শেষ ম্যাচে অঘটনের শিকার কলম্বিয়া

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি:সংগৃহীত

walton

কোপা আমেরিকার শতবর্ষী বিশেষ আসরে গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে অঘটনের শিকার হয়েছে কলম্বিয়া। কোস্টারিকার বিপক্ষে হোসে পেকারম্যানের শিষ্যরা ৩-২ গোলে হেরে গেছে। তবে হারলেও আসরের কোয়ার্টার ফাইনাল আগেই নিশ্চিত করেছিলো জেমস রদ্রিগেজের নেতৃত্বে দলটি।

ঢাকা: কোপা আমেরিকার শতবর্ষী বিশেষ আসরে গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে অঘটনের শিকার হয়েছে কলম্বিয়া। কোস্টারিকার বিপক্ষে হোসে পেকারম্যানের শিষ্যরা ৩-২ গোলে হেরে গেছে। তবে হারলেও আসরের কোয়ার্টার ফাইনাল আগেই নিশ্চিত করেছিলো জেমস রদ্রিগেজের নেতৃত্বে দলটি।

 

রোববার গ্রুপ ‘এ’তে নিজেদের শেষ ম্যাচ খেলতে নামে দু’দল। হাউসটনের রিলিয়েন্ট স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয় তারা। তবে এদিন মূলত কলম্বিয়ান ফুটবলার ফ্রাঙ্ক ফাবরার আত্মঘাতি গোলই ব্যবধান গড়ে দেয় ম্যাচে।

ম্যাচের শুরুতেই অবশ্য গোল করে এগিয়ে যায় কোস্টারিকা। মাত্র ২ মিনিটে আলবার্টো ভেনেগাস লিড পাইয়ে দেয় দলটিকে। তবে ৪ মিনিট পরেই ফ্রাঙ্ক ফাবরা সমতায় ফেরায় ২০০১ সালের চ্যাম্পিয়নদের। ৩৪ মিনিটে সেই ফাবরা আত্মঘাতি গোল করলে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় কোস্টারিকা।

বিরতির পর ম্যাচের ৫৮ মিনিটে কেলসো ব্রোগেস গোল করলে ৩-১ ব্যবধানে এগিয়ে যায় কোস্টারিকা। আর এই গোলটি শেষ পর্যন্ত কলম্বিয়ার হার নিশ্চিত করে। তবে খেলার ৭৩ মিনিটে মারলস মোরেনা কলম্বিয়ার হয়ে একটি গোল করলে শুধুমাত্র ব্যবধানই কমে।

ম্যাচের বাকি সময় আর কোন গোল না হলে শেষ পর্যন্ত ৩-২ গোলের হার নিয়েই মাঠ ছাড়ে পেকারম্যানের শিষ্যরা। এদিকে দিনের অপর ম্যাচে স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্র ১-০ গোলে হারিয়েছে প্যারাগুয়েকে। আর এ জয়ের ফলে স্বাগতিকরা গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার যোগ্যতা অর্জন করলো।

বাংলাদেশ সময়: ১০২৮ ঘণ্টা, ১২ জুন, ২০১৬
এমএমএস

বিশ্বকাপ ফাইনালের ম্যাচসেরা অনুপ্রেরণা হিসেবে দেখছেন আকবর
গৃহহীনদের অস্থায়ী আবাসনের দাবি গণসংহতি আন্দোলনের
করোনায় আক্রান্ত মার্কিন রণতরী থিওডোর রুজভেল্টের ২৮৬ নাবিক
নেতাকর্মীদের মুক্তি দিতে সরকারকে ফখরুলের চিঠি
সঙ্কটকালে গ্রাহকসেবায় সর্বোচ্চ চেষ্টা করতে হবে: জিপি সিইও


চট্টগ্রামে আরও ৩ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত
ময়মনসিংহে পুলিশ সদস্যসহ করোনায় আক্রান্ত ২ 
টিসিবির পণ্য ক্রয়ে ৩ ফুট দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশ
জামালপুর লকডাউন
করোনায় যুক্তরাজ্যে ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৯৩৬ মৃত্যু, মোট ৭০৯৫