‘দুর্নীতিবাজদের ঠিকানা হবে খালেদা জিয়ার পাশের কারাগারে’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বক্তব্য রাখছেন হাসানুল হক ইনু। ছবি- ডি এইচ বাদল

walton

ঢাকা: দুর্নীতিবাজ-লুটেরাদের বিরুদ্ধে সরকারের চলমান শুদ্ধি অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেছেন, যে দলের জার্সিই গায়ে থাকুক না কেন, দুর্নীতিবাজ, লুটেরাদের সিন্ডিকেট ধ্বংস করতে হবে। এবং তাদের ঠিকানা হবে খালেদা জিয়ার পাশের কারাগারে। 

বুধবার (১৬ অক্টোবর) বিকেল সাড়ে ৪টায় বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে জাসদ অফিস প্রাঙ্গণে এ মন্তব্য করেন দলটির সভাপতি।

শুদ্ধি অভিযানে সমর্থন ও এর সমালোচনায় বিএনপি নেতাদের কটাক্ষ করে হাসানুল হক বলেন,  দুর্নীতির অভিযোগে দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও পলাতক তারেক জিয়ার ছবি বুকে নিয়ে দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বলা জাতির সঙ্গে মশকরা।  যে দলের জার্সিই গায়ে থাকুক না কেন, দুর্নীতিবাজ, লুটেরাদের ঠিকানা হবে খালেদা জিয়ার পাশের কারাগারে। দুর্নীতিবাজ-লুটেরা, অসৎ আমলা, রাজনীতিকদের বিরুদ্ধে ত্রিমুখী অভিযান পরিচালনা করতে হবে। এ ত্রিমুখী অপরাধীদের সিন্ডিকেট ধ্বংস করতে হবে। শুদ্ধি অভিযান ও দুর্নীতি বিরোধী অভিযান জেলা-উপজেলা পর্যন্ত পরিচালনা করতে হবে। 

‘দুর্নীতিবাজ, লুটেরারা উইপোকা-ইঁদুরের মত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরিশ্রমের সুফল খেয়ে ফেলছে।  সরকারের গায়ে কালিমা লেপন করছে। যত ক্ষমতাবানই হোক না কেন, তাদেরকে ধরতে হবে, শায়েস্তা করতে হবে, আর যেন কেউ দুর্নীতি, লুটপাট করার সাহস না পায়।’

শুদ্ধি অভিযান নিয়ে বিএনপির নেতাদের সমালোচনাকে কটাক্ষ করে ইনু আরও বলেন, শেখ হাসিনার শুদ্ধি অভিযান নিয়ে কথা বলার আগে খালেদা জিয়া-তারেককে পরিত্যাগ করুন। খালেদা জিয়া-তারেককে মাথার তাজ বানিয়ে দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বলা ভূতের মুখে রাম নাম। এটি জাতির সঙ্গে  মশকরা করা ছাড়া আর কিছুই নয়।

বিএনপি নেত্রী ও আওয়ামী লীগ নেত্রীর তুলনা টেনে জাসদ নেতা বলেন,  খালেদা জিয়া ও শেখ হাসিনার মধ্যে পার্থক্য হচ্ছে। খালেদা জিয়া দুর্নীতিবাজ লুটেরাদের মাথার তাজ বানিয়ে রাখেন। আর শেখ হাসিনা দুর্নীতি এবং লুটপাট দেখলে সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা গ্রহণ করেন।’  

ঢাকা মহানগর জাসদের সমন্বয়ক মীর হোসাইন আখতারের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন-  জাসদ সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান শওকত, নুরুল আখতার, নাদের চৌধুরী, আফরোজা হক রীনা, শফি উদ্দিন মোল্লা, শহীদুল ইসলাম প্রমুখ।

সমাবেশ শেষে জাসদের একটি গণমিছিল বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ, গুলিস্তান হয়ে দিলকুশা, মতিঝিল, তোপখানা, প্রেসক্লাব, বিজয়নগর ও পল্টন এলাকা প্রদক্ষিণ করে। 

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৬, ২০১৯
আরকেআর/এইচজে 

Nagad
সাবেক অধ্যক্ষ আব্দুল মান্নান আর নেই
ধামইরহাটে গৃহবধূর আত্মহত্যা
অনলাইন শিক্ষায় সেরা দশে নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটি
করোনা আক্রান্ত চিত্রনায়িকা তমা মির্জা
চিলাহাটি-হলদীবাড়ি রেললাইন স্থাপন শুরু


সব সঞ্চয় হারিয়ে ফ্লাট বিক্রি করেছিলেন এন্ড্রু কিশোর
জন্মদিনে ৩৫ শিশুর অস্ত্রোপচারের দায়িত্ব নিলেন গাভাস্কার
মালদ্বীপ থেকে ফিরলেন আটকে পড়া ১৫৭ বাংলাদেশি
বাংলানিউজের শারমীনা ও শিমুলের বাবা আর নেই
ব্যাংকক থেকে রাতে ঢাকায় আনা হবে সাহারা খাতুনের মরদেহ