php glass

লিগ জমিয়ে তুললো সিটিজেনরা

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সিটির জয়। ছবি: সংগৃহীত

walton

খুব ভালো পরিসংখ্যান সামনে নিয়ে মাঠে নামেনি ম্যানচেস্টার সিটি। তবে লিভারপুলের অবস্থা ততটা খারাপ ছিলো না। ম্যাচে হারলেই শিরোপার দৌড়ে লিভারপুলের থেকে অনেকটা পিছিয়ে পড়বে এটা জেনেই মাঠে নামে ম্যানচেস্টার সিটি। কিন্তু ম্যাচ শেষে সব সমীকরনই পাল্টে দেয় সিটিজেনরা। 

ঘরের মাঠে ইয়ুর্গেন ক্লপের লিভারপুলকে প্রিমিয়ার লিগে এবারের মৌসুমে প্রথম হার উপহার দেয় স্বাগতিক সিটিজেনরা। আগুয়েরো ও সানের গোলে ২-১ ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে সিটি।

ম্যাচের শুরু থেকেই দুই দল আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে ব্যস্ত হয়ে পড়ে। লিভারপুলের রক্ষনভাগে হানা দিয়েতেও সুযোগ তৈরি করতে পারেনি সিটি। আর সেই সুযোগেই ম্যাচের ১৭ মিনিটে সহজ সুযোগ পায় লিভারপুল। কিন্তু তাতেও লাভ হয়নি কিছুই। সালাহর বাড়ানোর ক্রসে ডিবক্সের ভেতর এডারসনকে একা পেয়েও গোলবারে বল লাগিয়ে বসেন সাদিও মানে। ফিরতি বলে ক্লিয়ার করতে গিয়ে সিটি ডিফেন্ডার জন স্টোনসের শট এডারসনের হাতে লেগে গোলমুখ থেকে ক্লিয়ার হয়।

পরে গোললাইন টেকনোলজিতে দেখা যায়, বলের ইঞ্চি পরিমাণ গোল লাইনে ছিল। সুযোগ হারায় সিটিও। তবে প্রথমার্ধের শেষ দিকে আগুয়েরো ডানপাশ থেকে বার্নার্দো সিলভার বাড়ানো বল পেয়ে বাঁ পায়ের বুলেট গতির এক শটে দুর্দান্ত এক গোল করে সিটিকে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেন। এই গোলের মাধ্যমে লিভারপুলের বিপক্ষে ঘরের মাঠে ৭ ম্যাচের ৭টিতেই গোল করার অনন্য নজির স্থাপন করেন এই আর্জেন্টাইন।

বিরতি থেকে ফিরে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে লিভারপুল। ৫৮ মিনিটে বড় সুযোগ হারালেও এর ঠিক ৬ মিনিট পরই সমতায় ফেরে লিভারপুল। রাইটব্যাক আলেক্সান্ডার আর্নল্ড এবং লেফটব্যাক রবার্টসনের দৃঢ়তায় অলরেডদের সমতায় ফেরান ফিরমিনো।

তবে ৭২ মিনিটেই আবার এগিয়ে যায় সিটি। আর এই গোলের মাধ্যমে ২০১৮ সালের এপ্রিল মাসের পর প্রথমবারের মতো প্রিমিয়ার লিগ ম্যাচে ২ গোল হজম করলো ইয়ুর্গেন ক্লপের দল।

পরে একাধিকবার সুযোগ পেয়েও কোনো দলই আর গোল করতে না পারায় ২-১ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে সিটি। জমে উঠলো লিগ।

বাংলাদেশ সময়: ০৮৫২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৪, ২০১৯
এমকেএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ফুটবল ম্যানচেস্টার সিটি
চাকরি হারাচ্ছেন রবি শাস্ত্রী!
শৈলকুপায় বজ্রপাতে নিহত ২
সাদার্নে ব্যবসায় ও সামাজিক উন্নয়ন শীর্ষক সেমিনার
উলিপুরে নৌকা ডুবে ৪ শিশুসহ ৫ জনের মৃত্যু
১১ কোম্পানির দুধে সীসা, হাইকোর্টে খাদ্য কর্তৃপক্ষ


মেগাপ্রকল্পের জন্য বিশেষ সেল গঠনের দাবি
‘পল্লীনিবাস’ই এরশাদের শেষ ঠিকানা
৭ বছরে ফেনী পৌরসভার বিদ্যুৎ বিল বেড়েছে সাতগুণ
দিনাজপুর শহর রক্ষা বাঁধে ফাটল, শহরে ঢুকছে পানি
আউটার রিং রোড ওয়াকওয়ে ধসের ঘটনায় তদন্ত কমিটি