পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৪৯)

বাবর আলী | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বরিশালের রাস্তা।

walton

বাবর আলী। পেশায় একজন ডাক্তার। নেশা ভ্রমণ। তবে শুধু ভ্রমণ করেন না, ভ্রমণ মানে তার কাছে সচেতনতা বৃদ্ধিও। ভালোবাসেন ট্রেকিং, মানুষের সেবা করতে। সম্প্রতি চট্টগ্রামের এই ডাক্তার হেঁটে ভ্রমণ করেছেন দেশের ৬৪ জেলা। সেটা আবার ৬৪ দিনে। কেমন ছিল সেই অভিজ্ঞতা? সেটা নিয়ে ধারাবাহিকভাবে লিখেছেন বাংলানিউজের ট্রাভেলার্স নোটবুকে। ৬৪ দিনে থাকবে ৬৪ দিনের ভ্রমণ-অভিজ্ঞতা।

দিন ৪৯
বরিশাল-কালকিনি (মাদারীপুর)= ৫৩.০৪ কিমি

এই ভোরেই নামাজ পড়ার ফাঁকে আন্টি কফি আর টোস্ট দিয়ে গেলেন। সেসব গলধকরণ করে হাতেম আলী কলেজের সামনের বাসা থেকে বেরিয়ে সোজা রাস্তায়। আজকের দিনে সঙ্গী হিসেবে আছেন তসলিম ভাই। বরিশালের রাস্তা-ঘাট বেশ পরিষ্কারই মনে হলো আমার কাছে। যেখানে-সেখানে ময়লা-আবর্জনা পড়ে নেই। গতকালের মতো আজকের যাত্রাও মহাসড়ক এন-৮ ধরেই। সুগন্ধ্যা নদী।সকালবেলা দ্রুত পা চালিয়ে তেমাথা হয়ে নথুল্লাবাদ বাসস্ট্যান্ড। এই সকালবেলাতেই বাস কন্ডাক্টরদের গলা উঁচিয়ে যাত্রীদের দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা শুরু হয়ে গেছে। বরিশাল বিভাগীয় সদর দপ্তরের সামনের ম্যুরাল দুটো চমৎকার। কাশিপুর হয়ে ইছাকাঠির দিকে এগোতে এক পুকুরে বেশকিছু শাপলা ফুল পেয়ে গেলাম।

বিভিন্ন জেলা থেকে বরিশাল অভিমুখী বিভিন্ন আন্তঃজেলা বাস তীব্র গতিতে অতিক্রম করার সময় হাওয়ার ঝাপটা লাগছে গায়ে। গড়িয়ারপাড়ে পেলাম বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানে পড়া ছেলে-পুলেদের আমার বড্ড হিংসে হয়। খেলতে খেলতে পড়ার একটা সুযোগ পায় এখানের শিক্ষার্থীরা। আর অন্য সাধারণ শিক্ষার্থীদের কপালে পড়তে পড়তে খেলার সুযোগটাই মেলে না। ছয় মাইল বাজারের পর বরিশাল সদর উপজেলার সীমানা পেরিয়ে বাবুগঞ্জ উপজেলায়। 
নদীর নাম সন্ধ্যা।অমৃত নগর পার হয়ে সাত মাইলে বরিশাল ক্যাডেট কলেজের বিশাল ক্যাম্পাস। নাশতা খেতে এক দোকানে ঢুকে ভর্তা-ভাজি দিয়ে ভাতই খেয়ে নিলাম। এক ক্রেতা এসে দোকানিকে শিম দিতে বলায় দোকানি পাল্টা প্রশ্ন ছুঁড়ল- 'কি শিম দেব? গ্রামীণ নাকি রবি?'

বরিশাল এয়ারপোর্টটা উত্তর রহমতপুরে। এতক্ষণ রাস্তা মোটামুটি ন্যাড়া থাকলেও এরপর থেকে গাছের সারি নুইয়ে এসেছে রাস্তার উপরে। সুগন্ধ্যা নামক সুন্দর ও দৈর্ঘ্যে-প্রস্থে বড় একটা নদী পেলাম এরপরেই। এই নদীর উপর নির্মিত সেতুর নাম ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সেতু। ঠিক একই নামে একটা সেতু আছে চাঁপাইনবাবগঞ্জে মহানন্দা নদীর উপরে। খানিক বাদেই সন্ধ্যা নদী। এই নামটা বেশ মোহনীয়। এখান থেকেই প্রবেশ করলাম উজিরপুর উপজেলায়৷ দুদিন আগেই ঝালকাঠিতে অতিক্রম করেছিলাম রাজাপুর উপজেলা। ভাগ্যক্রমে রাজা-উজির সব এক যাত্রাতেই মিলে যাচ্ছে।উজিরপুরের রাস্তা।নতুন শিকারপুর পেরিয়ে পেলাম প্রচুর বাবলা গাছ। আটিপাড়া পার হয়ে চলে এলাম জয়শ্রীতে। এই রাস্তায় সাকুরা পরিবহন নামে একটা বাসের বেশ কাটতি। সানুহারের কাছে পেলাম বিশাল সব কাটা গাছ। ওরা আরো ছোট ছোট টুকরায় বিভক্ত হওয়ার অপেক্ষায়। গৌরনদী উপজেলায় প্রবেশ করলাম বামরাইলের পরেই। বিশাল সব পানের বরজ স্বাগত জানালো এই উপজেলায়। অনেক জেলাতেই পানের বরজের দেখা মিললেও এত বিশাল জায়গাজুড়ে বরজ কক্সবাজার ছাড়া দেখিনি কোথাও। 

