php glass

অমিত শাহের দ্বারে বিজেপি-আইপিএফটি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

আগরতলা: বিজেপি ও আইপিএফটি দুই শরিক দলের ক্ষমতা ভাগাভাগি নিয়ে টানা পোড়নের অবসান হতে চলেছে। সমস্যা সমাধানে দুই দলের নেতারা একসঙ্গে বিজেপির সভাপতি অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করছেন।

গত সপ্তাহে একসঙ্গে বামফ্রন্ট সমর্থিত ব্লক এডভাইসারি কমিটির চেয়ারম্যানরা পদত্যাগ করেন। এর জেরে প্রশাসনিক কাজে যেমন অচল অবস্থার সৃষ্টি হয়। পাশাপাশি শূন্য পদগুলোতে আইপিএফটি দলের সদস্যদের থেকে নিয়োগ করতে হবে। এ দাবিতে আইপিএফটি সমর্থকরা বিভিন্ন জায়গায় রাস্তা অবরোধ করে এবং একাধিক ব্লকে তালা লাগিয়ে দেয়।

তাদের কাজ কর্মে বিরক্ত হয়ে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব বলেন, এমন চললে জোট টিকিয়ে রাখা সমস্যা হবে।

রোববার (২০ মে) আসাম রাজ্যের রাজধানী গৌহাটিতে নর্থইস্ট ডেমোক্রেটিক এলায়েসের (নেডা) সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ। সম্মেলনে যোগ দিতে ইতোমধ্যে গৌহাটিতে পৌঁছেছেন আইপিএফটি সভাপতি এনসি দেববর্মা, সহ-সভাপতি অনন্ত দেববর্মাসহ মোট ৩২ জন প্রতিনিধি।

গৌহাটি থেকে ফোনে অনন্ত দেববর্মা বাংলানিউজকে জানান, তারা অমিত শাহের কাছে দাবি জানাবেন ত্রিপুরা আদিবাসী স্বশাসিত জেলা পরিষদের ২৪টি ব্লক এডভাইসারি চেয়ারম্যান পদ আইপিএফটি দলের কাছে ছেড়ে দেওয়ার জন্য। তাদের আশা, জোট শরিক হিসেবে অমিত শাহ তাদের এ দাবি মেনে নেবেন।

এ বিষয়ে ত্রিপুরা প্রদেশ বিজেপির মিডিয়া ইনচার্জ ভিক্টর সোম জানান, জোট শরিক হিসেবে তারা তাদের মতো করে দাবি করতেই পারেন। বিজেপি দলের নেতারা বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নেবেন বিষয়টি কিভাবে সমাধান করা যায়।

তিনি আরও জানান, সম্মেলনে যোগ দিতে ইতোমধ্যে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবসহ অন্য মন্ত্রী, বিধায়করা গৌহাটি পৌঁছেছেন। দুপুরে গৌহাটির শ্রীমন্ত শঙ্করদেব কলাক্ষেত্রে শুরু হবে সম্মেলন।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫৩ ঘণ্টা, মে ২০, ২০১৮
এসসিএন/আরবি/

ক্রেতাদের বাজেট অনুযায়ী পোশাক তৈরি করছে ‘সারা’
মায়ের ওপর অভিমান, রাজধানীতে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা
নোয়াখালীতে ট্রাক-অটোরিকশা সংঘর্ষে প্রাণ গেলো দু’জনের
প্রণব মুখার্জি-খান আতার জন্ম
খালেদার মুক্তির জন্য স্বেচ্ছায় কারাভোগে রাজি ফেনী বিএনপি


‘মাথাপিছু আয় ৬০০০ ডলারের আগেই সবার কাছে গাড়ি থাকবে’
দলের জন্য সবটুকু অভিজ্ঞতা ঢেলে দেবেন গিবস
কর দিতে হয়রানি হলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা: অর্থমন্ত্রী
মিয়ানমারে গণহত্যার বিচার শুরু, সন্তুষ্ট রোহিঙ্গারা
বিশ্বসভ্যতার ইতিহাসই মানবাধিকার অর্জনের ইতিহাস