ইলিয়াস আলীর অপেক্ষায় টানা ৬ বছর! 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

নিখোঁজ বিএনপি নেতা এম ইলিয়াস আলী। ফাইল ফটো

সিলেট: বিএনপির রাজনীতিতে আলোচিত-সমালোচিত নাম এম ইলিয়াস আলী। তার নেতৃত্বে সরগরম ছিলো সিলেটে বিএনপির রাজনীতি। সভা-সমাবেশে সরকার, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও রাজনীতিকদের সমালোচক হিসেবে নিন্দিত-নন্দিত ছিলেন তিনি। 

সভাপতির পদে থাকাকালীন সিলেট বিএনপিতে মেরুকরণ থাকলেও তার হুঙ্কারে নেতাকর্মীরা ছিলেন একই ছাতার নীচে। নিজের নানা কর্মকান্ডের কারণে সাবেক এই সংসদ সদস্য লোকসমাজে বেশ সমালোচিতও ছিলেন।  

বিএনপির সাবেক কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা সভাপতি এম ইলিয়াস আলীর নিখোঁজ হওয়ার ৬ বছর পূর্ণ হলো ১৭ এপ্রিল মঙ্গলবার। এতো বছর পেরিয়ে গেলেও এখনো তার জন্য অপেক্ষায় প্রহর গুনছেন নেতাকর্মীরা। তিনি ফিরে আসবেন এখনো এমন আশায় বুক বেধে আছেন তার অনুসারী নেতাকর্মীরা।

 প্রতিবছর ১৭ এপ্রিল তারিখটা এলেই তাঁর জন্য আয়োজন করা হয় দোয়া মাহফিলের। তাঁকে আঁকড়ে আছে সিলেট বিএনপির অংশ। প্রতিটি কর্মসূচির ব্যানারেও সংযুক্ত থাকে তাঁর ছবি। 

ছেলের জন্য এখনো কেঁদে বুক ভাসান ইলিয়াস আলীর মা সত্তরোর্ধ্ব সূর্যবান বিবি। প্রিয় মানুষটির জন্য পথ চেয়ে আছেন স্ত্রী তাহসিনা রুশদির লুনা ও সন্তানরা। 

কিন্তু গত ছয় বছরেও ফিরে এলেন না নিখোঁজ বিএনপি নেতা ইলিয়াস আলী। তিনি বেঁচে আছেন কি-না তা নিয়েও সন্দিহান নেতাকর্মী ও স্বজনরা।

এ ব্যাপারে বিএনপির কেন্দ্রীয় ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সাবেক তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ও সাবেক সহ-সভাপতি এবং ইলিয়াস-মুক্তি ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের আহবায়ক আব্দুল আহাদ খান জামাল বাংলানিউজকে বলেন, এম ইলিয়াস আলীর নিখোঁজ হওয়ার ঘটনাটি নিছক ঘটনা নয়, এটা রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস। 

ইলিয়াস আলী রাষ্ট্রের হেফাজতে আছেন মনে করেন তার পরিবার ও নেতাকর্মীরা। তাই গুম নামের কারাগার থেকে ফিরিয়ে আনতে তারা আন্দোলন সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছেন। 

এদিকে, মঙ্গলবার দুপুর ১২ টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদমিনারে ইলিয়াস আলীকে ফিরে পেতে মানববন্ধন করে স্বেচ্ছাসেবক দল, ছাত্রদল ও ইলিয়াস মুক্তিসংগ্রাম পরিষদ। এরপর বাদ যোহর সিলেট হযরত শাহজালাল (র.) দরগাহ মাজার মসজিদে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন সিলেট মহানগর স্বেচ্ছাসেবকদলের আহবায়ক কাউন্সিলর ফরহাদ চৌধুরী শামীম।

২০১২ সালের ১৭ এপ্রিল রাতে আড্ডা শেষে বাসায় ফেরার পথে রাজধানীর রূপসী বাংলা (সাবেক শেরাটন) হোটেলের সামনে থেকে নিখোঁজ হন এম ইলিয়াস আলী। পুলিশ তার ব্যবহৃত গাড়িটি ঘটনাস্থল থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে। আজ পর্যন্ত তিনি নিখোঁজই রয়েছেন। 

ইলিয়াস আলীকে সরকারই গুম করে রেখেছে দাবি সিলেট বিএনপির নেতৃবৃন্দের। তাকে ফিরে পেতে সিলেটে আন্দোলন সংগ্রাম করে প্রাণ ঝরেছে কর্মী সমর্থকদের। চার মামলায় আসামি হয়েছেন সহস্রাধিক নেতাকর্মী। এখনো সে মামলার ঘানি টানছেন তারা। তবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে  সব তীব্রতা  মিইয়ে আসতে থাকে । ইলিয়াস আলীকে ফিরে পাওয়ার দাবির আন্দোলনও ক্রমশ স্থিমিত হচ্ছে এখন। 

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩৩ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৭, ২০১৮
এনইউ/জেএম

দৃঢ় মনোবলে লড়বে বসুন্ধরা কিংস 
লাইনচ্যুত বগি উদ্ধারে গড়াবে সকাল, আটকে আছে ৪ ট্রেন 
ঘোড়া মারার প্রতিশোধে কুমির হত্যা করলেন মেয়র!
বেসরকারি হাসপাতালে শুধু ব্যবসা নয়, দায়বদ্ধতাও জড়িত
 আজ পবিত্র আশুরা
ছয় মন্ত্রী ও ৪৬ আসন চান রওশান 
যৌন হয়রানি প্রতিরোধে আইন করা দরকার
রাজৈরে পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু
‘দক্ষিণ এশিয়া নিয়ে গবেষণায় আগ্রহ বাড়ছে’
ফেঞ্চুগঞ্জে রাস্তায় গাছ ফেলে যানবাহনে ডাকাতি