বিদ্যুতের দাম ১৭.৮৫ শতাংশ বাড়াতে চায় ডিপিডিসি

609 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম ১৭.৮৫ শতাংশ বৃদ্ধির প্রস্তাব করেছে ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি (ডিপিডিসি)। বিদ্যুতের পাইকারি দাম বাড়ানো হলে এ দাম বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে কোম্পানিটি।

ঢাকা: গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম ১৭.৮৫ শতাংশ বৃদ্ধির প্রস্তাব করেছে ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি (ডিপিডিসি)। বিদ্যুতের পাইকারি দাম বাড়ানো হলে এ দাম বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে কোম্পানিটি।

বৃহস্পতিবার (২২ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর কারওয়ানবাজারে অবস্থিত টিসিবি ভবনে গণশুনানিতে এ প্রস্তাব উত্থাপন করে ডিপিডিসি’র পরিচালক (অর্থ) মো. আসাদুজ্জামান। শুনানিতে উপস্থিত আছেন ডিপিডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিগ্রেডিয়ার (অব.) নজরুল হাসান।
 
বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির বিষয়ে এ গণশুনানি গ্রহণ করছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটারি কমিশন (বিইআরসি)। বিভিন্ন কোম্পানি ও সংস্থার দাম বৃদ্ধির প্রস্তাবের ওপর সুপারিশ করবে বিইআরসি’র কারিগরি মূল্যায়ন কমিটি।
 
ডিপিডিসি’র প্রস্তাবে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিপিডিবি) পাইকারি বিদ্যুতের দাম ১৮.১২ শতাংশ বৃদ্ধির প্রস্তাব করেছে। পাইকারি দাম বাড়লে খুচরা দামও বৃদ্ধি করা প্রয়োজন। পাইকারি দাম বাড়লে যদি না গ্রাহক পর্যায়ে না বাড়ে তাহলে ঘাটতির অর্থ ভর্তুকি হিসেবে দেওয়ার জন্যও অনুরোধ জানান তিনি।
 
ডিপিডিসি’র পক্ষ থেকে বলা হয়, ২০০৮-০৯ অর্থবছর থেকে ২০১১-১২ অর্থবছর পর্যন্ত যথাক্রমে ৮৭ কোটি টাকা, ১৯৩ কোটি টাকা, ২০৯ কোটি টাকা ও ৬৭ কোটি টাকা কর পরবর্তী নিট মুনাফা করেছে। কিন্তু পরবর্তী ২০১২-১৩ ও ২০১৩-১৪ অর্থবছরে পাইকারি দামের সঙ্গে খুচরা দামের সমন্বয়হীনতার কারণে যথাক্রমে ৬৪ ও ২৩ কোটি টাকা লোকসান দিয়েছে কোম্পানিটি।
 
ডিপিডিসির পরিচালন ব্যয়, রক্ষণাবেক্ষণা ব্যয় ও হুইলিং চার্জসহ প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের মূল্য দাঁড়ায় ৭.৪৪ টাকা। কিন্তু বর্তমানে গড়ে প্রতি ইউনিট বিক্রি করছে ৭.৩৮ টাকা দরে। ফলে ডিপিডিসি প্রতি ইউনিটে লোকসান দিচ্ছে .০৬ টাকা।
 
গণশুনানি গ্রহণ করেন বিইআরসি’র চেয়ারম্যান এআর খান, সদস্য ড. সেলিম মাহমুদ, প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন, রহমান মুরশেদ ও মাকসুদুল হক।
 
এর আগে সকালে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের(বিপিডিবি)গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির প্রস্তাবের ওপর গণশুনানি গ্রহণ করা হয়। বিপিডিবি গ্রাহক পর্যায়ে ২২.৪৫ শতাংশ বৃদ্ধির প্রস্তাব করেছে। আর বিইআরসি’র কারিগরি মূল্যায়ন কমিটি পাইকারি বিদ্যুতের দাম বাড়লে ৭.৮৩ শতাংশ ও দাম না বাড়লে ৩.০৯ শতাংশ বাড়ানোর পক্ষে মত দিয়েছে।
 
গত ২০ জানুয়ারি গণশুনানি শুরু করে বিইআরসি। প্রথম দিনে বিপিডিবির পাইকারি বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির প্রস্তাবের ওপর এবং দ্বিতীয় দিন বুধবার (২১ জানুয়ারি) পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশ (পিজিসিবি) ও ওয়েস্ট-জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি (ওজোপাডিকো) মূল্য বৃদ্ধির প্রস্তাবের ওপর গণশুনানি গ্রহণ করা হয়।
 
২৫ জানুয়ারি শেষ দিনে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড (আরইবি)ও ঢাকা ইলেক্ট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানির (ডেসকো) প্রস্তাবের ওপর গণশুনানি গ্রহণ করা হবে।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৪৫৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২২, ২০১৫

** পিডিবি’র বিদ্যুতের মূল্য ৩.০৯ শতাংশ বৃদ্ধির সুপারিশ
** বিদ্যুতের দাম ২২.৪৫ শতাংশ বৃদ্ধির প্রস্তাব বিপিডিবির

Nagad
বেগমগঞ্জে ৩০ মেট্রিক টন গম জব্দ
করোনা উপসর্গ নিয়ে বিসিএসআইআর কর্মকর্তার মৃত্যু
সভাপতি পদে রাহুলকে চান কংগ্রেসের সাংসদরা
নালিতাবাড়ী-ঝিনাইগাতীতে ২৫ গ্রাম প্লাবিত
বিপিও উদ্যোক্তাদের বিনিয়োগের আহ্বান পলকের


বিনিয়োগ আকর্ষণে নীতিমালা সংস্কারের পরামর্শ
ভুয়া চিকিৎসকসহ ৩ জনকে কারাদণ্ড, হাসপাতাল সিলগালা
পশ্চিমবঙ্গে একদিনে করোনা আক্রান্ত ১,৫৬০ জন
নভোএয়ারে ভ্রমণ করলে ফ্রি কাপল টিকিট
‘টাউট’ শহীদুলের আইন পেশা, আছে মানবাধিকার সংগঠন!