ঢাকা, শনিবার, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৫ রজব ১৪৪২

রাজনীতি

সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনে দেশের বাইরেও কমিটি বিএনপির

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮০৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০২১
সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনে দেশের বাইরেও কমিটি বিএনপির ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন/ ফাইল ফটো

ঢাকা: মুক্তিযুদ্ধের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনে দেশের বাইরেও আঞ্চলিক কমিটি গঠন করেছে বিএনপি।

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) দুপুরে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনে জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন একথা জানান।

তিনি বলেন, ‘বহির্বিশ্বে আমাদের জাতীয়তাবাদী শক্তির যারা প্রতিনিধি রয়েছেন, আমাদের দলের যেসব শাখা রয়েছে তাদের মিলে আমরা আঞ্চলিক কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। মধ্যপ্রাচ্য আঞ্চলিক কমিটি, ইউরোপ আঞ্চলিক কমিটি, যুক্তরাজ্য আঞ্চলিক কমিটি ইতোমধ্যে গঠিত হয়েছে। আরো অন্য আঞ্চলিক কমিটি গঠনের তালিকা আমরা পাচ্ছি। ’

সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করতে বিএনপি ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে আহ্বায়ক ও আবদুস সালামকে সদস্য সচিব করে ১৩৫ সদস্যের জাতীয় কমিটি, ৭ সদস্যের স্টিয়ারিং কমিটি, ১৫টি বিষয়ভিত্তিক কমিটি ও ১০টি বিভাগীয় সমন্বয় কমিটি গঠন করেছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মোশাররফ বলেন, ‘এই বিএনপি রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের প্রতিষ্ঠিত দল, এ দল মুক্তিযোদ্ধাদের দল। আমরা দাবি করি, আমরা মুক্তিযোদ্ধাদের দল। সংখ্যাগরিষ্ঠ মুক্তিযোদ্ধারা এ দলে রয়েছেন। আমাদের দল এজন্য অত্যন্ত ভালোভাবে সুবর্ণজয়ন্তী পালন করতে চায়। আমাদের সবার একটা আবেগ যে, এ মুক্তিযুদ্ধে যারা জীবন বাজি রেখে যুদ্ধ করেছেন, যারা প্রাণ দিয়েছেন, আমরা যে স্বাধীনতা চেয়েছিলাম সেই আকাঙ্ক্ষা আমাদের পূরণ হয়েছে কিনা, সেটা অবশ্যই ৫০ বছরে আমাদের মূল্যায়ন করা প্রয়োজন। ’

তিনি বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের পর ৫০ বছর পার হয়েছে। আমরা দেখেছি মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে, মুক্তিযুদ্ধের আকাঙ্ক্ষা নিয়ে এবং এ ৫০ বছরের আমাদের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে বিকৃত করার অনেক চেষ্টা চলছে। তাই আমাদের দায়িত্ব যারা আমরা যুদ্ধ করেছি, যুদ্ধে সহযোগিতা করেছি, এখনো বেঁচে আছি, আমাদেরই দায়িত্ব নতুন প্রজন্মের কাছে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস তুলে ধরা এবং তা জানিয়ে যাওয়া। সেজন্য আমরা সারা বছর প্রকৃত ইতিহাস জানাতে চাই। ’

জাতীয় নির্বাচনের মতো পৌর নির্বাচনেও ভোটকেন্দ্র ক্ষমতাসীনদের দখলেই বলে অভিযোগ করেছেন ড. মোশাররফ।

গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক বৈঠকের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ অভিযোগ করেন। দ্বিতীয় ধাপে শনিবার সারাদেশে ৬০টি পৌরসভার নির্বাচনে ভোট গ্রহণ করা হয়।

তিনি বলেন, ‘আমরা যতটুকু খবর পেয়েছি, আজকের পৌরসভা নির্বাচনে ক্ষমতাসীনরা সকাল থেকেই আমাদের এজেন্টদের সেন্টারে যেতে দেয়নি, অনেক জায়গায় বের করে দিয়েছে, এমনকি বিএনপি সমর্থকদের ভোটকেন্দ্রের কাছেও যেতে দিচ্ছে না। ’

সম্মাননা কমিটির আহ্বায়ক ব্যারিস্টার অবসরপ্রাপ্ত শাহজাহান ওমর বীর উত্তমের সভাপতিত্বে এ সভায় স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব মজিবুর রহমান সারোয়ার, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক অবসরপ্রাপ্ত কর্নেল জয়নাল আবেদীন, ‍মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি ইশতিয়াক আজিজ উলফাত, সাধারণ সম্পাদক সাদেক আহমেদ খান, মুক্তিযোদ্ধা দলের উপদেষ্টা শাহ মো. আবু জাফর, মুক্তিযোদ্ধা দলের হাজী হোসেন আহমেদ, একেএম কামরুজ্জামান, ইব্রাহিম খান, মহসিন সরকার, নুরুল আলম মিয়া, নান্নু মিয়া, খন্দকার তৌহিদুর রহমান, শরীফ হোসেন, আবু সালেহ, এমএম মোস্তফা কামাল, আখতার হোসেন রিয়াজ উদ্দিন নসু ও মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০২১
এমএইচ/এফএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa