php glass

২৮ হাজার কোটি টাকা পাচার করেছে সরকার: মির্জা ফখরুল

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

র‌্যালি উদ্বোধনীতে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ছবি: জিএম মুজিবুর

walton

ঢাকা: বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সরকার অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে বন্দি করে রেখে একদলীয় বাকশাল প্রতিষ্ঠা করতে চায়। আমরা কী আবার সেই বাকশালে ফিরে যাবো। কোনো দিনও নয়। আজকে এই সরকার দেশের অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দিয়েছে। গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছে, ট্যাক্স বাড়িয়েছে। কিন্তু জনগণের কোনো সমস্যার সমাধান তারা করতে পারেনি। ব্যাংকিং ব্যবস্থা থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা লুট করে গোটা খাতটি ধ্বংস করে দিয়েছে। পত্রিকায় এসেছে তারা ২৮ হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করে দিয়েছে।

সোমবার (০২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর র‌্যালির উদ্বোধনের সময় তিনি এ কথা বলেন।

ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় ১৮ মাস ধরে আটক করে রাখা হয়েছে। ২৬ লাখ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে লক্ষাধিক মামলা দিয়েছে। তারা মনে করেছে পাঁচ শতাধিক নেতাকর্মীকে গুম করে, হাজার হাজার নেতাকর্মীকে আটক করে খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলনকে দমন করতে পারবে। কিন্তু আজকের এই র‌্যালি প্রমাণ করেছে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে তারা দমন করতে পারবে না।

তিনি বলেন, এই সরকার জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। তারা দেশনেত্রীকে আটকে রেখে, জনগণকে মামলা দিয়ে, হত্যা করে ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়। কিন্তু পৃথিবীর কোনো স্বৈরশাসক এভাবে ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারেনি। সেজন্য দেশের সব মানুষকে একত্রিত আন্দোলনের মাধ্যমে এই সরকারকে হঠাতে হবে।

বিএনপির দায়িত্ব সবচেয়ে বেশি উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিএনপি হলো সেই দল, যে দল শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। আমরা যদি দেশনেত্রীকে মুক্ত করতে চাই, দেশকে মুক্ত করতে চাই, তাহলে আমাদের সবাইকে ত্যাগ স্বীকার করে রাজপথের আন্দোলনে সোচ্চার হতে হবে।

স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, বিএনপি এখন আগের চেয়ে অনেক শক্তিশালী। আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়া কারাগার থেকে এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান লন্ডন থেকে দল পরিচালনা করছেন। আজকে আমাদের একটাই স্লোগান, ‘স্বৈরাচার হটাও, দেশ বাচাও’। ‘দেশের মানুষকে বাচাও, দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্ত করো’।

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, আজকে আমাদের একটাই দাবি- খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই। এই দাবি আদায় করতে হলে আমাদের রাজপথ দখল করতে হবে। আন্দোলন ছাড়া খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার কোনো পথ নেই।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, ভাইস চেয়ারম্যান শাহজাহান, আহমেদ আযম খান, সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, হাবিব উন নবী খান সোহেল, খায়রুল কবির খোকন, বিএনপি নেতা হাবিবুল ইসলাম হাবিব, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, আব্দুস সালা আজাদ, মীর সরাফত আলী সপু, ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৮ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০২, ২০১৯
এমএইচ/টিএ

রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে বাংলাদেশের জন্ম
দম ফেলার ফুসরত নেই সাভারের ফুল বিক্রেতাদের
১৬ ডিসেম্বর বাঙালির ইতিহাসে সর্বোচ্চ অর্জনের দিন
জাপার ভাইস চেয়ারম্যান নিগার সুলতানাকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা
ফ্যান কারখানায় নিহত প্রত্যেকের পরিবার পাচ্ছে ৫০ হাজার টাকা


ইবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি আখতার, সম্পাদক মোস্তাফিজ
এক হাজারের বেশি নারীর প্রোলেপস সারিয়েছেন ডা. শিরীন
ইউনাইটেডকে বাঁচালেন গ্রিনউড
বুড়িগঙ্গা দূষণমুক্ত করতে বিআইডব্লিউটিএর অভিযান
সিএমপির প্রতিটি থানায় হবে মুক্তিযোদ্ধা কর্নার