php glass

আগরতলার বাজারে পাকা আম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

আগরতলার বাজারে পাঁকা আম

walton

আগরতলা: চৈত্রের শেষে গাছে গাছে কাঁচা আম। এই আম বড় হয়ে পাকতে শুরু করবে বৈশাখের মাঝামাঝি।

এই সময়ের কাঁচা আম পেড়ে খাওয়ার জন্য বাগানে শিশু-কিশোরদের ভিড় লক্ষ্য করা যায়। গ্রীষ্মের দাবদাহের নিঝুম দুপুরে মালিকের চোখ ফাঁকি দিয়ে কাঁচা আম খেয়ে দাঁত টক করে গায়ে কাটা দেওয়ার মতো শিরশিরে অনুভূতি নিয়ে প্রচুর গল্প-উপন্যাস লেখা হয়েছে। শহুরে জীবনে এখন এমন অনুভূতি খুব একটা হয় না। 

কাঁচা আমের এই ভর মৌসুমে পাকা আম চলে এসেছে বাজারে। সুতরাং কাঁচা আমের স্বাদ নেওয়ার আর সময় কই?

ত্রিপুরা রাজ্যের রাজধানী আগরতলার বিভিন্ন বাজারে বিক্রি হচ্ছে পাকা আম। অসময়ে আসা মধুমাসের অন্যতম প্রধান ফল আম বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৩শ’ রুপি করে। 

বৃহস্পতিবার (১২ এপ্রিল) রাজধানীর লেক চৌমুহনির খুচরা ফল বিক্রেতা রিঙ্কু দেবনাথ বাংলানিউজকে বলেন, দক্ষিণ ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্য থেকে এই অসময়ের আম আসে। এ জাতের আমের নাম কে টি। কে টি’র পুরো নাম অবশ্য তিনি বলতে পারেননি। 

এক একটি আমের ওজন দেড়শ’ গ্রাম থেকে দুইশ’ গ্রাম। প্রতি কেজি ৩শ’ রুপি দরে বিক্রি হচ্ছে। চড়া দামের এই আম বিক্রি কেমন হচ্ছে- এই প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, বেচা-বিক্রি ভালোই হচ্ছে। 

রিঙ্কু আরও জানান, অসময়ে পাকা আম দেখে মানুষের চোখে লেগে যায়। ফলে কমবেশি সবাই তা কেনার চেষ্টা করেন। 

আমগুলো খুব সুস্বাদু ও মিষ্টি বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ০৭১৬ ঘন্টা, ১৩ এপ্রিল ২০১৮।
এসসিএন/এমআইএইচ/এমএইউ/

রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে বাংলাদেশের জন্ম
দম ফেলার ফুসরত নেই সাভারের ফুল বিক্রেতাদের
১৬ ডিসেম্বর বাঙালির ইতিহাসে সর্বোচ্চ অর্জনের দিন
জাপার ভাইস চেয়ারম্যান নিগার সুলতানাকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা
ফ্যান কারখানায় নিহত প্রত্যেকের পরিবার পাচ্ছে ৫০ হাজার টাকা


ইবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি আখতার, সম্পাদক মোস্তাফিজ
এক হাজারের বেশি নারীর প্রোলেপস সারিয়েছেন ডা. শিরীন
ইউনাইটেডকে বাঁচালেন গ্রিনউড
বুড়িগঙ্গা দূষণমুক্ত করতে বিআইডব্লিউটিএর অভিযান
সিএমপির প্রতিটি থানায় হবে মুক্তিযোদ্ধা কর্নার