৬ ডিসেম্বর মুক্ত হয় আখাউড়া

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

৬ ডিসেম্বর আখাউড়া মুক্ত দিবস। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলা ১৯৭১ সালের এই দিনে মুক্ত হয়। 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: ৬ ডিসেম্বর আখাউড়া মুক্ত দিবস। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলা ১৯৭১ সালের এই দিনে মুক্ত হয়। 

স্বাধীনতা যুদ্ধে পূর্বাঞ্চলের প্রবেশদ্বার বলে খ্যাত আখাউড়ার মাটিতেই শুয়ে আছেন বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামালসহ অসংখ্য মুক্তিযোদ্ধা।

দিবসটি পালন উপলক্ষে  ‘আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কমিটি’র উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। কর্মসূচিগুলোর মধ্যে রয়েছে পতাকা উত্তোলন, আনন্দ শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা। এতে সবাইকে উপস্থিত থাকার আহ্বান জানানো হয়েছে।

মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, একাত্তর সালের ৩০ নভেম্বর ও ১ ডিসেম্বর উপজেলার আজমপুর ও রাজাপুর এলাকায় পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর সঙ্গে মুক্তিবাহিনীর যুদ্ধ হয়। এরপর ৩ ডিসেম্বর হওয়া যুদ্ধে হানাদার বাহিনীর ১১ সৈন্য নিহত ও মুক্তিবাহিনীর দু’জন শহীদ হন। ৪ ডিসেম্বর মুক্তিবাহিনী ও মিত্রবাহিনী মিলে আখাউড়ায় আক্রমণ করে। ওই দিন আজমপুরে শহীদ হন লেফটেন্যান্ট ইবনে ফজল বদিউজ্জামান। ৫ ডিসেম্বর সারাদিন ও রাতে যুদ্ধের পর ৬ ডিসেম্বর আখাউড়া শত্রুমুক্ত হয়। 

বাংলাদেশ সময়: ১১১০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৬, ২০১৬
এসআই

বিশ্বে বছরে দেড় মিলিয়ন অপরিণত শিশু জন্মায়
নির্বাচনের পরে আন্দোলনে নামবে পরিবহন শ্রমিকরা
কন্যা জন্ম দেয়ায় স্ত্রীকে তালাক, ৯ দিনের শিশুকে বিক্রি 
৫৬ হাজার বর্গমাইলের খণ্ডচিত্রে মঞ্চায়িত ‘কনডেমড সেল’
বাংলা একাডেমির ৪ পুরস্কার ঘোষণা 
স্কাইপি বন্ধ করে সরকার ঘৃণ্য নজির দেখালো: রিজভী
শীতে সতেজ থাকতে ‘সুগন্ধী ইয়োগা-চা’
জোটে সমঝোতার পর আ’লীগের প্রার্থী তালিকা 
লিও তলস্তয়ের মৃত্যু
ইতিহাসের এই দিনে

লিও তলস্তয়ের মৃত্যু

খুলনায় কলেজ শিক্ষিকার আত্মহত্যা, সুইসাইড নোট উদ্ধার