php glass

পিচিচি জিতেছেন, এবার গোল্ডেন শু’তে চোখ মেসির

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড লিওনেল মেসি-সংগৃহীত

walton

আগামী জুনে বত্রিশে পা দিবেন। কিন্তু বয়সের সঙ্গে সঙ্গে আরো ধারালো হচ্ছেন লিওনেল মেসি। মেসি মানেই রেকর্ড ভেঙে রেকর্ড গড়া। লা লিগার ২০১৮-১৯ মৌসুমের শেষ ম্যাচেও দু’টি রেকর্ডে ভাগ বসালেন আর্জেন্টাইন ফুটবল জাদুকর।

এইবারের মাঠে মৌসুমের শেষটা রাঙাতে পারেনি শিরোপা নিশ্চিত করে ফেলা বার্সেলোনা। কিন্তু মেসি ঠিকই জ্বলে উঠেছেন। ২-২ ব্যবধানের ম্যাচে বার্সার দুই গোলই করেছেন তিনি। আর এই জোড়া গোলের সুবাদে টানা তৃতীয় বারের মতো লা লিগার সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার পিচিচি ট্রফিটা নিজের করে নিলেন মেসি।

মেসির আগে টানা তিনবার পিচিচি জিতেছিলেন হুগো সানচেজ। মেক্সিকান স্ট্রাইকার ১৯৮৫-৮৬, ১৯৮৬-৮৭ ও ১৯৮৭-৮৮ মৌসুমে এই কীর্তি গড়েন। এবার সাবেক অ্যাথলেটিক ও রিয়াল মাদ্রিদ ফরোয়ার্ড সানচেজের রেকর্ডে দ্বিতীয়বারের মতো ভাগ বসালেন মেসি।

২০১৬-১৭ (৩৪ গোল), ২০১৭-১৮ (৩৬ গোল), ২০১৮-১৯ (৩৬ গোল) মৌসুমে টানা তিনবার পিচিচি জিতলেন মেসি। এর আগেও ২০০৯-১০ (৩৪ গোল), ২০১১-১২ (৫০ গোল) ও ২০১২-১৩ (৪৬ গোল) এই কীর্তি গড়েন তিনি।

শুধু তাই নয়, একটি জায়গায় সানচেজকেও টপকে গেছেন কাতালান অধিনায়ক। চলতি মৌসুমে লা লিগায় ৩৪ ম্যাচে ৩৬ গোল ও ১৩টি অ্যাসিস্ট করেছেন মেসি। যেখানে সর্বোচ্চ গোলে দ্বিতীয় স্থানে থাকা লুইস সুয়ারেজ ও করিম বেনজেমার চেয়ে তার গোল ১৫টি বেশি। স্প্যানিশ লিগের ইতিহাসে এত বেশি ব্যবধানে আর কেউ পিচিচি ট্রফি জিতেনি।

১৯৮৬-৮৭ মৌসুমে ১৪ গোলের ব্যবধানে সেরা গোলদাতার এই পুরস্কার জেতেন সানচেজ। চলতি মৌসুমে লা লিগায় সুয়ারেজ ও বেনজেমা সমান ২১ গোল ও ৬ অ্যাসিস্ট নিয়ে আছেন গোলদাতাদের দ্বিতীয় স্থানে।

আর মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলে ৫০ গোলের দেখা পেয়েছেন মেসি। সঙ্গে লা লিগা ৬৬ বছরের একটি রেকর্ডেও ভাগ বসালেন তিনি। ক্যারিয়ারে ছয়টি পিচিচি ট্রফি জিতে বার্সা ফরোয়ার্ড ছুঁয়ে ফেললেন তেলমো জারাকে।

সাবেক অ্যাথলেটিক বিলবাও ফরোয়ার্ড ১৯৪৪-৪৫, ১৯৪৫-৪৬, ১৯৪৬-৪৭, ১৯৪৯-৫০, ১৯৫০-৫১ এবং ১৯৫২-৫৩ রেকর্ডটি গড়েছিলেন। আগামী মৌসুমে আরেকটি পিচিচি ট্রফি জিতলেই জারা এবং সানচেজের রাজত্ব কেড়ে নিবেন মেসি।

কেবল পিচিচি ট্রফি নয়, মেসির জন্য অপেক্ষা করছে ইউরোপের সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার ‘গোল্ডেন শু’ ট্রফিটাও। অবশ্য তার জন্য এক সপ্তাহ অপেক্ষা করতে হবে তাকে। ইউরোপের সেরা পাঁচ লিগের মধ্যে সর্বোচ্চ গোলদাতাদের তালিকাতে সবার শীর্ষে মেসি। তার নিকট প্রতিদ্বন্দ্বী হচ্ছেন পিএসজির ফরাসি ফরোয়ার্ড কিলিয়ান এমবাপ্পে।

ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে ৩২ গোল নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছেন এই ২০ বছর বয়সী তারকা। চলতি মৌসুমে ফরাসি জায়ান্টদের ম্যাচ বাকি আছে একটি। শনিবার (২৫ মে) স্তাদে রেইমসের বিপক্ষে খেলবে তারা। মেসিকে স্পর্শ করার জন্য সেই ম্যাচে চার গোল করতে হবে এমবাপ্পেকে।

লা লিগার ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোলদাতা মেসির (৪৫২ ম্যাচে ৪১৯ গোল) সামনে এখন ছয়টি গোল্ডেন শু জয়ের হাতছানি। এমনকি ছয়টি ব্যালন ডি’অর পুরস্কারের দৌড়েও সবার সামনে মেসি।

বাংলাদেশ সময়: ১৬১৬ ঘন্টা, মে ২০, ২০১৯
ইউবি/এমএমএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ফুটবল
নিম্নচাপের জেরে কলকাতায় বৃষ্টি, পড়বে কালীপূজায় প্রভাব
সংগীতশিল্পী মান্না দে’র প্রয়াণ
আমরা ভারতীয়দের হারাতে চাই: জামাল ভূঁইয়া 
১ম বর্ষের খাতা দেখছেন প্রভাষকের ৩য় বর্ষের শ্যালিকা!
১৪ দলে অস্তিত্ব সংকটে ওয়ার্কার্স পার্টি


জাবি প্রশাসন-আন্দোলনকারীদের পৃথক সংবাদ সম্মেলন
মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ মুকুট জয় করলেন শিলা
আলোচনা ফলপ্রসূ, ক্যাম্পে যাচ্ছেন ক্রিকেটাররা
রেডিসনে মুনমুন মুখার্জীর আবৃত্তি সন্ধ্যা বৃহস্পতিবার
রাজধানীতে ৪ দিনব্যাপী হেরিটেজ হ্যান্ডলুম ফেস্টিভ্যাল