নীলফামারীতে প্রিমিয়ার ফুটবল লীগ শুরু হচ্ছে বুধবার

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

শেখ কামাল স্টেডিয়াম

নীলফামারী: বসুন্ধরা কিংসের হোম ভেন্যু নীলফামারারী শেখ কামাল স্টেডিয়ামে বুধবার (২৩ জানুয়ারি) শুরু হতে যাচ্ছে প্রিমিয়ার ফুটবল লীগ। 

উদ্বোধনী খেলায় আবাহনীর বিপক্ষে লড়বে স্বাগতিক বসুন্ধরা কিংসের দল। লীগ আয়োজনে ইতোমধ্যে সব প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। এমন প্রস্তুতিতে সকালেও অনুশীলন করেছে স্বাগতিক দল বসুন্ধরা কিংস। 

অপরদিকে, আবাহনী মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) নীলফামারীতে পৌঁছে অনুশীলন করেছে রংপুর ক্যান্টনম্যান্ট মাঠে।

বুধবার বিকেল পৌনে ৩টায় স্টেডিয়ামে খেলার উদ্বোধন করবেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ হাসান রাসেল। 

এসময় উপস্থিত থাকবেন- বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি কাজী মোহাম্মদ সালাহউদ্দীন, বসুন্ধরা কিংসের সভাপতি ইমরুল হাসান, সাধারণ সম্পাদক মিনহাজুল ইসলাম, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরিন, সাধারণ সম্পাদক আরিফ হোসেন মুন।

শেখ কামাল স্টেডিয়ামের আন্তর্জাতিক ভেন্যুর অভিষেক হয় বাংলাদেশ জাতীয় দল ও শ্রীলঙ্কার প্রীতি ম্যাচের মধ্য দিয়ে। সে সময়ে দর্শকে পরিপূর্ণ ছিল স্টেডিয়াম। দর্শকের এমন পরিপূর্ণতায় প্রিমিয়ার লীগের প্রাক-মৌসুম প্রস্তুতি ম্যাচে মালদ্বীপের নিউ রেডিয়েন্টের বিপক্ষে খেলে দর্শক মাতিয়েছিল কিংসের কোচ অস্কার ব্রজোনের শিষ্যরা। সেবার কিংসের পক্ষে পায়ে পায়ে বলের জাদু দেখিয়ে দর্শক মাতিয়ে ছিলেন অস্কার ব্রজোনের শিষ্য ডেনিয়েন কলিনড্রেস। এবারো কলিনড্রেসকে দলে রেখেই সেই পারফরম্যান্স ধরে রাখতে নিরলস চেষ্টা অস্কার ব্রজোনের। 

স্বাগতিক ব্রজোনের দলকে টপকাতে চ্যালেঞ্জ চ্যাম্পিয়ন আবাহনীরও।

বসুন্ধরা কিংসের কোচ অস্কার ব্রজোন বলেন, আবাহনী একটি শক্তিশালী দল। তারা গতবারের লীগ চ্যাম্পিয়ন। আগামীকালের খেলা আমার জন্য একটি চ্যালেঞ্জ। আবাহনীর কোচ মারিও লিচিনিও লেমস একজন দক্ষ ব্যক্তি। আমাদের দু’জনের দলই শক্তিশালী। উভয় দলের খেলোয়াড়দের  মধ্যে চলবে কঠিন লড়াই। বসুন্ধরার হোম ভেন্যুতে আমরা মালদ্বীপের চ্যাম্পিয়ন ক্লাব নিউ রেডিয়েন্টকে হারিয়েছি। আশাকরি আবাহনীকেও হারাতে পারবো।
 
প্রিমিয়ার লীগের ১২টি ম্যাচের আয়োজনকে কেন্দ্র করে শেখ কামাল স্টেডিয়াম সেজেছে রঙ্গীন সাজে। প্রিমিয়ারের খেলায় দর্শক ঢলের অতীত ঐতিহ্য ধরে রাখতে চায় জেলা ক্রীড়া সংস্থা। এমন প্রত্যাশায় জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ বলেন, দর্শক ঢলের মধ্য দিয়ে অতীতের সব খেলা স্বার্থক হয়েছে। এবারো সেই সফলতা ধরে রাখতে চাই আমরা।
  
জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আরিফ হোসেন মুন বলেন, ইতোমধ্যে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। টিকিট বিক্রি চলছে শহরের রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক, ফার্মার্স ব্যাংক এবং পূবালী ব্যাংকের শাখায়। 

এছাড়া জেলা সদরে স্থাপন করা হয়েছে একটি বুথ। সৈয়দপুর, কিশোরগঞ্জ, ডিমলায় স্থাপন করা হয়েছে একটি করে বুথ। 

এদিকে, প্রচার মাইকের সঙ্গে টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে। টিকিটের হার সাধারণ ৩০ টাকা, চেয়ার ১৫০ টাকা এবং ভিআইপি ৫০০ টাকা। স্টেডিয়ামের ধারণ ক্ষমতা ২০ হাজার।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২২, ২০১৯
আরএ

ভাষাশহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে খুলনায় মানুষের ঢল
ভাষাশহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
চকবাজারে বহুতল ভবনে ভয়াবহ আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৩০ ইউনিট
নড়াইলে লাখো প্রদ্বীপ প্রজ্জ্বলনের প্রস্তুতি সম্পন্ন
‘রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের পরিবেশ তৈরিতে ব্যর্থ মিয়ানমার’


মেহেরপুরে আইনজীবীদের জেলা জর্জের আদালত বর্জন
ঈশ্বরদীতে ১৪ তলা থেকে পড়ে ২ শ্রমিক আহত
ভারত-পাকিস্তান দ্বন্দ্ব মেটাতে মধ্যস্থতায় আগ্রহী ইউএন
নেত্রকোণায় ফাল্গুনের দেয়াল পত্রিকা উৎসব
যখন থেকে আলিয়ার আসল বন্ধু বাবা মহেশ ভাট