php glass

জান্নাতি খেজুর ‘আজওয়া’তে রোগের প্রতিষেধক

ইসলাম ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: সংগৃহীত

walton

ছোট ছোট খেজুর। ওপরে কালো রঙের আস্তরণ। দেখতে অনেকটা জামের মতো। কিন্তু অত্যন্ত সুস্বাদু ও মানসম্পন্ন। আজওয়া নামের এ খেজুর মদিনার উত্কৃষ্টতম খেজুর। পবিত্র হাদিস শরিফে খেজুরটির গুরুত্ব বর্ণনা করা হয়েছে। জান্নাতের ফল বলে আখ্যা দেওয়া হয়েছে।

আবু হুরাইরা (রা.) বর্ণিত হাদিসে রাসুল (সা.) বলেছেন, ‘আজওয়া জান্নাতের, এতে বিষক্রিয়ার প্রতিষেধক রয়েছে...।’ (তিরমিজি, হাদিস নং: ২০৬৬)

আজওয়া খেজুর রাসুল (সা.)-এর প্রিয় ফল ছিল। আজওয়ার উপকারিতা ও গুরুত্ব অপরিসীম। রাসুল (সা.) বলেন, ‘যে ব্যক্তি প্রতিদিন সকালবেলা সাতটি আজওয়া (উত্কৃষ্ট) খেজুর খাবে, সেদিন কোনো বিষ ও জাদু তার ক্ষতি করবে না।’ (বুখারি, হাদিস নং: ৫৪৪৫)

এটি হৃদরোগে আক্রান্তদের জন্য মহা উপকারী। হাদিসের বর্ণনায় এটা বোঝা যায়। রাসুল (সা.) তার এক সাহাবিকে হৃদরোগের জন্য আজওয়া খেজুরের তৈরি ওষুধ খেতে পরামর্শ দিয়েছেন।

সাদ (রা.) বর্ণনা করেন, একবার আমি অসুস্থ হলে রাসুল (সা.) আমাকে দেখতে আসেন। এ সময় তিনি তার হাত আমার বুকের ওপর রাখেন। আমি তার শীতলতা আমার হৃদয়ে অনুভব করি। এরপর তিনি বলেন, তুমি হৃদরোগে আক্রান্ত। কাজেই তুমি সাকিফ গোত্রের অধিবাসী হারিসা ইবনে কালদার কাছে যাও। কেননা সে একজন অভিজ্ঞ চিকিৎসক। আর সে যেন মদিনার আজওয়া খেজুরের সাতটা খেজুর নিয়ে বিচিসহ চূর্ণ করে তোমার জন্য তা দিয়ে সাতটি বড়ি তৈরি করে দেয়।’ (আবু দাউদ, হাদিস নং : ৩৮৩৫)

রমজানবিষয়ক যেকোনো লেখা আপনিও দিতে পারেন। লেখা পাঠাতে মেইল করুন: [email protected]

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৫ ঘন্টা, মে ১৯, ২০১৯
এমএমইউ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: রমজান
অন্তঃস্বত্তা স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর ফাঁসি
২১ নভেম্বর শুরু বাপা ফুডপ্রো ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো
বাড়িতে মজুদ ৭ হাজার কেজি লবণ, আটক ৪ 
চালের দাম বেড়েছে মাগুরায়
প্রথম দুই সেশন স্পিনারদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ: ভেট্টরি


যুক্তরাষ্ট্রের কমিউনিটি কলেজে আবেদনের শেষ সময় ২১ নভেম্বর
ধর্ষণ মামলা থেকে অব্যাহতি পেলেন জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ
খাসিয়াদের ভূমি সুরক্ষা দিতে হবে: খুশি কবীর
রাজধানী সুপার মার্কেটে ভয়াবহ আগুন, নিয়ন্ত্রণে ২২ ইউনিট
রাজাপুরে অজ্ঞাতপরিচয় নারীর মরদেহ উদ্ধার