php glass

হৃদয় জয় করে দেশে ফিরলেন মাশরাফিরা

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বিমানবন্দরে দলপতি মাশরাফি বিন মুর্তজা ও তার দল, ছবি: শোয়েব মিথুন

walton

ঢাকা: এশিয়া কাপের ফাইনালে পরাশক্তি ভারত এবং অঘোষিত সেমিফাইনালে শক্তিশালী পাকিস্তানের বিপক্ষে হৃদয়জয়ী খেলা উপহার দিয়ে দেশে ফিরেছেন লাল সবুজের ক্রি‌কে‌টের দিনবদলের দলপতি মাশরাফি বিন মুর্তজা ও তার দল।

শনিবার (২৯ সেপ্টেস্বর) রাত ১১টা ১৫ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন এশিয়া কাপে তিনবারের ফাইনালিস্টরা। এসময় তাদের বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে অভ্যর্থনা জানানো হয়।বিমানবন্দরে দলপতি মাশরাফি বিন মুর্তজা ও তার দল, ছবি: শোয়েব মিথুনআপনাদের মনে আছে নিশ্চয়ই এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ১৩৭ রানে হারিয়ে শুরুটা উড়ন্তই করেছিল বাংলাদেশ। তবে গ্রুপ পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে আফগানিস্তানের কাছে ১৩৬ রানের হারের পর সুপার ফোরে নিজেদের প্রথম ম্যাচেও ভারতের কাছে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারে ছন্দ পতন হয়।

কিন্তু ছন্দে ফিরতে খুব বেশি সময় নেননি কোচ স্টিভ রোডস শিষ্যরা। সুপার ফোরে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে আফগানদের সঙ্গে ৩ রানের স্বস্তির জয়ের পর অঘোষিত সেমিফাইনালে পাকিস্তানকে ৩৭ রানে হারিয়ে তৃতীয়বারের মতো উঠে যায় এশিয়া কাপের ফাইনালে।বিমানবন্দরে দলপতি মাশরাফি বিন মুর্তজা ও তার দল, ছবি: শোয়েব মিথুনআর শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মাত্র ২২২ রান করেও ভারতকে সহজ জয়ে মাঠ ছাড়তে দেননি লড়াকু মাশরাফি ও তার সৈন্য সামন্তরা। মাশরাফি, রুবেল, মোস্তাফিজের মুহুর্মুহু পেস তোপ এবং নাজমুল ইসলাম অপুর স্পিন জাদু ওভারের শেষ বলটি পর্যন্ত তাদের ক্রি‌জে থাকতে বাধ্য করেছে।

বাংলাদেশ সময়: ১১২২ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৮
এইচএল/টিএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ক্রিকেট খেলা মাশরাফি বিন মর্তুজা
মাতুয়াইল হাজী আঃ লতিফ ভূইয়া কলেজে নিয়োগ
কামারখন্দে স্বতন্ত্র প্রার্থীর ওপর হামলার অভিযোগ
চট্টলা এক্সপ্রেসে ডাকাতিতে অংশ নেয় ১০জন
মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ প্রত্যাহার ও ধ্বংসের নির্দেশ
ডিআইজি মিজানের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া চলছে


সোহেল তাজের ভাগ্নের খোঁজে কাজ করছে পুলিশ
৪ লাখ শিশুকে ভিটামিন ‘এ প্লাস’ খাওয়াবে ডিএসসিসি
আ’লীগ-স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ১০
পতেঙ্গায় ধরা পড়লো ভুয়া ডাক্তার, ৬ মাসের জেল
গাজীপুরে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মিলনের ভোট বর্জন