ফিল হিউজ: ৬৩ নট আউট

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ফিলিপ হিউজ-ছবি: সংগৃহীত

অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় দলের অন্যতম প্রতিভাবান ক্রিকেটার ছিলেন ফিলিপ হিউজ। কিন্তু এই তরুণ প্রতিভার জীবন প্রদীপ থেমে যায় মাঝপথেই। ২০১৪ সালের এই দিনে (২৭ নভেম্বর) সিডনিতে শিল্ড ম্যাচে মাথায় আঘাত পেয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি।

অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ক্রিকেট শেফিল্ড শিল্ড ম্যাচে অজি ফাস্ট বোলার শন অ্যাবটের বাউন্সারে পুল শট খেলতে গিয়ে বল হেলমেটের নিচে মাথার স্পর্শকাতর অংশে লাগলে জ্ঞান হারান ব্যাটসম্যান হিউজ। সঙ্গে সঙ্গে তাকে সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ড থেকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তার অস্ত্রোপাচারও করা হয়, কিন্তু তার জ্ঞান আর ফেরেনি। বলের ওই আঘাত শেষ পর্যন্ত তার জীবন কেঁড়ে নেয়।

এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনাকে স্মরণ করতে তার শেষ ম্যাচের স্কোর (৬৩ নট আউট) চিহ্নিত করে রাখে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)। ওই সময় সিএ প্রধান জেমস সাদারলঅ্যান্ড এই সিদ্ধান্তের কারণ জানাতে বলেন, ‘এটা হয়তো মামুলি মনে হতে পারে, কিন্তু এটা সম্মানার্থে খুব গুরুত্বপূর্ণ। ফিলিপ সারা জীবন ৬৩ রানে অপরাজিত থাকবে।’

শন অ্যাবটের বাউন্সারের আঘাতে রক্তাক্ত হিউজ সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে জ্ঞান হারান৩ ডিসেম্বর হিউজের শেষকৃত্যে ওই সময় সিডনি শহরে উপস্থিত প্রায় সকল ক্রিকেট পরিবার হাজির হয়েছিল। এমনকি সেসময়ের অজি প্রধানমন্ত্রী টনি অ্যাবোটও উপস্থিত ছিলেন শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে।

ঠিক ওই সময় চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে অস্ট্রেলিয়ায় ছিল ভারতীয় ক্রিকেট দল। ফলে হিউজের শেষকৃত্যে উপস্থিত হয়েছিলেন বিরাট কোহলি, সেসময়ের ভারতীয় ক্রিকেট দলের টিম ডিরেক্টর রবি শাস্ত্রী, কোহলিদের তৎকালীন কোচ ডানকান ফ্লেচার। এমনকি হিউজের মৃত্যু শোক কাটিয়ে উঠতে অ্যাডিলেড টেস্ট পাঁচদিন পিছিয়ে দেওয়া হয়।

হিউজের চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সারা পৃথিবীর ক্রিকেটাররা তাকে স্মরণ করছেন। হিউজের কাছের বন্ধু ও বিশ্বকাপজয়ী সাবেক অজি অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক টুইটারে হিউজের সঙ্গে নিজের একটি ছবি পোস্ট করেছেন। পোস্টে ব্যবহৃত ছবিটি অনেকের নজর কেড়েছে। কারণ, ছবির উপর ও নিচের অংশের রং শোকের প্রতীক কালো। আর নিচের অংশে হিউজের সঙ্গে তার হাস্যোজ্জ্বল ছবি। ক্যাপশনে লেখা-‘আবার তোমার সঙ্গে দেখা হবে’।

প্রিয় বন্ধু হিউজের স্মরণসভায় কাঁদছেন মাইকেল ক্লার্কবন্ধু হিউজকে স্মরণ করেছেন সাময়িক নিষিদ্ধ সাবেক অজি অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ ও সাবেক সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার, বর্তমান টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ, সাবেক কোচ ড্যারেন লেহম্যান। এছাড়া তাকে স্মরণ করে টুইটারে পোস্ট করেছে আইসিসি, সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ড আর যে দলের হয়ে খেলার সময় তার মৃত্যু হয় সেই ওয়েস্ট এন্ড রেডব্যাকস।

নিউ সাউথ ওয়েলসে জন্ম নেওয়া হিউজ অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ২৬টি টেস্ট আর ২৫টি ওয়ানডে ম্যাচে মাঠে নেমেছিলেন। ব্যাটিং স্টাইল বাঁহাতি হলেও তাকে সবাই ‘ছোট ডন ব্র্যাডম্যান’ বলে ডাকতো। অজি ক্রিকেটে যেখানে কম বয়সে জাতীয় দলে অভিষেক প্রায় অসম্ভব ছিল, সেখানে মাত্র ২১ বছর বয়সে টেস্ট সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে অনন্য নজির স্থাপন করেছিলেন তিনি। তার ওই সেঞ্চুরি আজও অস্ট্রেলিয়ার হয়ে সবচেয়ে কম বয়সে টেস্ট সেঞ্চুরির রেকর্ড হয়ে আছে।

দারুণ প্রতিভাবান ক্রিকেটার ছিলেন হিউজঅজি ক্রিকেটে তুমূল প্রতিযোগিতার মাঝে দল থেকে একবার বাদ পড়া মানে সে অনেক ঝক্কি। কিন্তু সেসময়ের অজি অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্কের ইনজুরি হিউজের দলে ফেরার রাস্তা পরিষ্কার করে দেয়। এই উপলক্ষে প্রস্তুতিও নিচ্ছিলেন দারুণ। কিন্তু নিজের ২৬তম জন্মদিনের মাত্র তিনদিন আগেই দুনিয়া থেকে তাকে তুলে নেন ভাগ্য বিধাতা। ক্রিকেট মাঠে সেদিন ৬৩ রানে অপরাজিত থাকা হিউজ জীবনের ইনিংসে অপরাজিত থাকতে পারেননি।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৭, ২০১৮
এমএইচএম/এমএমএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ক্রিকেট
মেসির হ্যাটট্রিকে বার্সার জয়
ডিজিটাল কেওয়াইসি চালু করলো নগদ
বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে দুই ডাকটিকিট
চকবাজারে ফের আগুন আতঙ্ক, ছোটাছুটিতে আহত ৭
চকবাজার ট্র্যাজেডি: কারণ অনুসন্ধানে আইইবি’র কমিটি


‘সংস্কৃতিচর্চা জাতিকে অশুভ শক্তি থেকে বিরত রাখে’ 
শেষ ছুটির দিনে প্রাণবন্ত বইমেলা
উত্তরায় বাসের ধাক্কায় কিশোরের মৃত্যু
চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সভাপতি আব্বাস, সম্পাদক ফরিদ
‘ঢাকাকে সুন্দর-আধুনিক শহরে পরিণত করবো’