php glass

বিনা পারিশ্রমিকে তারাবি পড়ান জামেয়া রশিদিয়ার ১৩শ’ হাফেজ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

জামেয়া রশিদিয়ার ১৩’শ হাফেজ তারাবি পড়ান বিনা পারিশ্রমিকে

walton

ফেনী: কোনো ধরনের বেতন-ভাতা ও পারিশ্রমিক ছাড়াই তরাবির নামাজ পড়াচ্ছেন ফেনীর এত্যিহ্যবাহী ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান জামেয়া রশিদিয়া মাদ্রাসার ১৩’শ হাফেজ। তারা সবাই এ মাদ্রাসার বিভিন্ন শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

মাদ্রাসাটির প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ  মুফতি মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ বাংলানিউজকে বলেন, রমজান মাস উপলক্ষে প্রতি বছরের মতো এবারও  ফেনীর ও আশ পাশের জেলার ৬ শতাধিক মসজিদে কোনো রকম বেতন-ভাতা ছাড়া বিনামূল্যে খতম তারাবির নামাজ পড়াচ্ছেন ফেনীর জামেয়া রশীদিয়া মাদ্রাসার ১৩’শ হাফেজ শিক্ষার্থী । 

রশিদিয়া মাদ্রাসার ছাত্ররা কোরআন তেলাওয়াত করছেন।

মুফতি শহীদুল্লাহ বাংলানিউজকে আরো বলেন, ছাত্ররা তাদের প্রশিক্ষণের অংশ হিসেবে খতম তারাবির নামাজ পড়ান। ফেনী, কুমিল্লা, নোয়াখালীও চাঁদপুরে অবস্থিত প্রায় ৬ শতাধিক মসজিদে (প্রতি মসজিদে ২ জন করে) প্রায় ১৩ শ জন হাফেজ নির্ভুলভাবে নামাজ পড়ান।

রশিদিয়া মাদ্রাসার দৃশ্য। ছবি: বাংলানিউজ

মাদ্রাসার শিক্ষক মাওলানা আবদুল হাই বাংলানিউজকে জানান, ফেনী সদর উপজেলার লস্করহাট জামেয়া রশিদীয়া মাদ্রাসা ১৯৯৪ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। বর্তমানে ৭ একর এলাকায় অবস্থিত এ মাদ্রাসাটির মোট ছাত্র ৪ হাজার ৮’শ ১৫ জন, এর মধ্যে আবাসিক ছাত্র ৩ হাজার ৯’শ জন। শিক্ষক রয়েছেন ১’শ ১৫ জন, অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছেন ১৬ জন, বাবুর্চি ২১ জন।

কেউ অর্থের বিনিময়ে খতম তারাবির নামাজ পড়ালে তার বিরুদ্ধে মাদ্রাসার নিয়ম অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হয়। নামাজে উৎসাহ দেওয়ার জন্য বিনা পারিশ্রমিকে এ সেবা দেওয়া হয়।

রমজানবিষয়ক যেকোনো লেখা আপনিও দিতে পারেন। লেখা পাঠাতে মেইল করুন: [email protected]

বাংলাদেশ সময়: ১৯২৪ ঘণ্টা, মে ১২, ২০১৯
এসএইচডি/এমএমইউ

বেনাপোল সীমান্তে পাচারকারীসহ আটক ৫৪
রোহিঙ্গা সমস্যা মীমাংসায় বিশ্বাসী বাংলাদেশ
রেল আইন যুগোপযোগী করা হবে: রেলমন্ত্রী
বগুড়ায় ফেনসিডিল ও ইয়াবাসহ ৩ মাদকবিক্রেতা আটক
চালকের মুখে অবরোধকারীদের পোড়া মবিল


ধর্মঘটে বাস কম ঢাকায়, চরম ভোগান্তি
রিজার্ভ চুরির প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ পেছালো
রিফাত হত্যা: ১০ আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন ২৮ নভেম্বর
ফখরুলসহ ৩ নেতার গ্রেফতারি পরোয়ানার আদেশ ফের পেছালো
নেইমারের বিনিময়ে ফাতিকে চায় পিএসজি!