আইপিএল না হলে ক্ষতি ৪ হাজার কোটি, বেতন কাটা হবে কোহলিদের!

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সৌরভ গাঙ্গুলী-ছবি: সংগৃহীত

walton

করোনা ভাইরাস মহামারির ধাক্কায় বিপুল পরিমাণ আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে চলেছে প্রায় সব ক্রিকেট বোর্ড। কিন্তু বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ক্রিকেট বোর্ড হিসেবে পরিচিত ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই) এ ধাক্কা থেকে অনেকটাই নিরাপদ থাকবে বলে ভাবা হচ্ছিল। কিন্তু তা সম্ভবত হচ্ছে না।

করোনার কারণে এবার ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। পরিস্থিতির কারণে এবার হয়তো মাঠেই গড়াবে না এই 'সোনার ডিম পাড়া হাঁস'। আর এমনটা হলে বিসিসিআই'র আর্থিক ক্ষতি হবে প্রায় ৪ হাজার কোটি রুপি। এমন আশঙ্কার কথা শোনালেন খোদ বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলী।

গত মার্চের ২৯ তারিখে গড়ানোর কথা কথা আইপিএলের ১৩তম আসর। কিন্তু বিদেশিদের ভিসা প্রদান বন্ধ রাখায় এপ্রিল পর্যন্ত পিছিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু এরপর করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ হলেও পুরো ভারতে লকডাউন ঘোষণা করা হয়। ফলে আইপিএলের এবারের আসর অনির্দিষ্টকালের জন্য পিছিয়ে দিতে বাধ্য হয় বিসিসিআই।

আইপিএলের ভবিষ্যত নিয়ে কথা বলতে গিয়ে শুক্রবার (১৫ মে) ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে গাঙ্গুলী বলেন, '(আইপিএল নিয়ে) চূড়ান্ত ঘোষণা দেওয়ার আগে আমাদের আর্থিক পরিস্থিতির নিয়ে খোঁজখবর নিতে হবে। আইপিএল আয়োজন না করতে পারলে প্রায় ৪ হাজার কোটি রুপি ক্ষতি হবে, যা অনেক বিশাল অঙ্ক।'

করোনার জেরে আর্থিক ধাক্কা সামতালে এর আগে কর্মী ছাটাইয়ের মতো সিদ্ধান্ত নিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া সিএ)। ক্রিকেটারদের বেতন কাটার পথ বেছে নিতে বাধ্য হয়েছে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি)। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটারদের বেতন পাওয়া নিয়েই সংশয় দেখা দিয়েছে। এবার ভারতীয় ক্রিকেতারদের বেতন কাটার ইঙ্গিত দিলেন গাঙ্গুলী।

ভারতীয় জাতীয় দলের তারকারা বছরে প্রায় ৭ কোটি রুপি বেতন পান। কিন্তু আইপিএলের এবারের আসর বাতিল হলে খেলোয়াড়দের বেতন কাটার মতো সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়ে সাবেক ভারতীয় অধিনায়ক বলেন, 'যদি আইপিএল মাঠে গড়ায় তাহলে বেতন কাটার মতো সিদ্ধান্ত নিতে হবে না। আমরা সবকিছু ম্যানেজ করে নিতে পারব।'

অনেকে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে আইপিএল আয়োজনের প্রস্তাব দিচ্ছেন। কিন্তু এর জবাবে গাঙ্গুলী জানান, এমনটা হলে আকর্ষণ কমে যাবে। তিনি বলেন, 'হ্যাঁ, আকর্ষণ কমে যাবে, ১৯৯৯ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে এশিয়ান টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ম্যাচে (দর্শকের মাঝে বিশৃঙ্খলা ছড়িয়ে পড়ায় ইডেন গার্ডেনসে ম্যাচের শেষদিন দর্শক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়)  আমারও এমন অভিজ্ঞতা হয়েছিল এবং স্পষ্টতই ম্যাচের উত্তেজনা কমে গিয়েছিল।'

সবমিলিয়ে গাঙ্গুলী মতে, 'আপনাকে যদি স্বল্পসংখ্যক দর্শক নিয়ে খেলা আয়োজনের জন্য বলা হয়, এতেও শুধু কঠোরভাবে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার ব্যবস্থা তো করতেই হবে, সেই সঙ্গে ম্যাচ অফিসিয়ালদেরও দর্শকদের গ্যালারি ছাড়ার সময় খুব সতর্ক থাকতে হবে। এক্ষেত্রে পুলিশিং হতে হবে কঠোরভাবে। কিন্তু এটা খুব কঠিন পরিস্থিতি।'

বাংলাদেশ সময়: ২১৩৩ ঘণ্টা, মে ১৫, ২০২০
এমএইচএম

সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ে ‘নির্বাহী আদেশে সই করবেন ট্রাম্প’
ঝড়ে লালমোহনে শতাধিক ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত
করোনা উপসর্গ নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা বিকাশ দত্তের মৃত্যু
উত্তর কোরিয়ার ব্রিটিশ দূতাবাস বন্ধ ঘোষণা
বিরামপুরে অ্যালকোহল পানে আরও ৪ জনের মৃত্যু


কবে আগের মতন কাজ করতে পারমু?
চিড়িয়াখানায় প্রাণীরা মহানন্দে, বাচ্চা দিয়েছে জিরাফ-জলহস্তী
ঈদের বন্ধেও পর্যটকশূন্য বান্দরবান
খুলনা জেলা ক্রিকেট দলের অধিনায়ক কাজল আর নেই
শেবাচিম হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে পুলিশ কনস্টেবলের মৃত্যু