ফল ও ধান চাষে ত্রিপুরা কৃষি দপ্তরের নানা উদ্যোগ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

আউশ-আমন ধান চাষে ত্রিপুরা কৃষি দপ্তরের নানা উদ্যোগ

আগরতলা: ত্রিপুরা রাজ্যের গোমতী জেলার করবুক মহকুমা উপজেলার ৮০ জন চাষিকে ৪০ হেক্টর জমিতে সুপারি বাগান করে দেওয়ার কাজ চলছে। এই কাজে প্রতি হেক্টরে খরচ হবে ২৫ হাজার রুপি করে।

পাশাপাশি শিলাছড়ি গ্রাম উন্নয়ন ব্লকের ৪৩ জন চাষিকে ২৬ হেক্টর জমিতে সুপারি বাগান করে দেওয়া হচ্ছে। বগাচেতল এলাকার ১০০ জন চাষির ৫০ হেক্টর জমিতে ইতোমধ্যে সুপারি বাগান করে দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে ১০ জন চাষিকে পাঁচ হেক্টর জমিতে লেবু বাগান করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও জেন্ততৈসা এলাকার ২২ জন চাষির ১১ হেক্টর জমিতে লেবু বাগান করে দেওয়া হচ্ছে। লেবু বাগানের জন্য হেক্টর পিছু খরচ হবে ১৫ হাজার রুপি।

২০১৮-১৯ অর্থবছরে এই উপজেলার ৪০ জন চাষিদের মধ্যে ভর্তুকিতে ৪০টি পাওয়ার টিলার বিতরণ করা হবে। অপরদিকে, পশ্চিম জেলার বিভিন্ন এলাকার ৩৩ দশমিক ৫ হেক্টর জমিতে মিশ্র ফল চাষ করা হবে। এরমধ্যে রয়েছে মসাম্বী লেবু, সুগন্ধী লেবু, আম, আনারস সুপারি। জেলার ১৩২ জন চাষিকে ভর্তুকিতে একটি করে পাওয়া টিলার দেওয়া হয়েছে। এছাড়া গ্রীষ্মকালীন সবজি চাষ হয়েছে ৯০ হেক্টর এবং ফুল চাষ হয়েছে ৪১ হেক্টর জমিতে।

তাছাড়া ১১০৫৩ হেক্টর জমিতে উচ্চ ফলনশীল আউশ ও আমন ধান চাষ করা হয়েছে এবং এসআরআই পদ্ধতিতে ধান চাষ করা হয়েছে ৬৪০৫ হেক্টর জমিতে। 

ত্রিপুরা সরকারের কৃষি দপ্তরের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে তথ্য সংস্কৃতি দফতর প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ খবর জানায়। 

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫৯ ঘণ্টা, আগস্ট ০১ ২০১৮
এসসিএন/এনটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ভারত
কবিরহাটে আগুনে পুড়ে বৃদ্ধার মৃত্যু
সিলেটে রিকশা চালক খুন
রাজধানীতে ইয়াবাসহ ২ মাদকবিক্রেতা আটক
ভৈরবে ট্রেনে কাটা পড়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু
কাশিয়ানীতে চেয়ারম্যান-মেম্বরদের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ
লঞ্চের কেবিন থেকে এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার
এক বছরে ব্যান্ডউইথের ব্যবহার বেড়েছে প্রায় দ্বিগুণ
সফলভাবে ভয়েস ওভার এলটিই পরীক্ষা করলো রবি
পাখি ও লাল কাঁকড়ার রাজ্য কুয়াকাটার ‘চর বিজয়’
মুহাম্মদ আলীর জন্ম-সুচিত্রার প্রয়াণ