ঢাকা, শনিবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২

ফুটবল

'বঙ্গবন্ধু ক্রীড়াঙ্গনে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছিলেন'

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৩৭ ঘণ্টা, মার্চ ১৭, ২০২০
'বঙ্গবন্ধু ক্রীড়াঙ্গনে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছিলেন' জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে কেক কাটেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জনাব মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জনাব মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি বলেন, বঙ্গবন্ধু এদেশের ক্রীড়াঙ্গনে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনতে বিশেষ ভূমিকা পালন করেন। যার কারণে দেশের ক্রীড়াক্ষেত্র আজ এই পর্যায়ে এসছে।

মঙ্গলবার (মার্চ ১৭) বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ কর্তৃক আয়োজিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনকে এগিয়ে নিতে সময়োপযোগী নানা পদক্ষেপের মাধ্যমে ক্রীড়াঙ্গনে বৈপ্লবিক পরিবর্তনের শুভ সূচনা করেছিলেন।

তিনি আজকের বিসিবি, বাফুফে ও জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ গঠন করেছিলেন। তার গৃহীত এ সকল যুগান্তকারী পদক্ষেপের কারণেই বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনে বাংলাদেশের অবস্থান সুদৃঢ় হয়েছে। ’

ক্রীড়াঙ্গনের জন্য আজকের এদিনটি একটি বিশেষ দিন উল্লেখ করে তিনি বলেন,  ‘আমরা ভাগ্যবান যে আমরা জাতির পিতার জন্মশতবর্ষ উদযাপন করতে পারছি। আমাদের জাতির পিতা শুধু একজন সফল রাষ্ট্রনায়কই ছিলেন না, তিনি একজন সফল ক্রীড়াবিদ, সফল ক্রীড়া সংগঠক ছিলেন।  তাই এ মাহেন্দ্রক্ষণ ঘিরে আমরা নানা বর্ণিল কর্মসূচির আয়োজন করেছি।  যদিও করোনা ভাইরাসের কারনে কিছু প্রোগ্রাম স্থগিত করা হয়েছে।  তবে সমস্যা কেটে গেলে আমরা গৃহীত সকল কার্যক্রম শেষ করবো। সকল কর্মসূচি বাস্তবায়নের মধ্যে দিয়ে আমরা ক্রীড়াঙ্গনকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে যাবো। ’

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন,  ‘এ বছর আমরা বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামকে নতুন রূপে সাজাবো।  এ জন্য প্রায় ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। শুধু ক্রীড়াক্ষেত্রে নয়, বেকার যুবকদের আত্মকর্মসংস্থানের লক্ষ্যে মুজিব বর্ষে প্রায় দুই লাখ যুবককে সহজ শর্তে জামানতবিহীন ঋণ দেয়া হবে। এ ঋণের সীমা ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত যা দিয়ে বেকারত্ব দূর হবে। ’

অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী ১০০ পাউন্ড ওজনের একটি কেক কাটেন এবং বর্ণিল আতশবাজি উপভোগ করেন। জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ কতৃক আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া সচিব জনাব মো. আকতার হোসেন,  জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব জনাব মাসুদ করিম,  মন্ত্রণালয়ের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ ও বিভিন্ন ক্রীড়া ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দ।

বাংলাদেশ সময়: ২১৩৭ ঘণ্টা, মার্চ ১৭, ২০২০
আরএআর/এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa