php glass

‘ওয়ার্কার্স পার্টি আদর্শগতভাবে অন্তঃসারশূন্য’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ওয়ার্কার্স পার্টির পলিট ব্যুরোর সদস্য ইকবাল কবির জাহিদ। ছবি: বাংলানিউজ

walton

ঢাকা: ওয়ার্কার্স পার্টির পলিট ব্যুরোর সদস্য ইকবাল কবির জাহিদ বলেছেন, ওয়ার্কার্স পার্টির কংগ্রেস উপলক্ষে সাজসজ্জায় যতই জৌলুশ দেখা যাক না কেন অচিরেই তাদের লেজুড়বৃত্তি, সুবিধাবাদী ও বিলোপবাদী রাজনীতির পরিণতি দেশবাসীর সামনে স্পষ্ট হবে। বর্তমানে ওয়ার্কার্স পার্টি আদর্শগতভাবে অন্তঃসারশূন্য দলে পরিণত হয়েছে।

শনিবার (০২ নভেম্বর) দুপুরে বিমল বিশ্বাসের বাসায় এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

সভায় বিমল বিশ্বাস ছাড়াও নূরুল হাসান, ইকবাল কবির জাহিদ, অনিল বিশ্বাসসহ সমন্বয় কমিটির নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

দক্ষিণপন্থী সুবিধাবাদ, বুর্জোয়া লেজুড়বৃত্তি ও বিলোপবাদী ধারার বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে ওয়ার্কার্স পার্টির কংগ্রেস বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন দলের পলিট ব্যুরোর সদস্য ইকবাল কবির জাহিদসহ কেন্দ্রীয় ছয় নেতা। ওয়ার্কার্স পার্টির সাবেক সাধারণ সম্পাদক বিমল বিশ্বাস পার্টি থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নিলেও পরে তাকে বহিষ্কার করা হয়।

বর্তমানে ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় এই ছয় নেতা পার্টির আদর্শ রক্ষায় কেন্দ্রীয় সমন্বয় কমিটির উদ্যোগে আগামী ২৯-৩০ নভেম্বর দু’দিনব্যাপী সম্মেলনের ঘোষণা দেন।

বিমল বিশ্বাসের সঙ্গে আলোচনা শেষে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির আদর্শ রক্ষায় সমন্বয় কমিটির সমন্বয়ক ইকবাল কবির জাহিদ এক বিবৃতিতে বলেন, ওয়ার্কার্স পার্টি কখনো নীতিগত সিদ্ধান্ত নেয়নি। ১৪ দল একটি আদর্শিক জোট। কিন্তু সাংবাদিক সম্মেলনে দলের সাধারণ সম্পাদক বলেছেন,  ১৪ দলে কোনো সমস্যা নাই, ১৪ দল আদর্শিক জোট, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে চলেছে। ১৪ দলে থাকার কারণে পার্টি বিকশিত হয়েছে। এই বক্তব্যে প্রমাণিত হয়, তারা বুর্জেয়া আর কমিউনিস্ট মতাদর্শ একাকার করে ফেলেছেন। আওয়ামী লীগের হেফাজত ও সাম্প্রদায়িক শক্তির রাজনীতি আজ ওয়ার্কার্স পার্টির আদর্শ হিসেবে রূপান্তরিত হয়েছে।

বিবৃতে আরও বলা হয়, বিমল বিশ্বাস পার্টি থেকে স্বেচ্ছায় নিজের নাম প্রত্যাহার করে নিলেও তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। যা গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ পরিপন্থিই নয়, ব্যক্তি আক্রোশের বহিঃপ্রকাশ। যা অত্যন্ত নিন্দনীয়।

তিনি আরও বলেন, ওয়ার্কার্স পার্টি আদর্শগতভাবে অন্তঃসারশূন্য হয়ে গেছে। কংগ্রেসের সাজসজ্জায় যতই জৌলুশ দেখা যাক না কেন, অচিরেই তাদের লেজুড়বৃত্তি, সুবিধাবাদী ও বিলোপবাদী রাজনীতির পরিণতি দেশবাসীর সামনে স্পষ্ট হবে। নেতাকর্মীদের মধ্যকার বিভ্রান্তিও দূর হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২০১৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ০২, ২০১৯
আরকেআর/এইচএডি/

‘একজন অফিসার চাইলে জেলা-উপজেলার চেহারা বদলে দিতে পারেন’
থার্টিফার্স্ট নাইটে উন্মুক্ত স্থানে কনসার্ট করা যাবে না
পরবর্তী করণীয় ঠিক করবেন সিনিয়র আইনজীবীরা
সেঞ্চুরির পর তামিমের ৫
খাগড়াছড়িতে ডিজিটাল দিবসে র‌্যালি-সভা


এ রায়ে আমরা ‘শকড’: মাহবুব উদ্দিন
খালেদাকে রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চাওয়ার পরামর্শ কামরুলের 
কেরানীগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় তদন্ত কমিটি
২০২৩ সালের মধ্যে দেড় কোটি যুবকের কর্মসংস্থান হবে
এটা সরকারের নয়, আদালতের বিষয়: কাদের