ভক্তকে ভারত ছাড়তে বলে বিসিসিআইয়ের তোপের মুখে কোহলি

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বিরাট কোহলি- ছবি: সংগৃহীত

এক ভক্তের সমালোচনামূলক টুইটের জবাবে তাকে ‘ভারত ছেড়ে যাও’ বলে বেশ চাপে পড়ে গেছেন ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে তাকে রীতিমত ধুয়ে দিচ্ছেন সমর্থকরা। এদিকে সবশেষ এই ইস্যুতে তার দিকে তোপ দাগিয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) কোষাধ্যক্ষ অনিরুদ্ধ চৌধুরী। এমনকি কোহলিকে বিখ্যাত ব্র্যান্ড ‘পুমা’র সঙ্গে চুক্তি নিয়েও খোঁচা দিয়েছেন তিনি।

ঘটনাটা হচ্ছে, জন্মদিনে নিজের নামে অ্যাপ লঞ্চ করেছিলেন ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট বিরাট। উদ্দেশ্য ছিল ভক্তদের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ স্থাপন। সব ঠিকই চলছিল। কিন্তু এক সমালোচক ভক্ত এক টুইটে বলে বসলেন, ‘কোহলি ওভাররেটেড ব্যাটসম্যান। তার ব্যাটিংয়ে আমি বিশেষ কিছু দেখি না। তার চেয়ে বরং অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের ব্যাটিং বেশি ভালো লাগে।' 

কোথাকার কোন ভক্ত, তার এত সাহস যে বিশ্বের সেরা ব্যাটসম্যানকে এভাবে কটাক্ষ করে! কথাটা কোহলি হজম করতে পারেন নি। হয়তো সবসময় ‘বিশ্বসেরা’ উপাধি শুনে অভ্যস্ত হওয়ায় তার সহ্য হয়নি। ফলে তিনি পাল্টা জবাব দিয়ে বসেন। কিন্তু তার সেই জবাবটাই সব গোলমাল পাকিয়ে দিয়েছে। সেই ভক্তের টুইটের জবাবে কোহলি লিখেছেন, ‘আমার মনে আপনার ভারত ছেড়ে চলে যাওয়া উচিত। আপনি এই দেশে বাস করে অন্য দেশকে ভালোবাসবেন! আপনি আমাকে পছন্দ নাও করতে পারেন। তাতে কোনো আপত্তি নেই। কিন্তু আমার মনে হয় আপনার এই দেশ থেকে বেরিয়ে অন্য কোথাও গিয়ে থাকা উচিত। আপনি সবার আগে নিজের অগ্রাধিকার ঠিক করুন।'

কোহলির অমন চাঁছাছোলা মন্তব্য হজম করতে পারেননি অনেকেই। আর সেই সংখ্যা বাড়ছে। অনেকে বলছেন, কোনও নাগরিককে দেশ ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়ার অধিকার বিরাটের নেই। আর অনেকে তাকে সরাসরি আক্রমণ করে লিখেছেন, আপনি তো নিজে রজার ফেদেরারের ফ্যান। তাহলে আপনারও তো দেশ ছেড়ে যাওয়া উচিত। আবার ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে একবার কোহলি তার প্রিয় ব্যাটসম্যান হিসেবে সাবেক প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান হার্শেল গিবসের নাম বলেছিলেন। সেই ভিডিও শেয়ার করাও অনেকে তাকে দেশ ছেড়ে যেতে বলছেন।

এদিকে কোহলির অমন আলটপকা মন্তব্য নিয়ে মুখ খুলেছেন বিসিসিআইয়ের কোষাধ্যক্ষ অনিরুদ্ধ চৌধুরী। টাইমস অব ইন্ডিয়াকে তিনি বলেছেন, ‘বিসিসিআইয়ে আমরা ক্রিকেটভক্তদের মুল্যায়ন করি এবং তাদের তাদের ভাবনা-চিন্তার সম্মান করি। আমি নিজে সুনিল গাভাস্কারের ব্যাটিং দেখতে যেমন পছন্দ করতাম তেমনি আমি গর্ডন গ্রিনিজ, ডেসমন্ড হেইন্স এবং ভিভ রিচার্ডের ব্যাটিংও পছন্দ করতাম। আমি শচীন টেন্ডুলকার, বীরেন্দ্র শেবাগ, সৌরভ গাঙ্গুলী, ভিভিএস লক্ষণ, রাহুল দ্রাবিড়ের ব্যাটিং দেখে যতটা আনন্দ পেতাম, ততটাই আনন্দ পেতাম মার্ক ওয়াহ, ব্রায়ান লারা এবং অন্যদের ব্যাটিং দেখে।'

‘শেন ওয়ার্নে র স্পিন দেখে সবচেয়ে বেশি চোখের শান্তি পেতাম আবার অনিল কুম্বলে যখন বল করতো, অনেক উত্তেজনায় থাকতাম। ফর্মে থাকা কপিল দেব ছিল চোখের জন্য তৃপ্তিদায়ক, কিন্তু রিচার্ড হ্যাডলি, ইয়ান বোথাম এবং ইমরান খানদের বেলাতেও তাই। আমি মনে করি, ভৌগলিক ও রাজনৈতিক সীমারেখার ভাবনা ছাড়াই এই যে ক্রিকেটের সেরাদের শ্রদ্ধা করা এটাই তো ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় সৌন্দর্য।'

এরপরই কোহলিকে বিসিসিআইয়ের সঙ্গে তার চুক্তির ক্ষতি সাধনের কথা মনে করিয়ে দিয়ে অনিরুদ্ধ বলেন, ‘বিরাটকে মনে রাখতে হবে যদি সমর্থকরা অন্য দেশে চলে যায় তাহলে পুমার মতো ব্র্যান্ড তার সঙ্গে ১০০ কোটি রুপির চুক্তি করবে না। সেজন্য বিসিসিআইয়ের আর্থিক ক্ষতি হবে আর খেলোয়াড়দের বেতন-ভাতাতেও টানাটানি দেখা দিবে। সে যদি তার চুক্তিটা একবার ভালো করে দেখে তাহলে সে নিজেই খুঁজে পাবে যে সে চুক্তির বরখেলাপ করেছে কি না।'

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ০৮, ২০১৮
এমএইচএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ক্রিকেট বিরাট কোহলি
উরুগুয়েকে ১-০ গোলে হারালো ব্রাজিল
প্রেস দিবস উপলক্ষে আগরতলায় আলোচনা সভা
অবরুদ্ধ সময়ের কবিতায় মানবতার সুর
রাঙ্গাবালীতে পোকা মারার ট্যাবলেট খেয়ে ২ শিশুর মৃত্যু
রাঙ্গাবালীতে পোকা মারার ট্যাবলেট খেয়ে ২ শিশুর মৃত্যু
বরিশালে রান্না বিষয়ক কর্মশালা
আলোর উৎসবে হাজার হৃদয় রাঙিয়ে দিলেন শংকর-এহসান-লয়
বাম দলগুলোর নির্বাচনী প্রস্তুতি
স্বজনদের কাছে ফিরলো পুলিশ হেফাজতে থাকা শিশু আবির
দ্বিতীয়দিন রঘু দীক্ষিত-মমতাজ'র পরিবেশনায় মাতোয়ারা দর্শক