‘সরকারের সব সেক্টর আজ দুর্নীতিগ্রস্ত’

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ফুলবাড়ী ট্র্যাজেডি দিবস উপলক্ষে সমাবেশ। ছবি: বাংলানিউজ

walton

দিনাজপুর: ‘ফুলবাড়ী কয়লা খনি নিয়ে এখনও দেশে-বিদেশে নানাভাবে ষড়যন্ত্র চলছে। কয়লা খনি নিয়ে ভারত ও চীনের বিভিন্ন কোম্পানির ষড়যন্ত্র এখনও অব্যাহত রয়েছে। সরকারের সব সেক্টর আজ দুর্নীতিগ্রস্ত। দুর্নীতিবাজ ও ডাকাতেরা আজ দেশ চালাচ্ছে।’

সোমবার (২৬ আগস্ট) বেলা ১১টায় জেলার ফুলবাড়ী উপজেলার নিমতলা মোড়ে ফুলবাড়ী ট্র্যাজেডি দিবস উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তেল, গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ এ কথা বলেন। 

তিনি বলেন, ২০০৬ সালে বিএনপি-জামায়াতের নেতৃত্বাধীন চার দলীয় সরকার ফুলবাড়ীবাসীর সঙ্গে ছয় দফা চুক্তি করে। তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই ছয় দফা দাবি তথা ফুলবাড়ীবাসীর সঙ্গে একমত হয়ে কথা দিয়েছেন। সেই সময় ৬ দফা চুক্তির মূল কথা ছিল এশিয়া এনার্জিকে দেশ থেকে বের করা দেওয়া এবং এমনভাবে কয়লা খনি এখানে করা যাবে না যাতে মানুষের সম্পদ শেষ হয় বা ক্ষতি হয়। 

>>>আরও পড়ুন...ফুলবাড়ী দিবস: আজও বাস্তবায়ন হয়নি ৬ দফা চুক্তি

তিনি বলেন, আমরা জাতীয় কমিটি থেকে আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞদের নিয়ে গবেষণা করে দেখেছি যে, বাংলাদেশে যে কয়লা, গ্যাস, তেল সম্পদ রয়েছে তার চেয়ে আরও বেশি সম্পদ রয়েছে। সেই সম্পদ দিয়ে বাংলাদেশে বিদ্যুৎ সংকট দূর করা করা সম্ভব। বাংলাদেশে যে পরিমাণ মানুষ, পশু-পাখির বর্জ্য রয়েছে তার শক্তি দিয়ে বিদ্যুৎ সংকট দূর করা সম্ভব।

তিনি আরও বলেন, এশিয়া এনার্জি উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে ফুলবাড়ী আন্দোলনের নেতাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে। তা অবিলম্বে প্রত্যাহার করতে হবে। সরকারের মন্ত্রী বলেছেন এশিয়া এনার্জির সঙ্গে সরকারের কোনো চুক্তি হয়নি। তাহলে তারা কোন সাহসে ফুলবাড়ীবাসীর বিরুদ্ধে ১০০ কোটি টাকার মানহানি মামলা দায়ের করে। 

অবিলম্বে এশিয়া এনার্জিকে বহিষ্কার এবং তার দালালদের বিচার, ফুলবাড়ীবাসীর বিরুদ্ধে করা দুইটি মামলা প্রত্যাহার ও এশিয়া এনার্জির অফিস বন্ধ এবং তাদের অপতৎপরতা বন্ধসহ ফুলবাড়ীবাসীর সঙ্গে করা ছয় দফা চুক্তি বাস্তবায়ন করতে হবে। ২০০৬ সালের মতো ফুলবাড়ীসহ আশপাশের ছয়টি থানার মানুষদের এক সঙ্গে মাঠে নামতে হবে। প্রয়োজনে খনিতে রক্ষা করতে লড়াই করবো আমরা। আগামী অক্টোবর ও নভেম্বরে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করব। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের উদ্দেশে বিক্ষোভ মিছিল, দিনাজপুরমুখী পদযাত্রাসহ বিভিন্ন কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে জানান তিনি। 

সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন গণসংহতির সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি, জাতীয় গণফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কমিটির সমন্বয়ক টিপু বিশ্বাস, বাংলাদেশ ইউনাইটে কমিউনিস্ট লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য নজরুল ইসলাম, সিপিবির প্রেসিডিয়াম সদস্য শাহীন রহমান, বাসদ (মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় সদস্য শুভ্রাংশু চক্রবর্তী, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরোর সদস্য আনছার আলী দুলাল, ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য মোসাদ্দেক হোসেন লাবু প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৪১৪ ঘণ্টা, আগস্ট ২৬, ২০১৯
এনটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: দিনাজপুর
Nagad
সুরমার পানি কমলেও বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত
বগুড়া-১ আসনের উপ-নির্বাচনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছে ভোটগ্রহণ
এবার গবেষকদের বিরুদ্ধে মামলা করার হুমকি চীনের
হারিয়ে যেতে বসেছে পদ্মাবতীর ঐতিহ্যবাহী চামড়াশিল্প
রামেকে করোনা উপসর্গ নিয়ে বৃদ্ধের মৃত্যু


মাস্কাট থেকে ফিরলেন ২৫৪ বাংলাদেশি
পর্যটকদের জন্য খুললো ভূ-স্বর্গ কাশ্মীর
রাঙামাটিতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ২ শ্রমিকের মৃত্যু
ফ্যাসিবাদী গান গেয়ে বিতর্কিত জার্মান অধিনায়ক নয়্যার
করোনা: বগুড়ায় একদিনে সুস্থ ৫৯, শনাক্ত ৪৫