আর্থিক ও মানসিক কারণেই ফুটবল জরুরি: রামোস

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সার্জিও রামোস/ছবি: সংগৃহীত

walton

করোনা ভাইরাস মহামারির কারণে স্তব্ধ হয়ে পড়া ফুটবলবিশ্ব ফের স্বরূপে ফেরার অপেক্ষায় আছে। ইউরোপের শীর্ষ লিগগুলো ফেরার সব রাস্তা প্রায় পরিস্কার করেও ফেলেছে। এর মধ্যে লা লিগা'র খেলোয়াড়রা অনুশীলনেও ফিরতে শুরু করেছে। সবমিলিয়ে মাঠে ফুটবল ফেরার এই প্রস্তুতিতে সন্তুষ্ট রিয়াল মাদ্রিদের স্প্যানিশ অধিনায়ক সার্জিও রামোস।

করোনা ঝড়ে স্পেনের অর্থনীতি লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে। ডুবতে বসা অর্থনীতিতে বাঁচাতে সোনার ডিম পাড়া হাঁস 'লা লিগা' ফেরানোর সবরকম চেষ্টাই অব্যাহত। আসলে দেশটির অর্থনীতিও অনেকটা ফুটবলনির্ভর। ফলে ফুটবল ফেরানোর গুরুত্ব অনেক বলেই মত রামোসের। সেই সঙ্গে করোনায় আতঙ্কগ্রস্ত স্প্যানিশদের মানসিক অবসাদ থেকে বাঁচাতেও ফুটবলের প্রয়োজনীয়তা দেখছেন তিনি।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে রামোস বলেন, 'সবকিছু ঠিক হতে সময় লাগবে। তবে আর্থিক সমস্যা থেকে বাঁচতে এবং সবার নজর (করোনা থেকে) ঘুরিয়ে দিতে দেশের এই মুহূর্তে ফুটবল খুব প্রয়োজন।'

রিয়াল অধিনায়ক ফের মাঠে ফিরতে মরিয়া। তবে এক্ষেত্রে সাবধানতা অবলম্বনের কথাও মনে করিয়ে দিলেন তিনি, 'আমি আবার প্রতিযোগিতায় নামতে মুখিয়ে আছি। লা লিগা আবার স্বাভাবিক হওয়ার অপেক্ষায় আছি। তবে এই ভাইরাসকে হারাতে আমাদের নিয়ন্ত্রিত হতে হবে।'

এই কঠিন সময়ে দেশবাসীর পাশে থাকার প্রত্যয় জানিয়ে তিনি বলেন, 'যারা এই বিপদে আপনজনকে হারিয়েছেন তাদের পাশে থাকার বার্তা দিয়ে আমি জানাতে চাই, আমরা এই কঠিন সময় পাড়ি দেবো এবং আমরা একসঙ্গে আছি।'

স্বাস্থ্যবিধি মেনে লা লিগার অন্যান্য ক্লাবের মতো সম্প্রতি অনুশীলনে ফিরেছে রিয়াল মাদ্রিদও।সবকিছু পাল্টে যাওয়ার পর নতুন সব নিয়মের বেড়াজালের মাঝে অনুশীলনে ফেরা নিয়ে নিজের অভিজ্ঞতাও শেয়ার করেছেন রামোস।

রামোস বলেন, 'আমাদের ভালদেবেবাস (রিয়ালের অনুশীলন মাঠ) যেতে হয় নিয়ম মেনে। আলাদা আলাদাভাবে অনুশীলন করতে হয়। এটা একটু অস্বাভাবিক এবং কঠিন, কিন্তু পরিস্থিতি মানতেই হবে। এটা লা লিগার সিদ্ধান্ত। জার্মানি একটা উদাহরণ সৃষ্টি করেছে যা আমাদের অনুসরণ করতে হবে।'

অনুশীলন শুরু হলেও সবাইকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। অর্থাৎ পরিবার থেকে আলাদাভাবে থাকতে হবে। সেটা টিম হোটেল হতে পারে। রামোসের মন্তব্য অন্তত এমন কিছুই ইঙ্গিত করে। তিনি বলেন, 'আমরা নিজ নিজ পরিবারের সঙ্গে থাকতে পছন্দ করি। কিন্তু এখন এসব (নতুন নিয়ম) মেনে চলতে হবে।'

লা লিগার চলতি মৌসুমের বাকি সময়ের খেলা মাঠে গড়াবে শিগগিরই। তবে পয়েন্ট তালিকায় এক ও দুইয়ে থাকা বার্সা ও রিয়ালের মধ্যে যেকোনো এক দলের হাতেই যে শিরোপা যাচ্ছে তাতে কোনো সন্দেহ আপাতত নেই। কিন্তু এখনই কোনো দলকে নিশ্চিত চ্যাম্পিয়ন মানছেন না রামোস।

রিয়ালের অন্যতম সফল এই অধিনায়কের মতে, 'দর্শকশূন্য মাঠে খেলা হবে। ফলে এখনই অগ্রিম ভেবে নেওয়া ঠিক হবে না। তবে আমাদের লক্ষ্য চ্যাম্পিয়ন হওয়া।'

বার্সেলোনার চেয়ে মাত্র ২ পয়েন্টের ব্যবধানে পিছিয়ে আছে রিয়াল। এই মৌসুমে দুই দলের ম্যাচ বাকি ১১টি করে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০১ ঘণ্টা, মে ১১, ২০২০
এমএইচএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ফুটবল রিয়াল মাদ্রিদ
বাড়িতেই করোনা রোগীর দেখাশোনা 
শিল্প মন্ত্রণালয়ের শিল্পপ্রতিষ্ঠানসমূহকে ঢেলে সাজানো হচ্ছে
করোনা রোগীর জন্য ফ্রি অ্যাম্বুল্যান্স মানবাধিকার কমিশনের
সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ে ‘নির্বাহী আদেশে সই করবেন ট্রাম্প’
ঝড়ে লালমোহনে শতাধিক ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত


করোনা উপসর্গ নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা বিকাশ দত্তের মৃত্যু
উত্তর কোরিয়ার ব্রিটিশ দূতাবাস বন্ধ ঘোষণা
বিরামপুরে অ্যালকোহল পানে আরও ৪ জনের মৃত্যু
কবে আগের মতন কাজ করতে পারমু?
চিড়িয়াখানায় প্রাণীরা মহানন্দে, বাচ্চা দিয়েছে জিরাফ-জলহস্তী