php glass

চেন্নাই এফসিকে হারালো বসুন্ধরা কিংস

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: উজ্জ্বল ধর

walton

চারটি লাল কার্ড ও চারটি হলুদ কার্ড। তার মধ্যে কোচ ও খেলোয়াড় মিলিয়ে ভারতের ক্লাব চেন্নাই সিটি এফসির কপালে জুটেছে দুই হলুদ ও তিন লাল কার্ড। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস দেখলো দুই হলুদ ও একটি লাল কার্ড। লাল কার্ডটি অবশ্য জুটেছে কিংস কোচ অস্কার ব্রুজনের কপালে। অবশ্য সব ছাপিয়ে নখ কামড়ানো ম্যাচটিতে জালালের জোড়া গোলে ৩-২ ব্যবধানের জয় তুলে নিয়ে শেষ চারের আশা বাঁচিয়ে রেখেছে অস্কার ব্রুজনের শিষ্যরা।

বৃহস্পতিবার (২৪ অক্টোবর) শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপে চট্টগ্রাম এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে সেমিফাইনালে যাওয়ার আশা বাঁচিয়ে রাখতে চেন্নাইয়ের মুখোমুখি হয়েছিল বসুন্ধরা। শুরু থেকে আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকা কিংসরা এগিয়ে যায় ষষ্ঠ মিনিটে। দেনিয়েল কলিন্দ্রেসের ক্রসে হেড দেন বখতিয়ার। এরপর বল পান জালাল। লেবানিজ ফরোয়ার্ড বল জড়িয়ে দেন জালে। 

ছবি: উজ্জ্বল ধরম্যাচে সব ছাপিয়ে আলোচনার খোরাক জুগিয়েছে মাঠ ও মাঠের বাইরের বাক-বিতণ্ডা। ঘটনার সূত্রপাত ২২তম একটি ফ্রি-কিককে কেন্দ্র করে। তখন পর্যন্ত এক গোলে এগিয়ে বসুন্ধরা। সেট পিস থেকে শট নেওয়ার সময় একটু আগ্রাসী মনোভাব প্রকাশ করেন চেন্নাইয়ের জাপানি মিডফিল্ডার কাৎসুমি  ইয়োসা। ম্যাচ রেফারি শ্রীলঙ্কার লাকমল ভিরেক্কোদ্দি সাবধান করে দিয়ে ইয়োসাকে বলেন, ‘হেই চায়নাম্যান দিজ ইজ নট চীন, ইটস বাংলাদেশ (এই চায়নাম্যান এটা চীন নয়, বাংলাদেশ)। বিষয়টা ইগোতে লাগে ইয়োসার।

এ সময় বসুন্ধরা কিংস কোচ অস্কার ব্রুজনের দিকে বল হাতে ছুটে যান ইয়োসা। তিনি রাগী ভঙ্গিমায় ব্রুজনের সঙ্গে কথা বলছিলেন। তবে দু’জনের কথা চলাকালে ইয়োসা খেলতে অস্বীকৃতি জানিয়ে মাঠ থেকে ওঠে যান। লাথি মারেন খেলোয়াড়দের বসার জন্য দেওয়া চেয়ারে। ব্রুজন ও ইয়োসাকে ঠাণ্ডা করার চেষ্টা করেন টুর্নামেন্ট কর্মকর্তারা। এর দুই মিনিট পরেই রেফারির দিকে হাত পাকিয়ে মারার জন্য তেড়ে যান কাৎসুমি। বাকি খেলোয়াড়রা অবশ্য রক্ষা করেন রেফারিকে।

খেলোয়াড়দের মধ্যে বিতণ্ডা/ ছবি: উজ্জ্বল ধরএমন সময় চেন্নাইয়ের অন্যান্য খেলোয়াড়রাও না খেলার জন্য মাঠের বাইরে চলে আসেন। যার ফলে ম্যাচ বন্ধ থাকে ১১ মিনিট। রেফারি ৩২ মিনিটে লাল কার্ড দেখান ইয়োসাকে। আরো তিন মিনিট আলোচনার পর ৩৫ মিনিটের মাথায় ম্যাচ পুনরায় শুরু হয়। তবে ঘটনা এখানে শেষ হয়নি। ১০ জনের দল নিয়ে মাঠের মধ্যে ‘রাফ অ্যান্ড টাফ’ ফুটবল খেলতে থাকে চেন্নাই। ৪২ মিনিটে মাশুরের ক্রস থেকে চেন্নাইকে সমতায় ফেরান অধিনায়ক পেদ্রো হাভিয়ের ক্রুজ।

