বিদ্যুৎ সংযোগে দুর্নীতি করে দালাল ও ইলেকট্রিশিয়ান

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক আলোচনা সভা

হবিগঞ্জ: নতুন বিদ্যুৎ সংযোগে পল্লীবিদ্যুৎ অফিসে দুর্নীতি হয় না। দুর্নীতি করে স্থানীয় দালাল ও ইলেক্ট্রেশিয়ানরা। বিশেষ করে গ্রামে বিদ্যুতায়নের ক্ষেত্রে স্থানীয় দালাল ও ইলেক্ট্রেশিয়ানরা যোগসাজস করে হাতিয়ে নেয় বিপুল পরিমাণ অর্থ।

হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলায় পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক আলোচনা সভায় ভুক্তভোগী গ্রাহকদের প্রশ্নের জবাব ও সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার মো. ছোলায়মান মিয়া।

তিনি বলেন, ইতিমধ্যে কয়েকজন ইলেক্ট্রেশিয়ানদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ভবিষ্যতেও দুর্নীতির অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বিদ্যুৎ সংযোগ নিতে দালাল বা মধ্যস্বত্ত্বভোগীদের দারস্থ না হওয়ার জন্য পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি মাইকিং, লিফলেট বিতরণসহ বিভিন্ন সচেতনতামূলক পদক্ষেপ নিয়েছে।

সরকার চলতি বছরের মধ্যে ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেবে। এছাড়া ১০০ টাকার আবেদন ফি এবং মিটার বাবদ ৪৫০ টাকা জমা দেয়ার পর ৭/১৫ দিনের মধ্যে আবাসিক বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি। যেখানে অতিরিক্ত কোনো খরচের প্রয়োজন নেই।

মঙ্গলবার (৮ মে) উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির উদ্যোগে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- দুর্নীতি দমন কমিশনের হবিগঞ্জ জেলা সমন্বিত কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মলয় কুমার সাহা, সহকারী উপ-পরিচালক মো. এরশাদ মিয়াসহ বিদ্যুৎ অফিসের কর্মকর্তা-কমচারীসহ সেবাগ্রহীতারা।

বাংলাদেশ সময়: ০৭০০ ঘণ্টা, মে ০৯, ২০১৮
এইচএমএস/এসআরএস

ঘুষ-হয়রানি ছাড়াই কর দিচ্ছি, ব্যাগভর্তি উপহার নিচ্ছি
পিইসি পরীক্ষায় বসা হলো না সুমনার
যষ্টিমধু কী!
সাদিয়া প্রমার সঙ্গে বিয়েবন্ধনে আবু হায়দার
রাঙ্গুনিয়ায় বসতঘরে অগ্নিকাণ্ড
বেগমগঞ্জে ১০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার
বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশীদের দ্বিতীয়দিনের সাক্ষাৎকার চলছে
বিশ্বকাপে সান্ত্বনার জয়টাও পেলো না বাংলাদেশ
মুহাম্মদ (সা.) সম্পর্কে ৭ তথ্য
কাস্টমস-ভ্যাটে দুর্নীতির যে ১৯ উৎস চিহ্নিত করলো দুদক