php glass

বিপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত শেখ জামাল

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

শেখ জামাল-মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র ম্যাচের একটি মুহূর্ত-ছবি: বাংলানিউজ

walton

গোপালগঞ্জ: গোপালগঞ্জে বিপিএল ফুটবলের উদ্বোধনী খেলায় মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রের কাছে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। মুক্তিযোদ্ধার আইভোরিকোস্টের ১০ নম্বর জাসির্ধারী ফরোয়ার্ড বাল্লো ফামুসা ৩টি গোল করে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন। আর এর মাধ্যমে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নিজেদের হোম ভেন্যু থেকে পূর্ণ পয়েন্ট আদায় করে মাঠ ছাড়ে। অন্যদিকে, পুরো খেলায় তেমন কোন আক্রমণ তৈরী করতে পারেনি শেখ জামাল।

খেলার প্রথমার্ধে ৪৪ মিনিটে মুক্তিযোদ্ধার আইভোরিকোস্টের রিক্রুট ১০ নম্বর জাসির্ধারী ফরোয়ার্ড বাল্লো ফামুসা ফ্রি-কিক থেকে হেড করলে বল বারপোস্টে লেগে শেখ জামালের জালে জড়ায়। খেলার দ্বিতীয়ার্ধের ২২ মিনিটে মধ্য মাঠ থেকে একক প্রচেষ্টায় বল টেনে নিয়ে বাল্লো ফামুসা প্রতিপক্ষের গোলরক্ষককে পরাস্ত করে দলের পক্ষে দ্বিতীয় গোল করেন। দ্বিতীয়ার্ধে ৪৪ মিনিটে মুক্তিযোদ্ধার ১১ নম্বর জার্সিধারী খেলোয়াড় মোহাম্মদ সোহেলের পাস থেকে বাল্লো ফামুসা তৃতীয় গোল করে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন।

খেলার প্রথমার্ধ থেকে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের খেলোয়াড়রা খেলার নিয়ন্ত্রণ নিজের দখলের রাখার চেষ্টা করেন। একের পর এক আক্রমণ করে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ৩ গোল আদায় করে নেয়। খেলায় মুক্তিযোদ্ধা সংসদ প্রথমার্ধে ১ গোল ও দ্বিতীয়ার্ধে ২ গোল আদায় করে নেয়। পক্ষান্তরে শেখ জামাল ধানমন্ডির আক্রমণে শুরু থেকেই ছন্দপতন ঘটে।

পুরোটা সময় অনেকটা অগোছালো খেলা খেলে শেখ জামাল। তাই অপেক্ষাকৃত কম শক্তির দল মুক্তিযোদ্ধার কাছে ৩ গোল হজম করে শেখ জামালকে মাঠ ছাড়তে হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৪ ঘণ্টা, জানুয়ারী ২৩, ২০১৯
এমএইচএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: বিপিএল ফুটবল
আবরারের নামে হলের নাম!
দিল্লিতে জেল খেটেছিলেন নোবেলজয়ী অভিজিৎ
ছেঁউড়িয়ায় বসেছে সাধুর হাট, সন্ধ্যায় আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন
হাইকোর্টে ওসি মোয়াজ্জেমের জামিন আবেদন: আদেশ ৩ নভেম্বর
সিরিয়ায় যুদ্ধবিরতি নিয়ে মার্কিন প্রস্তাবে তুরস্কের ‘না’


শিশু তুহিন-আলিফা হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন
কিমের ঘোড়াপ্রেম!
‘সামাজিক অবক্ষয়ের কারণে সবাই চরম আতঙ্কিত’
তেঁতুলিয়ায় ট্রাকের ধাক্কায় ১ জনের মৃত্যু
এমপিওভুক্তির দাবিতে দ্বিতীয় দিনের মতো আন্দোলনে শিক্ষকরা