ইন্টারের ট্রেনিং গ্রাউন্ডে ঠিকানা হলো গৃহহীন এরিকসেনের

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

অ্যাশলে ইয়ং ও এরিকসেন

walton

গত জানুয়ারিতে টটেনহাম থেকে বড় স্বপ্ন নিয়ে ইন্টার মিলানে যোগ দেন ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন। সান সিরোতে সবকিছু ঠিকঠাক চলছিল তার। নেরাজ্জুরিদের হয়ে আট ম্যাচে মাঠেও নেমেছেন ড্যানিশ মিডফিল্ডার। কিন্তু করোনা ভাইরাস পৃথিবীকে বড় ধরণের ঝুঁকিতে তো ফেলেছে; অসুবিধায় পড়ে গেছেন এরিকসেনও।

ইন্টারে যোগ দিলেও নিজের বাসস্থান এখনও ঠিক হয়নি তার। এরই মধ্যে করোনার কারণে স্থগিত হয়ে পড়ে ফুটবলসহ পুরো ক্রীড়া বিশ্ব। সংক্রমণ এড়াতে নেরাজ্জুরিদের সব খেলোয়াড়-কর্মকর্তা ফিরে যান নিজেদের ঘরে। কিন্তু গৃহহীন এরিকসেনের ঠিকানা হয় ক্লাবের ট্রেনিং গ্রাউন্ডে। আর এখন পযর্ন্ত সেখানেই রাত কাটাচ্ছেন তিনি। 

শুরুতে অবশ্য এরিকসেন তার ক্লাব সতীর্থদের গৃহে আশ্রয় নিতে চেয়েছিলেন। এমনকি তাদের বাসার সোফায় ঘুমিয়ে রাত কাটাতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু কোভিড-১৯ ইতালিতে যেভাবে ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করে, তাতে কে কাকে আশ্রয় দেবেন? সাত-পাঁচ ভেবে অবশেষে তিনি ইন্টারের ট্রেনিং গ্রাউন্ডের সুবিধাকে বেছে নেন বসবাসের জন্য।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক ট্যাবলয়েড দৈনিক পত্রিকা দ্য সানকে নিজের এই অসুবিধার কথা জানিয়েছেন এরিকসেন। ২৮ বছর বয়সী তারকা বলেন, ‘আমি রোমেলু লুকাকু এবং অ্যাশলে ইয়ংয়ের সঙ্গে কথা বলার চিন্তা করছিলাম, কিন্তু তাদের পরিবার আছে, তাদের দেখাশোনা করতে হয় এবং টানা ১৪দিন কারও বাসার সোফায় ঘুমানো তা খুব দীর্ঘ সময়।’

ইন্টার মিলান তারকা আরও বলেন, ‘পরিবর্তে, আমি একজন শেফ (পাঁচক) ও আর পাঁচজন স্টাফ নিয়ে ক্লাবের ট্রেনিং গ্রাউন্ডে থাকার ব্যবস্থাকে বেছে নিলাম। ওরা তাদের পরিবারকে করোনার সংক্রমণ থেকে পরিবারকে রক্ষা করার জন্য আমার সঙ্গে কোয়ারেন্টাইনে চলে আসে।’ 

কিন্তু তাতেও সমস্যা থামেনি এরিকসেনের। একদিন পুলিশ তাকে থামিয়ে এসবের ব্যাখ্যা দিতে বলেন। আর সদ্য ইতালিতে আসা ২৮ বছর বয়সী সাবেক স্পার্স তার ভাঙা ভাঙা ইতালিতে সবকিছুর উত্তর দেন।

সেই দিনের কথা স্মরণ করে এরিকসেন আরও বলেন, ‘পুলিশ আমাকে থামায় এবং আমি ভাঙা ভাঙা ইতালিয়ানে এখানে কি করছিলাম সে বিষয়টা ব্যাখ্যা করি তাদের। আমি তাদের বলি আমি গৃহহীন।’ 

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৬ ঘণ্টা, মে ১১, ২০২০
ইউবি 

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ফুটবল সিরি আ' করোনা ভাইরাস
বাড়িতেই করোনা রোগীর দেখাশোনা 
শিল্প মন্ত্রণালয়ের শিল্পপ্রতিষ্ঠানসমূহকে ঢেলে সাজানো হচ্ছে
করোনা রোগীর জন্য ফ্রি অ্যাম্বুল্যান্স মানবাধিকার কমিশনের
সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ে ‘নির্বাহী আদেশে সই করবেন ট্রাম্প’
ঝড়ে লালমোহনে শতাধিক ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত


করোনা উপসর্গ নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা বিকাশ দত্তের মৃত্যু
উত্তর কোরিয়ার ব্রিটিশ দূতাবাস বন্ধ ঘোষণা
বিরামপুরে অ্যালকোহল পানে আরও ৪ জনের মৃত্যু
কবে আগের মতন কাজ করতে পারমু?
চিড়িয়াখানায় প্রাণীরা মহানন্দে, বাচ্চা দিয়েছে জিরাফ-জলহস্তী