জাতীয় বিদ্যুৎ ক্যাম্পে ৪০ হাজার স্কাউট-রোভার

618 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
তৃতীয় জাতীয় বিদ্যুৎ ক্যাম্পে সারাদেশে জেলা ও উপজেলার ৬০টি স্টেশনে ৪০ হাজার স্কাউট ও রোভার স্কাউট অংশ নেবেন বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ স্কাউটসের প্রধান জাতীয় কমিশনার ও সিনিয়র সচিব ড. মো. মোজাম্মেল হক খান। বুধবার (১৭ ডিসেম্বর) বিকেলে রাজধানীর বাংলাদেশ স্কাউট জাতীয় সদর দফতরে ‘তৃতীয় জাতীয় বিদ্যুৎ ক্যাম্প’র উদ্বোধন’ উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ

ঢাকা: তৃতীয় জাতীয় বিদ্যুৎ ক্যাম্পে সারাদেশে জেলা ও উপজেলার ৬০টি স্টেশনে ৪০ হাজার স্কাউট ও রোভার স্কাউট অংশ নেবেন বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ স্কাউটসের প্রধান জাতীয় কমিশনার ও সিনিয়র সচিব ড. মো. মোজাম্মেল হক খান।

বুধবার (১৭ ডিসেম্বর) বিকেলে রাজধানীর বাংলাদেশ স্কাউট জাতীয় সদর দফতরে ‘তৃতীয় জাতীয় বিদ্যুৎ ক্যাম্প’র উদ্বোধন’ উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।
 
‘জ্বলছে আলো চলছে দেশ, এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ’ স্লোগানে বিদ্যুৎ বিভাগ ও বাংলাদেশ স্কাউট’র আয়োজনে ১৮-২১ ডিসেম্বর সারাদেশে চলবে বিদ্যুৎ ক্যাম্প।
 
সমাজের সকল স্তরের মানুষের মাঝে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী হওয়ার ব্যাপারে সচেতনতা বাড়াতে বিদ্যুৎ বিভাগ ও বাংলাদেশ স্কাউট ২০১০ সাল থেকে এ সপ্তাহব্যাপী এ কর্মসূচি পালন করে আসছে।
 
১৮ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ স্কাউট জাতীয় সদর দফতরে এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিয়ষক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী। আর প্রতিবছরের ন্যায় এবারও ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে জাতীয় বিদ্যুৎ ক্যাম্পের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

স্কাউটসের প্রধান জাতীয় কমিশনার মোজাম্মেল হক খান বলেন, বিদ্যুৎ ক্যাম্পে অংশগ্রহণকারী রোভার সদস্যরা বিদ্যুৎ, জ্বালানি সাশ্রয়ে অভিজ্ঞতা ও সচেতনতা তৈরিতে কাজ করবে।

তিনি বলেন, রোভার স্কাউট সদস্যরা ৪৯১টি উপজেলা, ৬৪টি জেলা, ৫টি মেট্রোপলিটন জেলা, ১৩টি রেলওয়ে জেলা, ৬টি নৌ জেলা, ৬টি এয়ার জেলা ও ৯টি আঞ্চলিকসহ মোট ৫৯৪টি ক্যাম্প করবে।

মোজাম্মেল হক বলেন, রোভার স্কাউট সদস্যরা সারাবছর বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে কাজ করে থাকে। ক্যাম্পে অংশ নেওয়া রোভার স্কাউট সদস্যরা প্রশিক্ষণ নিয়ে নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী এবং স্থানীয় জনগণের মাঝে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি বিষয়ে বার্তা পৌঁছে দেবে।

তিনি বলেন, যে কোনো উন্নয়নের ক্ষেত্রে বিদ্যুৎ খাত অন্যতম। মিতব্যয়ী হওয়া ছাড়া বিদ্যুৎ অপচয় রোধ সম্ভব নয়। চারদিনের প্রশিক্ষণে নেওয়া শিক্ষা যদি স্কাউটরা জনগণের মাঝে ছড়িয়ে দিতে না পারে তাহলে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী এ ক্যাম্প গ্রণযোগ্যতা পাবে না।

বিদ্যুৎ ক্যাম্প বাস্তবায়ন বিষয়ক স্টিয়ারিং কমিটির আহ্বায়ক ও পাওয়ার সেল মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসাইন বলেন, স্কাউট একটি আন্দোলন। মহতি এ আন্দোলনকারী স্কাটউটরা বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী কাজে এগিয়ে এলে মানুষ অনেক সচেতন হবে।

স্কাউটরা বিদ্যুৎ ব্যবহারের ক্ষেত্রে মানুষকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে সরকারের বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী কাজে সহযোগিতা করবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৭, ২০১৪

Nagad
ঈদের এক সপ্তাহ আগেই বেতন-বোনাস পরিশোধের দাবি স্কপের
কুয়েতের নতুন রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল আশিকুজ্জামান
ভারতের এক কিউরেটরের মৃত্যু
চলে গেলেন হলিউড অভিনেত্রী কেলি প্রেসটন
‘পাটশিল্পের সঙ্গে জড়িতরা অভিশপ্ত জীবনের দিকে ধাবিত হচ্ছেন’


দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করে অর্থ-সম্পদ বাড়ালে ছাড় নয় 
ঢাকা উত্তরে ‘স্মার্ট ল্যাম্প পোল’ চালু করলো ইডটকো
বাড়িভাড়া জুলাই থেকে ৫০ শতাংশ করার দাবি
দিরাইয়ে করোনা আক্রান্ত হয়ে বৃদ্ধার মৃত্যু
কমলনগরে নদী ভাঙন রোধের দাবিতে মানববন্ধন