ঢাকা, বুধবার, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ১২ আগস্ট ২০২০, ২১ জিলহজ ১৪৪১

রাজনীতি

জনগণের দুঃখ-দুর্দশা বোঝার ক্ষমতা আ’লীগের নেই: ফখরুল

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪৫৯ ঘণ্টা, মার্চ ১, ২০২০
জনগণের দুঃখ-দুর্দশা বোঝার ক্ষমতা আ’লীগের নেই: ফখরুল বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

ঢাকা: বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আওয়ামী লীগ যেহেতু জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে সেজন্য জনগণের ব্যথা-বেদনা, দুঃখ-কষ্ট তারা বুঝতে পারে না। আমরা বহুবার বলেছি দলটি এখন ব্যাংক্রাফট (দেউলিয়া) হয়ে গেছে। তারা মানুষের কষ্টটাও বুঝতে পারে না। উনি (আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের) যেটাকে সামান্য বলছেন, এটা যে একজন সাধারণ মানুষের কাছে কতটা অসামান্য এটা বোঝার শক্তিও তার নেই। তারা এমন জায়গায় পৌঁছে গেছেন যে তাদের লোকজনের ঘরে কোটি কোটি টাকা পাওয়া যায়। তারাতো মানুষের কষ্ট বুঝবেন না।

রোববার (১ মার্চ) সকালে জাতীয়তাবাদী মৎস্যজীবী দলের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর শের-ই বাংলানগরে জিয়াউর রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

পানি-বিদ্যুতের মূল্য বাড়াতে জনগণের কোনো সমস্যা হবে না ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যর বিষয়ে জানতে চাইলে ফখরুল বলেন, তারাতো জনগণ থেকে সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

জনগণের দুঃখ-দুর্দশা বোঝার মতো ক্ষমতা তাদের নেই। আমরা এটা বুঝি, জনগণ তাদের থেকে মুক্তি চায়।  

তিনি বলেন, আমরাতো প্রতিবাদ করছি। পানি-বিদ্যুতের মূল্য না বাড়ানোর দাবি জানিয়েছি। পানি-বিদ্যুতের মূল্য বাড়ার প্রতিবাদে আগামী সোমবার (৩ মার্চ) (সারাদেশে মানববন্ধন) প্রোগ্রাম আছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, সরকার অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে রেখেছে। তারা দেশকে একটা অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করতে চলছে। আমরা যারা গণতন্ত্রের জন্য লড়াই সংগ্রাম করছি সেইসব গণতান্ত্রিক শক্তিগুলোকে ঐক্যবদ্ধ করে স্বৈরাচারী সরকারকে পরাজিত করার শপথ নিয়েছি। আমরা আন্দোলনের মাধ্যমেই তাদের পরাজিত করতে সক্ষম হবো।

খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা আমাদের সর্বাত্মক প্রচেষ্টা করেছি। আমরা দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে শুধু বিএনপি নেতা মনে করি না। তিনি সব মানুষের মুক্তির নেতা। সেকারণে তার অসুস্থতা আমাদের সবাইকে অত্যন্ত উদ্বিগ্ন করেছে। আমরা গত দুই বছর ধরে একদিকে আইনি ভাবে অন্যদিকে রাজনৈতিকভাবে মুক্ত করার চেষ্টা করছি। এ ভয়াবহ একটা ফ্যাসিস্ট সরকার যারা সমস্ত মানবিকবোধগুলোকে পর্যন্ত ধ্বংস করে দিয়েছে। তারা রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে খালেদা জিয়াকে আটকে রেখেছে। রাজনৈতিক উদ্দেশেই প্রাপ্য জামিন দিচ্ছে না। আমরা জনগণের কাছে যাচ্ছি, জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করার চেষ্টা করছি। আমরা বিশ্বাস করি জনগণের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মধ্যে দিয়েই এ গণতন্ত্রের নেতার মুক্তি হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন মৎস্যজীবী দলের আহ্বায়ক রফিকুল ইসলাম মাহতাবসহ দলীয় নেতাকর্মীরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫৯ ঘণ্টা, মার্চ ০১, ২০২০
এমএইচ/আরআইএস/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa