php glass

টেলিভিশনের অনলাইন

আফগানিস্তানের চেয়েও পিছিয়ে বিটিভি

4805 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে বর্তমান সরকার এবং তাদের গত সরকার মিলিয়ে ক্ষমতার মেয়াদ এরইমধ্যে সাত বছরের পথ অতিক্রম করছে। এই সরকারের চেয়ে বড় সাফল্য প্রযুক্তি খাতে।

আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে বর্তমান সরকার এবং তাদের গত সরকার মিলিয়ে ক্ষমতার মেয়াদ এরইমধ্যে সাত বছরের পথ অতিক্রম করছে।

এই সরকারের সবচেয়ে বড় সাফল্য প্রযুক্তি খাতে। ডিজিটাল শব্দটি নিয়ে, এক সময় এক ধরনের ধোঁয়াশা থাকলেও বর্তমানে এই শব্দের ভাবার্থ নাগরিকদের কাছে দৃশ্যমান। ডিজিটাল বলতে মানুষ মনে করছে, সকল সেবার ইন্টারনেট নির্ভর সেবা। এক্ষেত্রে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি খাতেও প্রচুর বিনিয়োগ ও উদ্যোগ পরিলক্ষিত হয়েছে। সরকারের এই সাফল্য প্রচারে প্রতিনিয়ত নানা অনুষ্ঠান ও সংবাদ প্রচার করে চলছে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন বিটিভি। কিন্তু এই প্রতিষ্ঠানটিতে কি প্রযুক্তির ছোঁয়া লেগেছে?

বিটিভি কতোটা ডিজিটাল হয়েছে তা বুঝতে হলে আপনাকে একবার এই প্রতিষ্ঠানটির ওয়েব সাইট ঘুরে আসতে হবে। গুগলে সার্চ দিয়ে খুঁজে পেতে কিছুটা জটিলতার সম্মুখীন হতে পারেন, তাই আপনার স্বার্থে বিটিভির ওয়েব ঠিকানাটি তুলে দিলাম- http://192.185.168.156/~btvgov/index.php?option=com_content&view=frontpage&Itemid=1 (বিশ্বাস অবিশ্বাস আপনার ব্যাপার, এই রহস্যজনক ইউআরএলটি কিন্তু বিটিভির)। বিটিভির ওয়েব সাইটে গেলে আপনি কি পাবেন! কিছুই না। বাজার থেকে কোন প্রসাধনী পণ্য কেনার পর তার পেছনে নানা উপকরণ যেভাবে লেখা থাকে, ঠিক ওরকম এক অনুষ্ঠান ফর্দ ছাড়া কিছুই পাবেন না।

বিটিভির ওয়েব সেবা দক্ষিণ এশিয়ার সকল দেশের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেলের তুলনায় অত্যন্ত নাজুক। এমনকি যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানের চেয়েও। মালদ্বীপও এগিয়ে আছে বাংলাদেশের তুলনায়। একটু ঢুঁ মারলেই বুঝা যাবে কার অবস্থা কী? – ভারত (দূরদর্শন)-www.ddindia.gov.in পাকিস্তান (পিটিভি)-http://www.ptv.com.pk শ্রীলংঙ্কা (রূপাভাহিনি)- http://www.rupavahini.lk ভূটান (বিবিএস)-http://www.bbs.bt নেপাল (নেপাল টেলিভিশন)- http://www.ntv.org.np আফগানিস্তান (আরটিএ)-www.rta.org.af মালদ্বীপ (এমবিসি )- www.mbc.mv/news.

বিটিভির কেন এই অবস্থা এটা ওই প্রতিষ্ঠান ভালো বলতে পারবে। তবে কি করা যেতে পারে সে বিষয়ে কয়েক কথা বলা প্রয়োজন। যেহেতু- বিটিভি রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান এবং বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থাও (বাসস) রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান, সেজন্য এই দুই প্রতিষ্ঠানের মধ্যে একটি চুক্তি হতে পারে। যার ফলে বিটিভি তাদের অনলাইনে বাসসের সংবাদ ব্যবহার করে অনলাইন সেবাটি সক্রিয় রাখতে পারে। এই চুক্তি করে বাসসের সংবাদ ব্যবহার করলে বিটিভির বর্তমান যে চরিত্র তাতে কোন সমস্যা তৈরি হবার কথা নয়।

বিটিভি অনলাইন সেবা যুগোপযোগী করার জন্য একটি তারুণ্য নির্ভর টিম গঠন করতে পারে। সেক্ষেত্রে, বিটিভির ভেতর থেকেও কিছু তরুণ উদ্যোমী কর্মীকে (যদি থাকে) অনলাইনে সংযুক্ত করে এবং নতুন করে প্রযুক্তি বিষয়ক জানাশোনা ভালো এমন কিছু কর্মী নিয়োগ দিতে পারে।

বিটিভির প্রসঙ্গের বাইরে এসে খুব ছোট করে বেসরকারি টেলিভিশনগুলোর অনলাইন সম্পর্কে একটু বলা প্রয়োজন। বেসরকারি টেলিভিশনগুলো সম্প্রতি অনলাইনকে গুরুত্ব দিতে শুরু করেছে যার মধ্যে, দেশ টিভি, এনটিভি, সময়, চ্যানেল টোয়েন্টিফোর, ইন্ডিপেন্ডেন্ট ও চ্যানেল আই তুলনামূলকভাবে এগিয়ে আছে।

