php glass

শারদ মেঘের দেশে, পাখির ডানায় ভেসে

2842 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: দেলোয়ার হোসেন বাদল/বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
একখণ্ড, দু’খণ্ড, তিনখণ্ড, চারখণ্ড...দশ খণ্ড, বিশ খণ্ড, ত্রিশ খণ্ড...একশ’ খণ্ড, দু’শো খণ্ড, তিনশো’ খণ্ড...! নাহ, আর গোনা যায় না! অজুত সহস্র খণ্ড মিছিল বের করেছে নবযৌবনা শরৎ! কি সুন্দর, কি শুভ্র, কি অদ্ভুত সে অচিন দেশ! মহাপতঙ্গ যে বিস্ময় জমিয়ে রেখেছিল সেটা বুঝিনি আগে।

কক্সবাজার থেকে: ‌একখণ্ড, দু’খণ্ড, তিনখণ্ড, চারখণ্ড...দশ খণ্ড, বিশ খণ্ড, ত্রিশ খণ্ড...একশ’ খণ্ড, দু’শো খণ্ড, তিনশো’ খণ্ড...! নাহ, আর গোনা যায় না! অজুত সহস্র খণ্ড মিছিল বের করেছে নবযৌবনা শরৎ! কি সুন্দর, কি শুভ্র, কি অদ্ভুত সে অচিন দেশ! মহাপতঙ্গ যে বিস্ময় জমিয়ে রেখেছিল সেটা বুঝিনি আগে। শারদ রানী যেন  পেখম মেলে বসেছে!

ঢাকা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের অভ্যন্তরীণ টার্মিনালে আনুষ্ঠানিকতা শেষে যখন কক্সবাজারের উদ্দেশে রিজেন্টের ফ্লাইটে চড়ার অপেক্ষায়, তখনও সাম্প্রতিক সময়ের প্রকৃতির বৈরী আচরণের ব্যাপারটি ভাবনায় ঘুরপাক খাচ্ছিল। কিন্তু উড়োজাহাজে চড়ার জন্য যখন রানওয়েতে আসা হলো, তখন আকাশকে আগের দিনের আকাশও মনে হচ্ছিল না। কিন্তু, এরচেয়েও যে বড় বিস্ময় আকাশ রেখে দিয়েছে সেটা কে জানতো!

উড়োজাহাজে চেপে বসার পর জানিয়ে দেওয়া হলো, আমাদের আকাশযান ১৭ হাজার ফিট ওপর দিয়ে উড়বে। এতো উচ্চতায় উড়বো বলে নিচের জনপদটিকে কেমন দেখা যাবে সে কৌতূহলই বাড়ছিল বেশি।

রানওয়ের দৌড়োদৌড়ি শেষে ডানায় নিয়ে মহাপতঙ্গ যখন উপরে উঠতে শুরু করলো তখন ‘চমক’ই চমকে দিতে থাকলো। আমাদের প্রতি মুহূর্তে মনে হচ্ছিল আমরা উপরে উঠছি আর ভাসছি আকাশে-বাতাসে। সামনে এগোনো বোঝার পথটি তৈরি করে দিলে শারদরানী।

একটু উপরে ওঠার পরই পাখির ডানায় আলতো করে ছুয়েঁ যেতে দিতে থাকলো সারি সারি সাদা মেঘ। নীলাকাশকে বাড়ি বানানো এ প্রকৃতিপ্রাণ মাটির প্রাণ মানুষকে দেখে কী যেন বলে যেতে লাগলো!

পাখির ডানায় ভর করে কক্সবাজারের উদ্দেশে উড়াল দেওয়া মানুষগুলো মেঘকন্যাদের আতিথেয়তায় মুহূর্তের জন্য যেন ভুলে যেতে থাকলো গন্তব্যের কথা। এক খণ্ড মেঘকন্যার সঙ্গে ভাব জমিয়ে কুশল বিনিময় শুরু করতে না করতেই হাজির আরেক মেঘকন্যা। নতুন মেঘকন্যার সঙ্গে ভাব জমানোর কথা জমাতেই হাসি আরেক মেঘকন্যার...! এমন ‘প্রেম শুরুর প্রচেষ্টার’ মধ্যেই পাখি উঠে গেলো ১৭ হাজার ফিট ওপরে মেঘেদের দেশ ছাড়িয়ে!

