বুর্জোয়াদের হাতে মুক্তিযুদ্ধের অর্জন নিরাপদ নয়: সেলিম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বিজয় দিবসের আলোচনা ও স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠান, ছবি: বাংলানিউজ

walton

ঢাকা: বুর্জোয়া শাসকদের কাছে মুক্তিযুদ্ধের অর্জন নিরাপদ নয় বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম।



রোববার (১৫ ডিসেম্বর) বিকেলে রাজধানীর পুরানা পল্টনে মুক্তিভবনের মৈত্রী মিলনায়তনে বিজয় দিবসের আলোচনা ও স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, ৩০ লাখ শহীদের আত্মদানের মাধ্যমে একাত্তরে যেসব অমূল্য সম্পদ অর্জিত হয়েছিল, বুর্জোয়া শাসকদের দেউলিয়াপনা ও ব্যর্থতার ফলে তার প্রায় সবটুকুই হাতছাড়া হয়ে গেছে। প্রায় অর্ধশতাব্দীর অভিজ্ঞতায় এ কথা বলা যায় বুর্জোয়া শাসকদের হাতে মুক্তিযুদ্ধের অর্জন নিরাপদ নয়।

সিপিবি সভাপতি বলেন, এখন দেশ পরিচালিত হচ্ছে অনেকটাই মুক্তিযুদ্ধের বিপরীতমুখী ধারায়। বুর্জোয়ারা মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ-চেতনা পরিত্যাগ ও ভুলুণ্ঠিত করলেও সেই পতাকার ক্ষয় নেই। বুর্জোয়ারা সেটিকে পরিত্যাগ করলেও কমিউনিস্ট পর্টি ও বামপন্থিরা সেই পতাকাকে ঊর্ধ্বে তুলে মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ-চেতনায় দেশকে এগিয়ে নিতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। এ লক্ষ্যে কমিউনিস্ট ও বামপন্থিরা শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও সংগ্রাম করে যাবে।

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন-সিপিবি সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোহাম্মদ শাহ আলম, সিপিবির অন্যতম সম্পাদক আহসান হাবিব লাবলু, শ্রমিক নেতা ও মুক্তিযোদ্ধা কমরেড লুৎফর রহমান, ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা কামরুল আহসান খান, ক্ষেতমজুর সমিতির সাবেক সভাপতি ও মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট জিয়াদ আল মালুম প্রমুখ।

সভার শুরুতে উদীচীর শিল্পীরা মুক্তিযুদ্ধের গণসঙ্গীত পরিবেশন করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯
আরকেআর/ওএইচ/

ভাষাশহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে জ্বলে উঠলো ৫২শ' মোমবাতি
সারাদেশে একুশের প্রথম প্রহরে ভাষাশহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা
গর্বের সঙ্গে বাংলার ব্যবহার চায় ভারতের নদীয়ার প্রতিনিধিদল
ভেঙে পড়লো রাসিক মেয়র লিটনের সংবর্ধনা মঞ্চ
রামুতে বর্ণমালা হাতে হাজারো শিক্ষার্থীর কন্ঠে একুশের গান


ভাষাশহীদদের প্রতি বিরোধী দলীয়নেতা রওশনের শ্রদ্ধা
মাতৃভাষার জন্য ভালোবাসা
একুশে ফেব্রুয়ারি: বাঙালির আত্মপরিচয়ের দিন
বাংলায় দেওয়া রায়ে বঙ্গবন্ধুর সেই ভাষণ
প্রথম প্রহরেই কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জনস্রোত