কী কী ফাঁস করলো ‘ফুটবল লিক’?

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ফাঁস হওয়া তথ্যের কারণে নেইমার-এমবাপ্পেকে হারাতে পারে পিএসজি-ছবি: সংগৃহীত

ইউরোপীয় ফুটবলের বহু গোপন তথ্য ফাঁস করে দিয়েছে ‘ফুটবল লিক’। এই নিয়ে তোলপাড় চলছে পুরো মহাদেশজুড়ে। নড়েচড়ে বসেছে ইউরোপীয় ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা উয়েফাও। ইস্যুটি নিয়ে মুখ খুলতে হচ্ছে সংস্থাটিকেও। কিন্তু কি আছে সেই ফাঁস হওয়া তথ্যে যা নিয়ে এত হইচই?

ফুটবল লিকের ফাঁস করা তথ্যে বেরিয়ে এসেছে, ফিফার ‘ফিনান্সিয়াল ফেয়ার প্লে’-এর নিয়ম ভেঙে ম্যানচেস্টার সিটি ও প্যারিস সেইন্ট জার্মেইকে বাড়তি সুবিধা দিয়েছিলেন ফিফার বর্তমান প্রেসিডেন্ট ও সাবেক উয়েফা মহাসচিব জিয়ান্নি ইনফান্তিনো।

যেসব তথ্য ফাঁস হয়েছে:
ক্লাব ফুটবলের বহু রথী-মহারথীর মধ্যে যারা ট্যাক্স ফাঁকি দিয়েছেন তাদের তথ্য ফাঁস করে দিয়েছে ‘ফুটবল লিক’। এদের মধ্যে আছেন-ম্যানচেস্টা ইউনাইটেড কোচ হোসে মরিনহো, জুভেন্টাস তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। আরও আছেন-অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া, জ্যাকসন মার্টিনেস, দানি কারভালহো, রাদামেল ফ্যালকাও,  কোয়েন্তেরো, পেপে এবং হামেস রদ্রিগেজ।

আরও যারা ফাঁস হওয়া তথ্যে ধরা খেলেন তারা হলেন-লুকা মদ্রিচ, করিম বেনজেমা, ভারমেলন, মেসুত ওজিল, গঞ্জালো হিগুয়েন, নেইমার। এছাড়া আরও অনেকেই আছেন এই তালিকায়।

তবে সবচেয়ে বেশি আলোচনায় এসেছে পিএসজি ও ম্যানচেস্টার সিটির সঙ্গে ইনফান্তিনোর গোপন চুক্তির কথা।

কাতারের সরকারের কাছ থেকে অবৈধভাবে ১৮০০ মিলিয়ন ইউরো পেয়েছে পিএসজি, যা চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে তাদের নির্বাসনে যাওয়ার জন্য যথেষ্ট। এখন এই তথ্য ফাঁস হয়ে যাওয়ায় আইনি সমস্যা নিরসনে ব্রাজিলীয় তারকা নেইমার ও ফরাসি তারকা কিলিয়ান এমবাপ্পেকে বাধ্যতামূলকভাবে ছেড়ে দিতে হতে পারে প্যারিসের ক্লাবটিকে।

এর আগে ২০১২ সালে তৎকালীন উয়েফা প্রধান মিশেল প্লাতিনি পিএসজির মালিক নাসের আল-খেলাইফির সঙ্গে এক চুক্তি স্বাক্ষর করেছিলেন। তখনকার মহাসচিব ইনফান্তিনোর সহযোগিতায় সেই চুক্তির ফাঁকফোকর খুঁজে বের করে প্রায় ৬০ মিলিয়ন ইউরো জরিমানা থেকে বেঁচে যায় পিএসজি। ২০১৩/১৪ মৌসুমে কাতারের পর্যটন কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে অবৈধ অর্থ গ্রহণ করে ফরাসি জায়ান্টরা। বাড়তি সুবিধা নেয় ইংলিশ জায়ান্ট ম্যানচেস্টার সিটিও।