মর্ত্যলোক থেকে আকাশের পাখি হয়ে ওঠার পর এবার আর বিস্ময়ের মাত্রা চেপে রাখা গেলো না। মেঘকন্যাদের খণ্ড খণ্ড মিছিলে বিমোহিত ক’জনের পুলকিত মন্তব্য কানে বাজলো, ‘আ রে এই তো শরৎ, এইতো শারদ রানীর রাজ্য!’

শুভ্র মেঘবালিকাকে কবি কালিদাস কেন দূত করে পাঠিয়েছিল যক্ষপ্রিয়ার কাছে তা আরেকবার নতুন করে অনুভব করলাম। শারদ মেঘবরণের এমন উপলক্ষের কথা চিন্তাও করিনি আগে। আর প্রতিমুহূর্তে ভাবছিলাম রবীন্দ্রনাথ, কালিদাস যদি এভাবে উপভোগ করার সুযোগ পেতেন তবে আরো কিনা লিখতেন।

নির্দিষ্ট আসন ছেড়ে এ জানালা-ও জানালা করে স্মার্টফোন-ক্যামেরা নিয়ে শারদরানীর রূপ ফ্রেমবন্দি করছিলাম, করছিলাম রূপের বন্দনাও। গুনতে থেকেছি সাদা মেঘের আনন্দ মিছিল, ক্লান্ত হয়েছি, আবার গুনতে শুরু করেছি। মেঘপরীদের রূপের তারিফে অন্ধ হয়েই উপলব্ধি করছিলাম, কাঁশফুল আর সাদা মেঘের শরৎ কেন প্রকৃতিপ্রেমীদের গোপন প্রেমের ঋতু, সেটা বোধ হয় উড়োজাহাজ পাখির ডানায় চড়ে দেখা ছাড়া ‘প্র্যাকটিক্যালি’ বোঝা যাবে না।

রূপবতী মেঘকন্যাদের বন্দনায় যখন ক্যামেরা-স্মার্টফোনের বাটনে চাপ পড়ছিল, তখন মেঘের রাজ্যের পাহাড়াকৃতির দৈত্য-দানবগুলোও চোখ রাঙিয়ে যাচ্ছিল অজানা কারণে! তবু সেটা শারদ উৎসবে ছন্দপতন ঘটাতে পারেনি!

ঘণ্টাখানেক পাখির ডানায় ভেসে শারদ মেঘের দেশে ওড়াউড়ির পর কক্সবাজার বিমানবন্দরের রানওয়েতে যখন পা রাখছিলাম, তখন চোখে পড়লো সাদা কাঁশফুলের বড়ো বাগান! সাগরকন্যায় হাসতে এসে ভাসতে পারা গেলো প্রকৃতি কন্যা শরতের নয়া উৎসবেও!

বাংলাদেশ সময়: ১০২০ ঘণ্টা, আগস্ট ২৯, ২০১৪

** গরম গরম ফিশ ফ্রাই
** মহাপতঙ্গের পেটে একঘণ্টা!
** রিজেন্টে ফ্রি কক্সবাজার দর্শন

পাটগ্রামে বিদ্যুতের দাবীতে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ
সংস্কৃতিবান মানুষ মানবিক হয় : সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী
হবিগঞ্জে পাওয়া গেলো দু’টি গন্ধগোকুলের বাচ্চা  
দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত কণ্ঠশিল্পী অভি এখনো আইসিইউতে
ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বাংলাদেশই ফেভারিট: তামিম


এই বাজেট লুটপাটের ধারাকে শক্তিশালী করবে: জোনায়েদ সাকি
কুর্মিটোলা গলফ ক্লাবের সামনে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১
দুর্দান্ত বোলিংয়ে ম্যাচ সেরা ইমরান তাহির
চকরিয়ায় ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন
মহম্মদপুরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