সদ্য ঘোষিত কমিটি বাতিলের দাবিতে ছাত্রলীগের মহাসড়ক অবরোধ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সদ্য ঘোষিত কমিটি বাতিলের দাবিতে ছাত্রলীগের মহাসড়ক অবরোধ

বরগুনা: সদ্য ঘোষিত বরগুনার দু’টি উপজেলা ও ১০টি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটি বাতিলের দাবিতে ঢাকা-কুয়াকাটা মহাসড়ক অবরোধ করেছেন ছাত্রলীগের পাঁচ শতাধিক নেতাকর্মী। এসময় তারা ৭টি গাড়ি ভাঙচুর ও টায়ারে অগ্নিসংযোগ করেন।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশের লাঠিচার্জে ছাত্রলীগের কয়েকজন কর্মী আহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

শুক্রবার (১৩ এপ্রিল) দুপুর ১টা থেকে ঢাকা-কুয়াকাটা মহাসড়কে অবস্থান নেয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মী। এরপর বিকেল ৩টার দিকে আমতলী উপজেলার চৌরাস্তা এলাকায় ঢাকা-কুয়াকাটা মহাসড়ক অবরোধ করেন ছাত্রলীগ কর্মীরা। ফলে যান চলাচল বন্ধ হয়ে সড়কের দুই পাশে যানজট সৃষ্টি হয়।

অবরোধ চলাকালীন আমতলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মতিয়ার রহমান ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ছাত্রলীগ কর্মীদের অবরোধ প্রত্যাহার করার অনুরোধ জানান। এসময় ছাত্রলীগ কর্মীরা অবরোধ প্রত্যাহার করে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আমতলী ও তালতলী উপজেলাসহ বরগুনা সদর উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের কমিটি প্রত্যাহারের দাবি জানান।

এসময় তারা অভিযোগ করে বলেন, বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জুবায়ের আদনান অনিক ও সাধারণ সম্পাদক তানভীর হোসাইন আমতলী উপজেলা শাখা, তালতলী উপজেলা শাখা ও বরগুনা সদর উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের ছাত্রলীগের কমিটি গঠন করে। কমিটি গঠন প্রক্রিয়ায় গঠনতান্ত্রিক কোনো প্রক্রিয়া অনুসরণ না করে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে প্রকৃত ছাত্রলীগ কর্মীদের কোণঠাসা করে জামায়াত-বিএনপি পরিবার থেকে আসা সদস্যদের নিয়ে কমিটি গঠন করে। তাই আমরা এসব কমিটি প্রত্যাখান করছি। সেইসঙ্গে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি/সম্পাদক কর্তৃক জামায়াত-বিএনপিকে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে প্রতিষ্ঠিত করার অপচেষ্টার তীব্র নিন্দা ও ঘৃণা জানাই।

এসময় তারা আরো বলেন, সদ্য ঘোষিত আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগের নব গঠিত কমিটির সভাপতি মো. মাহাবুবুল ইসলাম ৫ কেজি গাঁজাসহ র‌্যাবের হাতে আটক হয়ে দীর্ঘদিন জেলহাজতে ছিলেন। একজন মাদক ব্যবসায়ী কী করে ছাত্রলীগের মতো একটা ঐতিহ্যবাহী সংগঠনের সভাপতি হয় সেটা আমাদের বোধগম্য নয়। সেইসঙ্গে তালতলী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. সরোয়ার হোসেন স্বপনের বাবা বেলায়েত হোসেন পনু জোমাদ্দার তালতলী থানা বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি ছিলেন। সভাপতির আপন মামাতো ভাই সবুজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হত্যাচেষ্টা মামলার অন্যতম আসামি। আপন ফুফাতো ভাই তালতলী উপজেলা জামায়াতের নেতা।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সহিদ উল্লাহ বাংলানিউজকে জানান, থানা পুলিশ ছাত্রলীগের কোনো নেতাকর্মীকে লাঠিচার্জ করেনি। তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে তাদের ধাওয়া করে। এসময় হয়তো তারা আহত হতে পারে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২৮ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৩, ২০১৮
আরএ

পুঠিয়ায় থেমে থাকা বালুর ট্রাককে নৈশকোচের ধাক্কা, নিহত ৩
কোটি টাকার কুইজ শো ‘বাংলাদেশ জিজ্ঞাসা’ 
খুলনায় সড়ক দুর্ঘটনায় দুই সহোদরের মৃত্যু
‘আমার আত্মবিশ্বাস আছে, কারো লেখা পড়ে শিখতে হবে না’  
রশিদের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে বাংলাদেশের হার
অস্ত্রধারী সেই ছাত্রলীগ নেতা আটক
‘নাতির জন্য বারবার মোবাইলে পিন কোড পরিবর্তন করতে হয়’
দলীয় ১শ’ রানে মিরাজের বিদায়
রহস্য গল্পকার স্টিফেন কিং-এর জন্ম
রশিদের ঘূর্ণিতে বিপর্যয়ে বাংলাদেশ