সনু নিগমের গানে ঠোঁট মেলালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গান গাইছেন সনু নিগম: ছবি-শোয়েব মিথুন

walton

বঙ্গবন্ধু বিপিএলর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সন্ধ্যা ৬টা ৫৫ মিনিটে মঞ্চে হাজির হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আয়োজিত বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে এবারের আসরের উদ্বোধন ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী। উদ্বোধনের পর অনুষ্ঠান উপভোগের জন্য বিসিবির হসপিটালিটি বক্সে এসে বসেন তিনি।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে সন্ধ্যা ৭-৪৫ মিনিটে মঞ্চে উঠেন ভারতীয় সঙ্গীত তারকা সনু নিগম। মঞ্চে উঠে শুরুতে দু’টি গান করেন তিনি। এরপর গেয়ে ওঠেন ‘ধনধান্যে পুষ্প ভরা’ গানটি। বাংলাদেশের এই দেশাত্মবোধক গানের সঙ্গে ঠোঁট মেলান উপস্থিত দর্শকরা। কেবল দর্শকরা নয়, এই গানের সঙ্গে ঠোঁট মেলাতে দেখা যায় প্রধানমন্ত্রীকেও। ‘সে যে আমার জন্মভূমি’ লাইনটিতে ঠোঁট মেলানোর পর হাত তালি দিয়ে মুগ্ধতা ও উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন তিনি।

সনু নিগম এরপর শুরু করেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গাওয়া গান ‘শোনো একটি মুজিবরের থেকে’ গানটি। মুক্তিযুদ্ধের সময় স্বাধীনতাকামী মানুষকে অনুপ্রেরণা যুগিয়েছিল এই গান। নিজের পিতাকে নিয়ে করা গানের সঙ্গে ঠোঁট না মিলিয়ে থাকতে পারেননি প্রধানমন্ত্রী।

৪০ মিনিটের পারফর্ম্যান্সে বাংলা গান ছাড়াও নিজের বেশ কিছু জনপ্রিয় সংগীত পরিবেশন করেন সনু নিগম। তার মধ্যে ছিল, ‘কাল হো নাহো’, ‘সুরজ হুয়া মাধম’, ফির মিলেঙ্গে’, ‘ইয়ে দিল দিওয়ানা’ সহ বেশ কয়েকটি গান। স্টেডিযামে উপস্থিত দর্শকরাও বেশ উপেভোগ করেন তার পারফরম্যান্স।

ভারতীয় এই গায়কের আগে মঞ্চ মাতান বাংলাদেশের জনপ্রিয় সঙ্গীত তারকা জেমস। অনুষ্ঠানের শুরুতে পারফর্ম করেন ‘ডি-রকস্টার’ তারকা মঈদুল ইসলাম খান শুভ। এরপর একে একে দর্শক মাতাতে মঞ্চে আসেন রেশমি মির্জা ও ব্যান্ড। 

বাংলাদেশ সময়: ২১৩৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৮ম ২০১৯
ইউবি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ক্রিকেট
পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেনের পাওয়ারকারে আগুন
ঢাকা-সিলেট ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক
৯ ঘণ্টা পর কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল শুরু
ত্রিপুরা-আসামে এখনই সিএএ চালু না করার নির্দেশ আদালতের
শেষ রক্ষা হলো না অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদের


কমছে সবজির দাম
স্বস্তিতে সবজি, চড়া মাছ-মসলা-চালের বাজার
শীতেও মিলছে ইলিশ, ফিরেছে ২০ বছর আগের হারানো মৌসুম
ছোটপর্দায় আজকের খেলা
আমন-আউশের মধ্যবর্তী সময়ে সরিষা চাষে কৃষকের বাড়তি আয়