php glass

পৌর নির্বাচন

একক প্রার্থী নিশ্চিতের সর্বোচ্চ চেষ্টায় আ’লীগের হাইকমান্ড

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: সংগৃহীত

walton
আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে একক প্রার্থী নিশ্চিত করতে সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছে আওয়ামী লীগের হাইকমান্ড। একক প্রার্থী চূড়ান্ত করতে সোমবার (৩০ নভেম্বর) গণভবনে প্রধানমন্ত্রী ও দলের সভাপতি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নীতি-নির্ধারণী পর্যায় গভীর রাত অবধি বৈঠক করে।

ঢাকা: আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে একক প্রার্থী নিশ্চিত করতে সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছে আওয়ামী লীগের হাইকমান্ড। একক প্রার্থী চূড়ান্ত করতে সোমবার (৩০ নভেম্বর) গণভবনে প্রধানমন্ত্রী ও দলের সভাপতি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নীতি-নির্ধারণী পর্যায় গভীর রাত অবধি বৈঠক করে। মঙ্গলবার (১ ডিসেম্বর) বিকেলে সংবাদ সম্মেলন করে মনোনীত প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করা হবে।

সোমবারের বৈঠক সূত্র জানায়, মঙ্গলবার যে একক প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হবে, তার পক্ষে সবাইকে কাজ করার নির্দেশনা দিয়ে দলের সভাপতি শেখ হাসিনা চিঠি দেবেন। যারা দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে নির্বাচন করবেন, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হওয়ায় পৌরসভা নির্বাচনকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে আওয়ামী লীগ। দল ও সরকারের ভাবমূর্তি রক্ষার জন্য এ নির্বাচনে ভালো ফলাফলকে গুরুত্বপূর্ণ মনে করছেন আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা। তাই সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে একক প্রার্থিতার ওপর।

গত ২৬ নভেম্বর সভা করে আওয়ামী লীগের কার্য নির্বাহী সংসদ ও দলের সংসদীয় বোর্ড। সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তৃণমূল আওয়ামী লীগকে একক প্রার্থী নিশ্চিত করে নাম পাঠাতে বলা হয়। কিন্তু ২৩৪টি পৌরসভার মধ্যে অধিকাংশ পৌরসভায়ই একক প্রার্থী নিশ্চিত করতে পারেনি তৃণমূল। বেশির ভাগ পৌরসভায় দুই থেকে ছয়জন প্রার্থীর তালিকা পাঠিয়েছে জেলা আওয়ামী লীগ।

সূত্র জানায়, অনেক ক্ষেত্রে যোগ্য প্রার্থীদের বাদ দিয়ে তৃতীয় বা চতুর্থ অবস্থানে থাকা প্রার্থীর নামও পাঠানো হয়েছে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা তাদের আত্মীয়-স্বজন কিংবা সুবিধাজনক কারও নামও একক প্রার্থী হিসেবে কেন্দ্রে পাঠিয়েছেন।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ের এক নেতা বাংলানিউজকে বলেন, ৩০-৩৫ শতাংশ পৌরসভায় একক প্রার্থী পাওয়া গেছে। অধিকাংশ ক্ষেত্রে প্রার্থী ২ থেকে ৬ জন। যেসব পৌরসভার জন্য একক প্রার্থীর নাম পাঠানো হয়েছে সেগুলোর অনেকগুলোয় আবার যৌগ্য প্রার্থীর নামও পাঠানো হয়নি।

অসংগতি দূর করে যোগ্য প্রার্থীদের পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে বাছাইয়ের পাশাপাশি একক প্রার্থী নিশ্চিত করতে সোমবার সন্ধ্যায় গণভবনে সভায় বসে দলের স্থানীর সরকার/পৌরসভা নির্বাচন মনোনয়ন বোর্ড। আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে এ সভা সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হয়। ১৮ সদস্যের এ বোর্ডের সভা মাঝে খাবারের জন্য খানিক বিরতি দিয়ে চলে রাত সাড়ে ১১টা পর্যন্ত।

বৈঠকে পুঙ্খানুপুঙ্খ বিশ্লেষণ করে চূড়ান্ত করা হয় আওয়ামী লীগের প্রার্থী তালিকা। প্রার্থী বাছাইয়ের ক্ষেত্রে স্থানীয় আওয়ামী লীগের সুপারিশের সঙ্গে দলের সভাপতির নিজস্ব জরিপের ফলাফল মিলিয়ে দেখা হয়। এক্ষেত্রে প্রার্থীর জনপ্রিয়তা, সাংগঠনিক দক্ষতা, দলের প্রতি ত্যাগ, দলের মধ্যে প্রভাব ইত্যাদি বিষয় বিবেচনা করা হয়। প্রার্থীদের সর্ম্পকে তথ্য জানতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা দলের পাশাপাশি কয়েকটি সংস্থার মাধ্যমে জরিপ চালান।

সূত্র জানায়, সোমবারের সভায় প্রার্থীদের নাম চূড়ান্ত করার ক্ষেত্রে হাইকমান্ড থেকে সিদ্ধান্ত মেনে নেওয়ার বিষয়ে আলোচনা হয়। একইসঙ্গে সবাই যেন ঘোষিত প্রার্থীর জন্য কাজ করে সেজন্য দলের সভাপতির পক্ষ থেকে চিঠি দেওয়ার সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়। যারা দলের হাইকমান্ডের সিদ্ধান্ত অমান্য করে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করবে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর সাংগঠনিক শাস্তি নেওয়ার বিষয়েও আলোচনা হয় সভায়।

সভার সিদ্ধান্ত অনুসারে মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলন করে প্রার্থীদের নাম ঘোষণার বিষয়টি বাংলানিউজকে জানান আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ।

এদিকে, সভার বিরতিতে আওয়ামী লীগের আরেক যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক সাংবাদিকদের জানান, সোমবার রাতের মধ্যেই পৌরসভার একক প্রার্থী চূড়ান্ত করে মঙ্গলবার তা ঘোষণা করা হবে।

নির্বাচন কমিশনের তফসিল অনুযায়ী, আগামী ৩০ ডিসেম্বর ২৩৪টি পৌরসভায় একযোগে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশ সময়: ০২৩২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০১, ২০১৫
এমইউএম/এইচএ/

ঘটছে দুর্ঘটনা, তবুও উল্টো পথে চলছে গাড়ি
কাতারকে হারিয়ে গালফ কাপের ফাইনালে সৌদি আরব
লন্ডনের বাতাসে নিশ্বাস ১৬০টি সিগারেট গ্রহণের সমান!
আড়াইহাজারে দেশীয় অস্ত্রসহ ৫ ডাকাত আটক
কাউখালীতে খামারে আগুন, ২ হাজার মুরগি পুড়ে ছাই


হাই হিল জুতায় হতে পারে যেসব ক্ষতি
বিকল্প শক্তি গড়তে সাংস্কৃতিক কর্মীদের এগিয়ে আসতে হবে
‘সরকার দেখে না, আর গিরস্থি করতাম না’
ফাওয়াদ আমলা না কী ফাওয়াদ আলম?
কাতারে বাংলাদেশি হাফেজদের কৃতিত্বপূর্ণ সাফল্য