php glass

হেরেও সেমিতে চট্টগ্রাম আবাহনী, সঙ্গী মোহনবাগান

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কলকাতার মোহনবাগানের বিপক্ষে চট্টগ্রাম আবাহনীর ম্যাচের একটি মুহূর্ত। ছবি: উজ্জ্বল ধর

walton

চট্টগ্রাম থেকে: একদিকে ছিল ছুটির দিন। তারমধ্যে ছিল কলকাতার ক্লাব মোহনবাগানের বিপক্ষে স্বাগতিক দল চট্টগ্রাম আবাহনী লিমিটেডের ম্যাচ। সন্ধ্যা ঘনিয়ে আসতেই ৩০ হাজার দর্শক ক্ষমতাসম্পন্ন এমএ আজিজ স্টেডিয়াম কানায় কানায় ভরে গেলো।

আগের দুই ম্যাচে জয় পাওয়ায় সেমিফাইনালে যেতে হলে শিরোপা পুনরুদ্ধারে নামা চট্টগ্রাম আবাহনীর ড্র হলেও চলতো মোহনবাগানের বিপক্ষে। তবে হারলেও ভয় ছিল না তাদের। কারণ গোল ব্যবধানে এগিয়ে ছিল তারা। অন্যদিকে দিনের আরেক ম্যাচে ইয়ং এলিফেন্টস ২-১ গোলে টিসি স্পোর্টসের বিপক্ষে জয় পাওয়ায় মোহনবাগানের জয় ছাড়া কোনো বিকল্প ছিল না। অবশেষে সেই কঠিন সমীকরণের ধাপ পেরিয়েছে কিবু ভিকুনার দল। চট্টগ্রাম আবহনীর বিপক্ষে ১-০ গোলের জয় তুলে নিয়ে শেষ চারে ওঠেছে মোহনবাগান। আর হেরেও সেমিতে উঠেছে চট্টগ্রাম আবাহনী। সমান ৬ পয়েন্ট নিয়েও গোল ব্যবধানে পিছিয়ে থাকায় গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিলো ইয়ং এলিফেন্টস। লাওসের দলটি ৬ গোল করার পাশাপাশি ৬ গোল হজম করেছে।

শেষ চার কিছুটা নিশ্চিত থাকায় কোচ মারুফুল হক তার একাদশে নিয়ে আসেন ছয় পরিবর্তন। বিশ্রাম দিয়েছিলেন অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া, মিডফিল্ডার ম্যাথিউ চিনেডু, আরিফুল ইসলাম, গোলরক্ষক মোহাম্মদ নেহাল, মনির আলম ও রহমত মিয়াকে।   

শুক্রবার (২৫ অক্টোবর) ম্যাচের শুরু থেকে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে আক্রমণ চালাতে থাকে দুই দল। নবম মিনিটে মোহনবাগানের ডি-বক্সের ভেতর গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন রতকোভিচ লুকা। আক্রমণের ঢেউ তুলতে থাকা ভিকুনার দল ১২তম মিনিটে সুযোগ নষ্ট না করলে এগিয়ে যেতে পারতো। ৩৪তম মিনিটে লুকা আবার তেড়েফুঁড়ে ঢুকে পড়েন প্রতিপক্ষের ডি-বক্সে। শটও নেন গোলপোস্ট লক্ষ্য করে। কিন্তু তার আগে অফসাইডের বাঁশি বাজান রেফারি। দু’দলই আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে ব্যস্ত থাকলেও প্রথমার্ধে গোলের দেখা পায়নি।

বিরতি থেকে ফিরে ৫০তম মিনিটে গোলপোস্টের বাইরে মেরে সুযোগ নষ্ট করে মোহনবাগান। এরপরের মিনিটে দুর্দান্ত আক্রমণে ওঠে স্বাগতিকরা। কিন্তু গোল না পেলেও প্রথম কর্নারের দেখা পায় চট্টগ্রাম আবাহনী। তার আগে ছয়টি কর্নার পেয়েছিল মোহনবাগান। ৫৭তম মিনিটে বদলি হিসেবে নামেন ম্যাথিউ। ৬০তম মিনিটে গোল হজম করে বসে চট্টগ্রাম আবাহনী। ডি-বক্সের ভেতর থেকে দুর্দান্ত শট নিয়ে গোলরক্ষক মোহাম্মদ রকিকে পরাস্ত করেন মোহনবাগানের ফরোয়ার্ড সুহেয়ার ভেদাক্কেপিদিকা।

গোল হজমের পরের মিনিটে সমতায় ফিরতে মরিয়া চট্টগ্রাম আবাহনী নামায় তাদের দলের প্রাণভোমরা জামাল ভূঁইয়াকে। বাংলাদেশ অধিনায়ককে পেয়ে প্রেসিং ফুটবল দিয়ে খেলায় গুছিয়ে তোলে বন্দর নগরের দলটি। কিন্তু বারবার তাদের হতাশ হতে হয়েছে ফিনিশারের অভাবে। ৬৯তম মিনিটে মোহনবাগানের ডি-বক্সের ভেতর অনবদ্যভাবে ওয়ান টু ওয়ানে গোলের সুযোগ সৃষ্টি করেছিলেন জামাল-ম্যাথিউ-লুকা। কিন্তু এবারও সুযোগ নষ্ট করেন তারা। ৭৫ ও ৮০তম মিনিটে দুইটি সহজ সুযোগ নষ্ট করেন মারুফের শিষ্যরা। শেষদিকে আরও বেশ কয়েকবার আক্রমণে ওঠেন জামালরা। কিন্তু মোহনবাগানের রক্ষণ দেয়াল ভাঙতে পারেননি তারা। শেষ পযর্ন্ত টুর্নামেন্টের প্রথম হার নিয়ে মাঠ ছাড়ে বন্দর নগরের ক্লাব আবাহনী।

বাংলাদেশ সময়: ২১১৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৫, ২০১৯
ইউবি/এইচএ/

টেস্টে আমি যা ভেবেছিলাম এর চেয়ে খারাপ হয়েছে: পাপন
টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারাটা মেনে নিতে পারছেন না পাপন
মাঠ ছাপিয়ে দর্শক উচ্ছ্বাস চন্দনা মজুমদার আর জুনুনে
টেস্ট দল নিয়ে আলাদাভাবে ভাবছে বিসিবি
মওলানা ভাসানীর প্রয়াণ
ইতিহাসের এই দিনে

মওলানা ভাসানীর প্রয়াণ



পাহাড়ের মাটি যাচ্ছে ইটভাটায়
গভীর রাতে উন্নয়ন কাজ তদারকিতে মেয়র নাসির
আমিরাতে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
সৌদিতে নারী কর্মী পাঠানো নিয়ে বিপাকে সরকার
রোববার প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দেবে বিএনপি