উত্তেজনা-বিতর্ক-নাটকীয়তা এখানেই শেষ নয়। ম্যাচ ১১ মিনিট বন্ধ থাকায় প্রথমার্ধেই ১২ মিনিট বাড়িয়ে দেওয়া হয়। যোগ করা সময়ে কিংসের কিরগিজস্তানের মিডফিল্ডার বখতিয়ারকে ফাউল করেন চেন্নাইয়ের এক খেলোয়াড়। বিষয়টিকে কেন্দ্র করে মাঠে ঢুকে পড়েন বসুন্ধরা কিংস কোচ অস্কার ব্রুজন। শিষ্যের আঘাত পাওয়ার ক্ষোভে তিনি বাক-বিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন রেফারি ও চেন্নাই কোচ মোহাম্মদ আকবরের সঙ্গে। ম্যাচ রেফারি বিষয়টি সমাধান করেন দুই কোচকে লাল কার্ড দেখিয়ে।

মঠ ছেড়ে বেরিয়ে যাচ্ছেন জাপানি মিডফিল্ডার কাৎসুমি  ইয়োসা/ছবি: উজ্জ্বল ধরবিরতির পর নাটক জমেছিল আরো। একের পর এক আক্রমণ করতে থাকা বসুন্ধরা পুনরায় এগিয়ে যায় ৫৮ মিনিটে। কলিন্দ্রেসের ক্রস থেকে ব্যবধানটা ২-১ করেন বখতিয়ার। ৬৯ মিনিটে ৯ জনের দল হয়ে পড়ে কিংসরা। দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ডিফেন্ডার রবার্তো সুয়ারেজ। এর পরের মিনিটে গোল শোধ করে চেন্নাই। বল সেভ করতে এগিয়ে গিয়েছিলেন বসুন্ধরা গোলরক্ষকক আনিসুর রহমান জিকু। কিন্তু তার মাথার উপর দিয়ে বল জালে জড়িয়ে দেন মাশুর।

গোল হজমের পর একের পর এক আক্রমণ চালায় বসুন্ধরা। কিন্তু গত ম্যাচের মতো এবারও ফিনিশারের অভাবে গোল পাচ্ছিল না তারা। ৮৭ মিনিটে স্বস্তির গোল পায় ব্রুজনের দল। রবিউলের ক্রস থেকে বসুন্ধরাকে জয়সূচক গোল এনে দেন জালাল। বাকি সময় ব্যবধান ধরে রেখে সেমির আশা নিয়ে মাঠ ছাড়ে বসুন্ধরা কিংস।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৪, ২০১৯
ইউবি/এমএইচএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ফুটবল
বেনাপোলে ৮ স্বর্ণের বারসহ আটক ১ 
শিশু রাজন কি বিনা চিকিৎসায় মারা যাবে?
১০২৮ ক্রসিংয়ে গেটকিপার নেই, অথচ মেয়াদ শেষ প্রকল্পের
আফগানিস্তানে গাড়ি বোমা হামলায় নিহত ৭
আরও ২৩ উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন, ৭ কেন্দ্র উদ্বোধন


কোম্পানীগঞ্জে ধানক্ষেত থেকে যুবকের মরদেহ উদ্ধার
সিগন্যাল না দেখার অজুহাত তূর্ণার সহকারী চালকের
কুবিতে ভর্তির সাক্ষাৎকার শুরু ২৪ নভেম্বর
গোল্ডেন ফুট অ্যাওয়ার্ড জিতলেন মদ্রিচ
শীত আসছে ড্রাই শ্যাম্পুর রেসিপিটা মনে আছে তো!