এছাড়া, ২০১৭ সালে কোনো কারণ না দেখিয়েই পিএসজির ওপর চলা দুর্নীতির তদন্ত বন্ধ করে দেয় উয়েফা। ফাঁস করা তথ্যে দাবি করা হয়েছে, এসবকিছুই রাজনৈতিক কারণে করা হয়েছে। উয়েফার তদন্তে নেইমার ও কিলিয়ান এমবাপ্পের ট্রান্সফার প্রক্রিয়া বাদ দেওয়া হয়। এখন তদন্ত ফের শুরু করতে চাইছে সংস্থাটি।

ফাঁস হওয়া তথ্যের ফল কি হতে পারে?
‘ফিন্যান্সিয়াল ফেয়ার প্লে’ ভঙ্গ করায় চ্যাম্পিয়নস লিগে থেকে বাদ পড়তে পারে পিএসজি ও ম্যানচেস্টার সিটি। এই তালিকায় আরও আছে রুবিন কাজান, মালাগা ও এসি মিলান।

ফাঁস হওয়া তথ্যের জেরে নেইমার ও এমবাপ্পেকে হারাতে পারে পিএসজি। তবে যদি নিজেদের নির্দোষ প্রমাণ করতে পারে ফ্রান্সের ক্লাবটি, তাহলে এমন ভয়াবহ পরিণতি থেকে মুক্তি পেতে পারে কাতারি মালিকানাধীন ক্লাবটি।

উয়েফার ফিন্যান্সিয়াল ফেয়ার প্লে (এফএফপি)-এর নিয়মের বাইরে যেতে পারবে না কোনো ক্লাবই, তথ্য ফাঁসের জেরে মন্তব্য করতে গিয়ে এমন কথা বললেন যার বিরুদ্ধে অভিযোগের তীর উঠেছে সেই ইনফান্তিনোর ডেপুটি অ্যালেক্সান্ডার সেফেরিন।

উয়েফা তাদের নিয়মে কিছু পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে। নতুন নিয়মে কোনো দেশ ফুটবল দলে অর্থ ঢালতে পারবে না। খেলোয়াড়দের আর্থিক নিশ্চয়তার ক্ষেত্রেও আনা হচ্ছে পরিবর্তন। এখন থেকে খেলোয়াড়দের ক্লাবের নিজস্ব অর্থ থেকে বেতন-ভাতা দিতে হবে, তেল-গ্যাস বা নির্মাণ ব্যবসা থেকে নয়।

বাদ যাচ্ছে চ্যাম্পিয়নস লিগ, আসছে ইউরোপিয়ান সুপার লিগ
চ্যাম্পিয়নস লিগ বন্ধ হয়ে যাওয়ার তথ্যও ফাঁস হয়েছে। চ্যাম্পিয়নস লিগের স্থান দখল করতে যাচ্ছে ইউরোপিয়ান সুপার লিগ। এর কারণ মূলত ফাঁস হওয়া ওই নথিগুলো যা প্রমাণ করে ম্যানচেস্টার সিটি ও পিএসজি বাড়তি সুবিধা নিয়েছে।

ফাঁস হওয়া নথি দেখে বাকি বড় ক্লাবগুলো নাখোশ। তারা চায় সব ক্লাব সমান সুযোগ পাক। অর্থাৎ, পিএসজি-ম্যানসিটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হোক। যদি উয়েফা দ্রুত কোনো ব্যবস্থা না নেয় তাহলে এই বিকল্প রাস্তায় হাঁটতে চলেছে রিয়াল-বার্সার মতো ক্লাবগুলো।

বাংলাদেশ সময়: ১৫১৪ ঘণ্টা, নভেম্বর ০৩, ২০১৮
এমএইচএম/এমএমএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ফুটবল
শ্যামলীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদকবিক্রেতা নিহত
সাব্বির-সাইফউদ্দিনের ব্যাটে শতক পার হলো বাংলাদেশ
টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা মাদক কারবারি নিহত
লক্ষ্মীপুরে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন
নগরে চিকিৎসক সম্মেলন বৃহস্পতিবার


নড়াইলে ৫ মাদকবিক্রেতাসহ গ্রেফতার ২৮
শীতের কুয়াশায় ঢাকা পড়েছে বসন্তের সকাল
‘বন্দুকযুদ্ধে’ ছিনতাইকারী গুলিবিদ্ধ, অস্ত্র উদ্ধার
বড় লক্ষ্যে শুরুতেই নেই বাংলাদেশের চার উইকেট
ভিপি-জিএসদের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে ডাকসু ভবন