php glass

নৈতিক পরাজয় ঢাকতে আ’লীগের বিজয় উৎসব: ফখরুল

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

জিয়াউর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন মির্জা ফখরুল

walton

ঢাকা: ভোট ডাকাতি করে আওয়ামী লীগের যে নৈতিক পরাজয় হয়েছে তা থেকে মানুষের দৃষ্টিকে অন্যদিকে সরানোর জন্য বিজয় উৎসব পালন করা হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শনিবার (১৯ জানুয়ারি) বেলা ১১টায় দলটির প্রতিষ্ঠা জিয়াউর রহমানের ৮৩তম জন্মদিন উপলক্ষে তার সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, ৩০ ডিসেম্বর গণতন্ত্রের পরাজয় হয়েছে, সঙ্গে আওয়ামী লীগের সবচেয়ে বড় পরাজয় হয়েছে। কারণ, তারা জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ঐক্যফ্রন্ট আছে, থাকবে— আমাদের মাঝে কোনো টানাপোড়েন নেই।

তিনি বলেন, আজকে দুঃখের সাথে বলতে হচ্ছে, যিনি জাতিকে স্বাধীনতায় অনুপ্রাণিত করেছিলেন, যিনি স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন তার জন্মদিনে আওয়ামী লীগ  উৎসব পালন করতে যাচ্ছে। প্রকৃতপক্ষে আওয়ামী লীগের গণতন্ত্রের প্রতি কোনো শ্রদ্ধা নেই। তারা মুখে গণতন্ত্রের কথা বলে, কিন্তু বিশ্বাস করে না।

ফখরুল বলেন, আজকের এই দিনে আমরা শপথ নিয়েছি। গণতন্ত্রকে আমরা মুক্ত করবো। সর্বোপরি যিনি গণতন্ত্রের পতাকা ধরে আছেন, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া তাকেও মুক্ত করবো। তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনবো।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ড. আব্দুল মঈন খান, ভাইস-চেয়ারম্যান মো. শাজাহান, ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, আহমেদ আযম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, ডা. ফরহাদ হালিম ডোনারসহ যুবদল, ছাত্রদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, কৃষকদল, শ্রমিকদলের নেতাকর্মীরা।

বাংলাদেশ সময়: ১২১৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৯, ২০১৮
এমএইচ/এমজেএফ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট
চলচ্চিত্রকার আমজাদ হোসেনকে হারানোর এক বছর
বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
খুলনায় পাটকল শ্রমিকদের অনশন স্থগিত
১৪ ডিসেম্বর সিরাজগঞ্জ মুক্ত দিবস
সাভারে বিদেশি পিস্তলসহ ইউপি সদস্য আটক


রামুতে প্রজন্ম’৯৫ বৃত্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ
১৪ ডিসেম্বর হানাদার মুক্ত হয় জয়পুরহাট
বগুড়ার ধুনট হানাদার মুক্ত দিবস ১৪ ডিসেম্বর
বিয়ে করেছেন চলচ্চিত্র অভিনেত্রী মিতু
বাঙালিকে মেধাশূন্য করতেই বুদ্ধিজীবী হত্যা