বাংলাদেশের টেলিভিশন চ্যানেলগুলোর অনলাইন সেবা কেমন তার একটি তুলনামূল চিত্র –
এটিএন বাংলা (www.atnbangla.tv)- নামকাওয়াস্তে একটি ওয়েব সাইট আছে এটিএন বাংলার।

এটিএন নিউজ (www.atnnewstv.com)- কতগুলো ভিডিও ফুটেজের বাইরে কিছু নেই।

চ্যানেল আই (www.channel-i-tv.com) থেকে সম্প্রতি www.channelionline.com) ঠিকানায় স্থানান্তরিত হয়ে একটি সক্রিয় নিউজ পোর্টাল চালু করেছে।

একুশে টেলিভিশন (http://ekushey-tv.com)-সম্প্রতি একটি পরিচ্ছন্ন সাইট তৈরি করলেও সংবাদ আপলোড খুবই ধীর গতিতে হয়।

এনটিভি (www.ntvbd.com)- অন্য টিভি চ্যানেলগুলোর তুলনায় এর অবস্থা বেশ ভালো।

আরটিভি (www.rtvonline.com) কিছু ভিডিও ফুটেজের বাইরে কিছু নেই।

বাংলাভিশন (http://banglavision.tv)- মোটামুটি পরিচ্ছন্ন একটি সাইট আছে তবে শ্লো আপডেট।

বৈশাখী টিভি (http://www.boishakhi.tv)- একটা ওয়েব সাইট থাকা লাগে তাই আছে।

দেশ টিভি (http://www.desh.tv/news)- দেশ টিভির ওয়েব সাইট সব চেয়ে পুরনো এবং সক্রিয়। বাংলাদেশে টিভি চ্যানেলের ওয়েব সেবা ধারণাটিই এসেছে দেশ টিভির হাত ধরে। তবে সম্প্রতি দেশ টিভির ওয়েব সাইট কিছুটা শ্লো।

মোহনা টেলিভিশন (www.mohonatv.com)- নাই মামার চেয়ে কানা মামা ভালো।

চ্যানেল নাইন (www.channelninebd.tv)- কষ্ট করে ডোমেইন হোস্টিং কেনা ছাড়া কিছুই করেনি।

ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন (http://independent24.tv)- বেশ পরিচ্ছন্ন, সচল একটি ওয়েব সাইট আছে ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের।

সময়টিভি (http://somoynews.tv)- খুবই সক্রিয় এবং প্রফেশনাল ওয়েব সাইট।

মাই টিভি (www.mytvbd.tv)- একটা ওয়েব সাইট ছিলো, এখন আর নেই।

মাছরাঙ্গা টিভি (www.maasranga.tv)- প্রসাধনী পণ্যের গুনাগুনের তালিকার মতো একটা ওয়েব সাইট আছে মাছরাঙ্গার।

জিটিভি (www.gazitv.com)- নিজেদের প্রোগ্রাম সিডিউল ছাড়া কিছু নেই।

একাত্তর টিভি (www.ekattor.tv)- শুরুর দিকে একটি সক্রিয় সাইট থাকলেও এখন আর তা নেই।

চ্যানেল টোয়েন্টিফোর (www.channel24bd.tv)- খুবই সক্রিয় এবং প্রফেশনাল একটি ওয়েব সাইট আছে এই চ্যানেলটির।

এশিয়ান টিভি (www.asiantvbd.tv) - এশিয়ান টিভির এই ঠিকানাটি থাকলেও সার্ভার নট ফাউন্ড।

এসএ টিভি (http://satvbd.tv)- এই টিভির মোটামুটি মাপের একটি ওয়েব সাইট আছে। তবে সংস্কার কাজ চলছে বলে জানা গেছে।

যমুনা টিভি (www.jamunatv.net)- যমুনা অতি সম্প্রতি একটি পরিচ্ছন্ন সাইট নিয়ে যাত্রা শুরু করেছে।

লেখক: গণমাধ্যম কর্মী; [email protected]

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫১ ঘণ্টা, জুন ৬, ২০১৫
জেডএম/

প্রিয়া সাহার অভিযোগ নিশ্চয়ই চক্রান্ত: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
উপজেলা নির্বাচনে বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে কঠোর আ’লীগ
নীল আর্মস্ট্রং প্রথম চাঁদে পা রাখেন
লন্ডন পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী
প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে মামলা করবেন ব্যারিস্টার সুমন


প্রিয়া সাহার অভিযোগ সঠিক নয়: মার্কিন রাষ্ট্রদূত
মাশরাফি-সাইফউদ্দিনের ইনজুরিতে কপাল খুললো ফরহাদ-তাসকিনের
আউটার রিং রোড পরিদর্শনে মেয়র নাছির ও দোভাষ
৫৫ হাজার রিয়েলসহ হজ কাফেলার কর্মকর্তার ব্যাগ চুরি
বন্যার কারণে কারিগরি বোর্ডের ৩ পরীক্ষা স্থগিত