সেরা দলে পুরোপুরি আশাবাদী নান্নু

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: ৬-১৫ ডিসেম্বর পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠেয় ইমার্জিং এশিয়া কাপে দলের হাই পারফরম্যান্স নিয়ে টাইগার প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নুর প্রত্যাশার পারদ বেশ ওপরে। এর প্রথম কারণ খেলোয়াড়দের সক্ষমতা। অর্থাৎ টুর্নামেন্টের জন্য যাদের নির্বাচন করা হয়েছে তারা নুন্যতম শেষ চারের রেসে টিকে থাকতে যথেষ্ট পারঙ্গম। 

আর দ্বিতীয় কারণ ভেন্যু হিসেবে করাচি থাকায়। গ্রুপ পর্বে বাংলাদেশের তিনটি ম্যাচই করাচির ফ্ল্যাট উইকেটে গড়াবে। যা আশাবাদী করছে। 

টুর্নামেন্ট সামনে রেখে নির্বাচিত ১৫ সদস্যের দলের সিংহভাগই নেয়া হয়েছে যারা অনূর্ধ্ব-১৯ পার করে অনূর্ধ্ব-২৩এ পড়েছেন। আর বাকি চারজন ২৩ ঊর্ধো থেকে নির্বাচন করা হয়েছে। এই দুইয়ের সমন্বয়ে ব্যাটিং, পেস বোলিং ও স্পিন বোলিংয়ের যে কম্বিনেশন দাঁড়িয়েছে তা করাচির উইকেট থেকে যথেষ্টই সুবিধা আদায় করে নিতে পারবেন বলেও বিশ্বাস নান্নুর। তাছাড়া আসরপূর্ব অনুশীলনও অনেকটা সাহায্য করবে। রোববার (২৫ নভেম্বর) মিরপুরে সংবাদ মাধ্যমকে তিনি একথা জানান। 

নান্নু বলেন, ‘আমরা পুরোপুরি আশাবাদী যে ভালো করব। কারণ আমাদের ব্যাটিং, বোলিং, ও কিছু নেটের সুযোগ দিয়েছি এখানে। এছাড়া ইয়াং প্লেয়াররাও ভালো একটা প্ল্যাটফর্ম পাচ্ছে। আমার মনে হয় এই প্রতিযোগিতায় আমাদের দল ভাল করবে যেহেতু পাকিস্তানে অনেক দিন পরে খেলতে যাচ্ছে। করাচির উইকেটটা একটু ফ্ল্যাট হয়। তাই আমার বিশ্বাস আমাদের ব্যাটসম্যান, পেস বোলার ও স্পিন কম্বিনেশনটা ভাল হয়েছে।’

বিসিএল চলছে ও জাতীয় দলের খেলা চলছে। এই মুহুর্তে এই দলটা করার ক্ষেত্রে কতটুকু চ্যালেঞ্জ নিতে হয়েছে? সংবাদ মাধ্যমের করা এমন প্রশ্নে নান্নু বলেন, ‘এটা কঠিন।কারণ ঘরোয়া ক্রিকেটে আমাদের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট চলছে। এখান থেকে প্লেয়ার বের করা, তারপরেও বয়সের ব্যাপারটা আছে। কারণ অনূর্ধ্ব-২৩ এমন একটা জায়গা এখানে ভারসাম্য আনাটা খুব কঠিন। সেই হিসেবে যেহেতু করতেই হচ্ছে আন্ডার ১৯ থেকে যারা ক্রস করে গিয়েছে তারা আছে। আবার একটা সুবিধা আছে চারজন প্লেয়ার যারা ২৩ এর ওপরে তাদের আমরা খেলাতে পারবো। মোটামুটি ভাল একটা ব্যালেন্স দলই হয়েছে। আশা করি ভাল যাবে।’

‘মোটামুটি একটা ভাল সাইড দাঁড় করিয়েছি যেহেতু এই টুর্নামেন্টটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। কারণ কিছু তরুণ প্লেয়ার সুযোগ পাবে যেটা ওদের জন্য অনেক বড় প্ল্যাটফর্ম। ভবিষ্যতে যদি কিছু খেলোয়াড় দেখার থাকে আমরা এই টুর্নামেন্ট দেখবো। আশা করি একটা চ্যালেঞ্জিং টুর্নামেন্ট হবে।’

এই টুর্নামেন্টের ‘বি’ গ্রুপে থাকা বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ; পাকিস্তান, হংকং, ও আরব আমিরাত। ৬ ডিসেম্বর করাচিতে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আরব আমিরাতকে মোকাবেলা করবে বাংলাদেশ। একই ভেন্যুতে ৭ ডিসেম্বর প্রতিপক্ষ হংকং। আর ৯ ডিসেম্বর গ্রুপ পর্বের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হবে স্বাগতিক পাকিস্তান।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৫, ২০১৮ 
এইচএল/এমকেএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ক্রিকেট
ভাষার বইয়ের প্রকাশ কম, তা থেকেই জানতে হবে ইতিহাস
নারায়ণগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি আটক
একুশের প্রথম প্রহরে সালাম নগরে বিনম্র শ্রদ্ধা
চিকিৎসা দেওয়া-নেওয়া কোনোটিই হলো না দুই বন্ধুর
যদি একটু মাংসের ফোঁটাও থাকে, আমার বাবারে এনে দেন


চকবাজারের অগ্নিকাণ্ডে বিএনপিসহ বিভিন্ন দলের শোক
বাংলা যায়নি নিভে | আবু আফজাল সালেহ
মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা, শিক্ষক আটক
স্বপ্ন পুড়লো ঢাবি ছাত্রের, বাবাকে খুঁজছে জমজ সন্তান
বাগেরহাট জাদুঘরে শতাধিক প্রত্নসামগ্রী হস্তান্তর