপুরে আগরতলার লিচু বাগান এলাকার বেম্বো অ্যান্ড কেইন ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউটের সভাকক্ষে এ চুক্তি সই হয়।

এতে উপস্থিত ছিলেন ত্রিপুরা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব, ত্রিপুরা সরকারের শিল্প ও বাণিজ্য দফতরের অধিকর্তা শশী রঞ্জন কুমার, ত্রিপুরার শিল্প ও বাণিজ্য দফতরের অধিকর্তা নাগেশ কুমার প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব বাঁশ গবেষণা কেন্দ্রের প্রাঙ্গণের বিভিন্ন প্রজাতির নার্সারি ঘুরে দেখেন। এরপর তিনি এখানে রাখা বিভিন্ন আকারের, ডিজাইনের বাঁশ কাটার বিভিন্ন যন্ত্রপাতি ঘুরে দেখেন।

ত্রিপুরা সরকারের শিল্প ও বাণিজ্য দফতরের অধিকর্তা এবং বেম্বো অ্যান্ড কেইন ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউটের পক্ষে আ কে শ্রীবাস্তব এমওইউ সই করেন।

অনুষ্ঠানে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব বলেন, রাজ্যে বিপুল পরিমানে বাঁশ উৎপাদিত হয়। এখানকার বাসিন্দারা বাশঁকে ভিত্তি করে সুন্দর সুন্দর হস্তসামগ্রী তৈরি করেন। কিন্তু আগে কখনো তা বিদেশে রফতানির উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। ফলে এসব কাজের সঙ্গে যুক্ত কারিগররা তেমনভাবে লাভবান হতে পারেননি। এখন সরকার তাদের কথা চিন্তা করে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

এইদিন মুখ্যমন্ত্রীর হাত দিয়ে বেম্বো অ্যান্ড কেইন ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউট থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত পাঁচজন শিল্পীকে সনদপত্র দেওয়া হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৯ ঘণ্টা, জুন ০২, ২০১৯
এসসিএন/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: আগরতলা
গাংনীতে মাদক ব্যবসা নিয়ে দুই পক্ষের গুলি, নিহত ১ 
রামুতে বিনামূল্যে পাওয়ার টিলার পেলেন ৩শ’ কৃষক
ট্রেনের টয়লেটে কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টা!
বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডে অজিদের সঙ্গী বাংলাদেশ
ধামরাইয়ে অটোরিকশার ধাক্কায় শিশু নিহত


মাদারীপুরে বিদ্যুৎপৃষ্টে যুবকের মৃত্যু
কাশিয়ানীতে ইউপি সদস্যসহ ৫ জুয়াড়ি আটক
কক্সবাজারে বাংলাদেশ-নেপালের যৌথ কমিটির সভা
রোদ-বৃষ্টির লড়াই ছাড়িয়ে হাসবে ইংল্যান্ড-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ
৪০-৫০ রান বেশি দিয়েছি: মাশরাফি