খালেদা-গয়েশ্বরের বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারির আবেদন

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত

ঢাকা: মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর অবদান ও শহীদদের সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তিকর তথ্য দেওয়ায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আবেদন করা হয়েছে। 

php glass

বুধবার (১১ জুলাই) মামলার বাদী এবি সিদ্দিকী ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবু সাঈদের আদালতে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আবেদন করেন। 

আবেদন তিনি উল্লেখ করেন, গত ৯ জুলাই আদালতে দাখিল করা মামলাটির প্রতিবেদনে শাহবাগ থানার পুলিশ ইন্সপেক্টর জাফর আলী এজাহারে বর্ণিত ঘটনার সত্যতা পেয়েছেন মর্মে আসামিদের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন দাখিল করেছেন। তাই আসামিদের আদালতে হাজির করতে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হওয়া প্রয়োজন। 

বাদির আইনজীবী আবুল কালাম আজাদ জানান, ম্যাজিস্ট্রেট বাদির বক্তব্য শুনে এ বিষয়ে আদেশ পরে দেবেন বলে জানিয়েছেন। 

২০১৬ সালের ৫ জানুয়ারি ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে (সিএমএম) মামলাটি করেন জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এ বি সিদ্দিকী। 

মামলায় বলা হয়, ২০১৫ সালের ২১ ডিসেম্বর ইনস্টিটিউশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দল আয়োজিত এক আলোচনা সভায় খালেদা জিয়া বলেন, তিনি তো (বঙ্গবন্ধু) বাংলাদেশের স্বাধীনতা চাননি, তিনি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হতে চেয়েছিলেন। প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। আজকে বলা হয়, এতো শহীদ হয়েছে, এটা নিয়েও অনেক বিতর্ক আছে।

‘খালেদা জিয়ার ওই বক্তব্য পরদিন বিভিন্ন জাতীয় পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। যেহেতু ওই বক্তব্য বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের নিয়ে কটাক্ষ করে, স্বাধীনতা যুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর অবদান এবং ভূমিকাকে প্রশ্নবিদ্ধ করে। যা দণ্ডবিধি ৫০০ ধারার অপরাধ’।

বাংলাদেশ সময়: ১৪১০ ঘণ্টা, জুলাই ১১, ২০১৮
এমআই/এএ

‘মেসিকে জাতীয় দলে নেওয়ার সময় এটা নয়’
ভালোবাসায় স্মরণ কবি আবু জাফর ওবায়দুল্লাহকে
রাজবাড়ীতে ২ সেবা প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা
মাদারীপুরে ইসলামী মহাসম্মেলন অনুষ্ঠিত
সিআইইউতে ‘ব্যাংকারস হান্ট’


জবিতে ২ দিনব্যাপী সংগীত উৎসব শুরু বুধবার
জিডিপিতে শেয়ার বাজারের অবদান ৪০ শতাংশ হওয়া উচিৎ
ইবিতে র‍্যাগিং, ৫ শিক্ষার্থী বহিষ্কার 
জাবিতে জলসিঁড়ির নতুন কমিটি
জাল ভোট দিয়ে উল্টো কারচুপির অভিযোগ সেই প্রার্থীর