মাহিলারা সরকার মঠ।কিছুদূর এগিয়েই সম্মুখীন হলাম এক অলৌকিক ঘটনার। বড় একটা গাছ রাস্তার ভেতরে ফুটখানেক ঢুকে পড়লেও রাস্তা সম্প্রসারণের সূত্র অনুযায়ী সেটাকে না কেটে রেখে দেয়া হয়েছে অবিকল অবস্থায়। গাছ বাঁচিয়ে রাস্তা করার এই ব্যাপারটা পুরোদিনেই চোখে পড়েছে। বিশেষ করে গৌরনদী উপজেলায়।

মহাসড়ক থেকে মাহিলারা সরকার মঠের অবস্থান খুব একটা দূরে নয়। ডান দিকের ছোট রাস্তা ধরে মিনিট তিনেক যেতে হলো। এই মঠটি কিছুটা হেলানো। সঙ্গে থাকা সাইনবোর্ড জানাচ্ছে, ইতালির পিসা টাওয়ারের সঙ্গে মিল আছে আনুমানিক সপ্তদশ শতাব্দীতে নির্মিত এই মঠের। তবে মঠের সামনে শুয়ে থাকা মহিলা জানালেন পরবর্তী সময়ে নাকি হেলে গেছে মঠটি। উপরের খোপগুলোতে দেখা মিলল অনেক টিয়াপাখির। একে একে পার হলাম মাহিলারা বাজার, কাসেমাবাদ, আশোকাঠি। গৌরনদী বাজারে ছোট একটা বিরতি দিয়ে টরকী বাজার হয়ে বার্থী। 

বটতলা ব্রিজের কাছে এসে এন্ডোমন্ডো ৫০ কিলোমিটার হাঁটার রিমাইন্ডার দিতেই তসলিম ভাই বললেন- 'ডাইকা নিয়ে আইসা প্রথম দিনেই ফিফটি মারায়ে দিলেন!'

পুরোটাদিন ধরে বরিশাল জেলার উপর দিয়ে হেঁটে সন্ধ্যায় ভূরঘাটা সেতু অতিক্রম করে প্রবেশ করলাম মাদারীপুর জেলার কালকিনি উপজেলায়। ভূরঘাটা বাসস্ট্যান্ডে দেখা হলো শারাফাত ভাই আর তার দুই বন্ধুর সঙ্গে। বেশ দারুণ একটা হালিম খাওয়ালেন শারাফাত ভাই। লালপুল বধ্যভূমি পর্যন্ত এগিয়ে দিয়ে ওনারা বিদায় নিতেই আমরা পা চালালাম। কালকিনি বাজারে নিবিড় ভাইয়ের চাচার দোকান খুঁজে পেতেই রওয়ানা দিলাম ওনাদের বাড়ির উদ্দেশ্যে। গোসল সারতেই চলে এলো খেজুরের রস সমেত চিতই পিঠা।

আরও পড়ুন...
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৪৮)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৪৭)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৪৬)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৪৫)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৪৪)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৪৩)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৪২)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৪১)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৪০)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৩৯)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৩৮)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৩৭)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৩৬)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৩৫)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৩৪)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৩৩)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৩২)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৩১)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৩০)​
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-২৯)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-২৮)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-২৭)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-২৬)​
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-২৫)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-২৪)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-২৩)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-২২)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-২১)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-২০)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-১৯)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-১৮)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-১৭)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-১৬)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-১৫)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-১৪)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-১৩)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-১২)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-১১)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-১০)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৯)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৮)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৭)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৬)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৫)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (পর্ব-৪)
** পায়ে পায়ে ৬৪ দিনে ৬৪ জেলা (দিনাজপুর-৩)
** পায়ে পায়ে ৬৪ জেলা (ঠাকুরগাঁও-২)
** পায়ে পায়ে ৬৪ জেলা (পঞ্চগড়-১)

চলবে...

বাংলাদেশ সময়: ১০৪৩ ঘণ্টা, মার্চ ১৭, ২০২০
এএ

গুজব রটানো হলে আইনগত ব্যবস্থা নেবে প্রশাসন: সিভিল সার্জন
করোনা যুদ্ধে হাসপাতালে ১ মিলিয়ন ইউরো দান করলেন জাভি
মধুপুরে ওষুধের কাটন থেকে নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার
‘সাধারণ রোগীর চিকিৎসা না দিলে লাইসেন্স বাতিল’
ট্রাক-অটোরিকশার সংঘর্ষে দুই গার্মেন্টসকর্মী নিহত


সৈয়দপুরে কিং ব্র্যান্ড সিমেন্টের ত্রাণ বিতরণ
কিশোরগঞ্জে কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড়পত্র পেল ১১৯৫ জন
করোনায় আক্রান্ত বার্সার ভাইস প্রেসিডেন্ট
নিয়ম না মানলে করোনা প্রতিরোধ কঠিন হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
মাস্ক জীবাণুমুক্ত করতে রেডিয়েশন ব্যবহার করছে রাশিয়া