রোমাঞ্চকর ম্যাচে ব্রাদার্সকে হারালো চট্টগ্রাম আবাহনী

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

জয় পেয়েছে চট্টগ্রাম আবাহনী/ফাইল ফটো

ম্যাচে গোল হলো মোট ৫টি। ম্যাচের পাল্লা একবার এদিকে হেলে পড়ে তো একবার ওদিকে। এমন রোমাঞ্চ ছড়ানো ম্যাচে শেষ হাসি হাসলো চট্টগ্রাম আবাহনী। ব্রাদার্স ইউনিয়নকে ৩-২ গোলে হারিয়ে দিয়েছে চট্টগ্রামের দলটি।

শুক্রবার (০৮ ফেব্রুয়ারি) বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচের ১১ মিনিটে কৌশিক বড়ুয়ার কর্নার কিক বিপদমুক্ত করতে গিয়ে নিজেদের জালে বল জড়িয়ে দেন ব্রাদার্সের ডিফেন্ডার শফিকুল ইসলাম। ১-০ গোলে এগিয়ে যায় চট্টগ্রাম আবাহনী।

সমতায় ফিরতে বেশি সময় নেয়নি ব্রাদার্স। ৩৩ মিনিটে ব্রাজিলিয়ান লিমার হেডে আলতো ছোঁয়ায় গোল করে দলকে সমতায় ফেরান মানাফ রাব্বী।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই ফের এগিয়ে যায় চট্টগ্রাম আবাহনী। দানিয়েল আরমাহ’র লম্বা করে বাড়ানো বলে হেড করেন আওয়ালা মাগালান। সেখান থেকে বল চলে যায় গাম্বিয়ার ফুটবলার মোমেদুর পায়ে। নিখুঁত শটে গোল করেন এই ফরোয়ার্ড।

ব্রাদার্সের জালে তৃতীয় গোল করেন কৌশিক। এবার ব্রাদার্সের ডিফেন্সের ভুলে বল পেয়েই লক্ষ্যভেদ করেন তিনি। ৩-১ গোলে এগিয়ে যায় চট্টগ্রাম আবাহনী।

চট্টগ্রাম আবাহনীর একচেটিয়া আক্রমণের মাঝেই ব্যবধান কমিয়ে ফেলে ব্রাদার্স। ৬৪ মিনিটে ডি-বক্সের মধ্যে চট্টগ্রাম আবাহনীর মুফতা লাওয়ালের হাতে বল লাগলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। দুর্দান্ত শটে গোল করেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড লিমা। তবে বাকি সময়ে তাদের বেশ কিছু প্রচেষ্টা প্রতিহত হলে ৩-২ গোলের পরাজয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে ব্রাদার্স ইউনিয়ন।

এই জয়ে পাঁচ ম্যাচ শেষে দুই জয় আর দুই ড্র নিয়ে ৮ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে আছে চট্টগ্রাম আবাহনী। আর ৪ ম্যাচ খেলে মাত্র ১ জয় নিয়ে ৯ম স্থানে ব্রাদার্স।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৮, ২০১৯
এমএইচএম

ভাষাশহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে খুলনায় মানুষের ঢল
ভাষাশহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
চকবাজারে বহুতল ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৩০ ইউনিট
নড়াইলে লাখো প্রদ্বীপ প্রজ্জ্বলনের প্রস্তুতি সম্পন্ন
‘রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের পরিবেশ তৈরিতে ব্যর্থ মিয়ানমার’


মেহেরপুরে আইনজীবীদের জেলা জর্জের আদালত বর্জন
ঈশ্বরদীতে ১৪ তলা থেকে পড়ে ২ শ্রমিক আহত
ভারত-পাকিস্তান দ্বন্দ্ব মেটাতে মধ্যস্থতায় আগ্রহী ইউএন
নেত্রকোণায় ফাল্গুনের দেয়াল পত্রিকা উৎসব
যখন থেকে আলিয়ার আসল বন্ধু বাবা মহেশ ভাট