php glass

বাংলার কারী ব্রিটিশদের হৃদয়ে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

বাংলার কারী এখন ‘ফিস ও চিপস’ এর মতো ব্রিটিশদের হৃদয় ছুয়েছে।

লন্ডন থেকে: বাংলার কারী এখন ‘ফিস ও চিপস’ এর মতো ব্রিটিশদের হৃদয় ছুয়েছে।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) লন্ডনের বাটারসি ইভোলিউশনে কারী শিল্পের অস্কার খ্যাত ব্রিটিশ কারী অ্যাওয়ার্ডের জমজমাট অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে।

এবারের ১২তম আয়োজনে বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতা ছাড়াও ফিল্ম, আর্টস, টেলিভিশনসহ বিভিন্ন মেইন স্ট্রিম মিডিয়া,স্পোর্টস, তারকার‍া উপস্থিত ছিলেন।  

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন- কমেডিয়ান আলিস্টায়ার মেকগাওন।

ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে ব্রিটিশ জীবনে কারী শিল্পের গুরুত্বারোপ করে তার শুভেচ্ছা বার্তায় বলেন, কারী এখন ‘ফিস ও চিপস’ এর মত ব্রিটিশদের হৃদয় ছুয়ে গেছে, ওয়েস্ট মিনিস্টার থেকে সারা দেশেই এটা এখন জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

তিনি ব্রিটিশ কারী অ্যাওয়ার্ডের সফলতার সঙ্গে উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করে বলেন, এ মুহূর্তেও হাজার হাজার ব্রিটিশ হয়তো তাদের ঘরে বা রেস্টুরেন্টে বসে স্পাইসী কারী উপভোগ করছে।

কারী শিল্পের সঙ্গে জড়িত ৯০ ভাগই বর্তমানে সঙ্কটে নিমজ্জিত উল্লেখ করে ব্রিটিশ কারী অ্যাওয়ার্ডের প্রতিষ্ঠাতা বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও স্পাইস বিজনেস এর সম্পাদক এনাম আলী এমবিই বলেন, স্টাফ সঙ্কটের কারনে ব্রিটেনে প্রতি সপ্তাহে কমপক্ষে ২টি রেস্টুরেন্ট বন্ধ হয়ে যাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, ইউকে ভিসা ব্যবস্থায় ইউরোপের তুলনায় কমনয়েলথভুক্ত দেশগুলো চরমভাবে অবহেলিত হত, আর তাই এ শিল্পের সঙ্গে জড়িতরা বাধ্য হয়ে ব্রেক্সিটকে সমর্থন করেছিল বরিস জনসন, প্রীতি পেটেল ও অন্যদের মতো। ব্রেক্সিটের পর আমরা একত্রিত হয়ে শক্তিশালী ব্রিটেনের জন্য কাজ করবো ও সমস্ত বিশ্বের সঙ্গে বাণিজ্যের দুয়ার খুলে দেবো।

প্রতি বছর কারি শিল্পের বিকাশে ও উন্নতির জন্য, এ শিল্পে জড়িতদের প্রতিভাকে মূল্যায়ন করা হয়। এ বছর ২ লাখ ৬ হাজার ৩ হাজার ১ শত ৭১ জন বিভিন্ন ভাবে তাদের পছন্দের রেস্টুরেন্টের নাম পাঠায়, তা থেকে ২ হাজার ১ শত ৫৩ টি প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার যোগ্য বলে বিবেচিত হয়। চূড়ান্ত পর্বে ১৩টি ক্যাটাগরিতে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। ১২টি ক্যাটাগরিতে ১২ টি রেস্টুরেন্টকে ও বিশেষ স্বীকৃতি স্বরূপ মরণোত্তর লর্ড গুলাম নুরকে অ্যাওয়ার্ডে সম্মানিত করা হয়।

অনুষ্ঠানে সারা দেশ থেকে সেলিব্রেটি সেফ, রেস্টুরেন্ট মালিক ও স্টাফ ছাড়াও ব্রিটিশ টিভি ও ফিল্ম ব্যক্তিত্ব এবং ডাচেস অফ ইয়র্ক সারাহ ফারগুসন, ট্রান্সপোর্ট মন্ত্রী ক্রিস গ্রায়লিং, লর্ড কামলেশ পেটেল, লর্ড অ্যালেক্স চাক, ব্রিটেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত নাজমুল কাউনাইন, অ্যান মেইন এমপি, জেমস ক্লেভারলি এমপি, সেরন হডসসন এমপি, ফুটবল খেলোয়ার ডেভিড সিম্যান, নৃত্য শিল্পী ফ্রাঙ্কিই পোল্টনি, সঙ্গীত শিল্পী পাত্তি বাউলায়ে, অভিনয় শিল্পী কোলিন সালমন, ব্রডকাস্টার ও সাংবাদিক রাগেহ ওমর, বিশিষ্ট টিভি ব্যক্তিত্ব লিজি চান্ডি, টিম ভিঙ্কেন্ট, সায়েরা খান, পেট শার্প, সেলিব্রেটি সেফ হাস্টন ব্লুমেন্থাম এবং অনুষ্ঠানের স্পন্সর কুকড ডটকমের প্রতিষ্ঠাতা সেলিম হুসেন উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ব্রিটেনের ১০ হাজার রেস্টুরেন্টে প্রায় ১ লাখ স্টাফ কাজ করে এবং এ শিল্পে বার্ষিক ৪.৩ বিলিয়ন পাউন্ডের বাণিজ্য হয়ে থাকে যা ব্রিটিশ অর্থনীতিতে এক উল্লেখযোগ্য ভুমিকা রেখে চলেছে। আর বাংলাদেশিরাই বেশিরভাগ এ কারী শিল্পের সঙ্গে জড়িত।

বাংলাদেশ সময়: ০৭৫৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০২, ২০১৬
বিএস

 

এইচএসসিতে অকৃতকার্য হয়ে বরগুনায় ছাত্রের আত্মহত্যা
খুলনায় ইয়াবাসহ মাদক কারবারী আটক
কাজিপুরে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে ফাটল, আতঙ্ক
পঞ্চগড়ে অপহৃত স্কুলছাত্রী উদ্ধার, অটোচালক গ্রেফতার
জেমস-আইয়ুব বাচ্চুর গানে মঞ্চ মাতালেন নোবেল


টাইগারদের জন্য নিজেকে যোগ্য কোচ মনে করেন সুজন
লালবাগে ছুরিকাঘাতে নিহত ১
সাস্ট ক্লাবের সভাপতি কামরুল ও সম্পাদক রিন্টু
প্রিয়া সাহার অভিযোগ নিশ্চয়ই চক্রান্ত: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
উপজেলা নির্বাচনে বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে কঠোর আ’লীগ