ঢাকা, সোমবার, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭, ১০ আগস্ট ২০২০, ১৯ জিলহজ ১৪৪১

ক্রিকেট

প্রথম সেশনেই ৪ উইকেট নেই বাংলাদেশের

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯৩২ ঘণ্টা, মার্চ ১২, ২০১৯
প্রথম সেশনেই ৪ উইকেট নেই বাংলাদেশের

পঞ্চম দিনের প্রথম সেশনেই ৪ হারিয়ে বিপাকে পড়ে গেছে টাইগাররা। আগেরদিনের চারসহ মোট ৭ উইকেট হারিয়ে তাদের সংগ্রহ ১৮৯ রান। লিড পেতে এখনো ৩২ রান করতে হবে। ৫৫ রানে ব্যাট করছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তার সঙ্গী মোস্তাফিজুর রহমান  ব্যাট করছেন ৮ রান নিয়ে।

দিনের শুরুতে সৌম্য সরকারের উইকেট পতনের পর থেকে একের পর এক উইকেট হারিয়ে পথ হারায় বাংলাদেশের ইনিংস। এরপর একে একে আউট হন মোহাম্মদ মিঠুন, লিটন দাস ও তাইজুল ইসলাম।

দিনের খেলার শুরুর দিকেই আগেরদিনের সঙ্গী সৌম্যকে খোয়ানোর পরও বেশ স্বাচ্ছন্দ্যে খেলছিলেন মোহাম্মদ মিঠুন। কিন্তু ফিফটি থেকে মাত্র ৩ রান দূরত্বে থামলো তার লড়াকু ইনিংস। নেইল ওয়েগনারের শর্ট বলে স্কয়ারে উঠিয়ে মারেন মিঠুন, কিন্তু টাইমিংয়ের গড়বড় হওয়ায় ব্যাকওয়ার্ড স্কয়ার লেগে থাকা টিম সাউদির তালুবন্দি হয়। ১০৫ বলে ৪৭ রানের ইনিংসটি ৭ বাউন্ডারিতে সাজানো। তার বিদায়ের পর ওয়েগনারের দ্বিতীয় শিকার হয় ফেরেন লিটন দাস। তাইজুল ৬ বল খেলে রানের খাতা খোলার আগেই বিদায় নেন।

দিনের খেলা শুরু হওয়ার পাঁচ ওভার পরেই একবার রান আউটের হাত থেকে বেঁচে গিয়েছিলেন বাংলাদেশের সৌম্য সরকার। পরের ওভারে বেঁচে যান ক্যাচ আউটের হাত থেকে। কিন্তু দু’বার ‘জীবন’ পেয়েও টিকতে পারেননি এই বাঁহাতি। দুই ওভার পরেই কিউই ফাস্ট বোলার ট্রেন্ট বোল্টের শিকার হয়ে ড্রেসিং রুমের পথে হাঁটা দেন। দলীয় ১১২ রানে দিনের প্রথম ও ইনিংসের চতুর্থ উইকেট হারায় বাংলাদেশ।

ওয়েলিংটনে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের পঞ্চম দিনে (১২ মার্চ) ব্যাটিং করতে নেমে কিউই পেসে বিভ্রান্ত হতে দেখা যায় টাইগারদের। বোল্টদের বিদ্যুৎ গতি আর সুইংয়ের মিশেলে হাঁসফাঁস করতে থাকেন সৌম্য-মিঠুন। আর এই চাপের মধ্যে দু’বার লসিফ পাওয়া সৌম্য বোল্টের অফ স্ট্যাম্পের বাইরে টাইট লাইনের বল লাফিয়ে উঠলে ডিফেন্স করতে গিয়ে দু’পা হাওয়ায় ভাসিয়ে শট নেন, কিন্তু ততক্ষণে দেরি হয়ে গেছে। বল তার ব্যাট ছুঁয়ে ফার্স্ট স্লিপে থাকা রস টেইলরের হাতে জমা হয়। আউট হওয়ার আগে ৫টি বাউন্ডারিতে ২৮ রান করেন সৌম্য।

এর আগে দু’দিন বৃষ্টিতে ধুয়ে যাওয়ার পর তৃতীয়দিন শেষে কিউইদের চেয়ে ১৪১ রানে পিছিয়ে ছিল বাংলাদেশ। হাতে ছিল ৩ উইকেট। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। দলীয় ৪ রানেই ফেরেন আগের টানা তিন ইনিংস হাফসেঞ্চুরি করা তামিম ইকবাল। ব্যক্তিগত ১০ রানে ফেরেন পুরো সিরিজেই ব্যর্থ হওয়া মুমিনুল হক। অনেকটা সময় চেষ্টা করেও মাত্র ২৯ রানে ফিরে যান ওপেনার শাদমান। দিন শেষে ২৫ রানে মোহাম্মদ মিঠুন ও ১২ রানে সৌম্য সরকার অপরাজিত থাকেন।

২১১ রানেই টাইগারদের প্রথম ইনিংস গুটিয়ে যাওয়ার পর রস টেইলরের ডাবল সেঞ্চুরি ও হেনরি নিকোলসের টেস্ট ক্যারিয়ারের ৫ম সেঞ্চুরির ইনিংসে ভর করে ৪৩২ রানের পাহাড় গড়ে ইনিংস ডিক্লেয়ার করেন কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। হাতে ৬ উইকেট রেখেই ২২১ রানের লিড পেয়ে যায় স্বাগতিকরা।

বাংলাদেশ সময়: ০৫৩১ ঘণ্টা, মার্চ ১২, ২০১৯
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa