আর্জেন্টিনা ফেডারেশন একটা দুর্যোগ: মেসি

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: সংগৃহীত

walton

তিনদিন বাদেই চিলির বিপক্ষে শতবর্ষী কোপা অামেরিকার ফাইনাল। তার আগেই কিনা নিজ দেশের ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থার বিরুদ্ধেই সমালোচনায় মাতলেন লিওনেল মেসি! অবশ্য ফুটবলীয় কারণে নয়, হিউস্টন থেকে বিমানের ফ্লাইট বিলম্বের জেরে চটেছেন তিনি।

ঢাকা: তিনদিন বাদেই চিলির বিপক্ষে শতবর্ষী কোপা অামেরিকার ফাইনাল। তার আগেই কিনা নিজ দেশের ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থার বিরুদ্ধেই সমালোচনায় মাতলেন লিওনেল মেসি! অবশ্য ফুটবলীয় কারণে নয়, হিউস্টন থেকে বিমানের ফ্লাইট বিলম্বের জেরে চটেছেন তিনি।

এতোটাই ক্ষেপেছেন যে, আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনকে (এএফএ) একটা বিপর্যয় বা দুর্যোগ বলতেও দ্বিধাবোধ করেননি মেসি।

হিউস্টনে স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্রকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করে আলবিসেলেস্তেরা। চিলির বিপক্ষে ফাইনাল হবে নিউ জার্সিতে। ইতোমধ্যেই হিউস্টন থেকে আর্জেন্টিনা দলকে বহনকারী বিমান নিউ জার্সিতে অবতরণ করেছে।

কিন্তু ফ্লাইট বিলম্বে বিরক্তই হয়েছেন মেসি। সেটি উগরে দিয়েছেন ইন্সটাগ্রামে, ‘আবারো আমাদের বিমানে বসে গন্তব্যে পৌঁছানোর জন্য অপেক্ষায় থাকতে হলো। এএফএ কী একটা ডিজাস্টার (দুর্যোগ)। আমার ঈশ্বর!’

এদিকে, সোস্যাল মিডিয়ার দলীয় অধিনায়কের এমন পোস্ট দেখে তার ব্যাখ্যা দিয়েছে এএফএ। আবহাওয়াজনিত সমস্যার কারণেই নাকি ফ্লাইট বিলম্ব হয়েছিল।

সোমবার (২৭ জুন) টানা দ্বিতীয়বার কোপার শিরোপা লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে চিলি-আর্জেন্টিনা। নিউ জার্সিতে বাংলাদেশ সময় সকাল ৬টায় হাইভোল্টেজ ম্যাচটি শুরু হবে। গত বছর টাইব্রেকারে জিতে শিরোপা উল্লাস করেছিলেন আলেক্সিস সানচেজরা। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা মেসি-হিগুয়েইনদের সামনে এবার প্রতিশোধ নেওয়ার হাতছানি!

বাংলাদেশ সময়: ১৬০২ ঘণ্টা, জুন ২৪, ২০১৬
এমআরএম

বিশ্বকাপ ফাইনালের ম্যাচসেরা অনুপ্রেরণা হিসেবে দেখছেন আকবর
গৃহহীনদের অস্থায়ী আবাসনের দাবি গণসংহতি আন্দোলনের
করোনায় আক্রান্ত মার্কিন রণতরী থিওডোর রুজভেল্টের ২৮৬ নাবিক
নেতাকর্মীদের মুক্তি দিতে সরকারকে ফখরুলের চিঠি
সঙ্কটকালে গ্রাহকসেবায় সর্বোচ্চ চেষ্টা করতে হবে: জিপি সিইও


চট্টগ্রামে আরও ৩ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত
ময়মনসিংহে পুলিশ সদস্যসহ করোনায় আক্রান্ত ২ 
টিসিবির পণ্য ক্রয়ে ৩ ফুট দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশ
জামালপুর লকডাউন
করোনায় যুক্তরাজ্যে ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৯৩৬ মৃত্যু, মোট ৭০৯৫