দীর্ঘপথ হাঁটেন শুনে রেস্তোরাঁকর্মীকে গাড়ি উপহার কাস্টমারের

অফবিট ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

উপহার পাওয়া গাড়ির পাশে আদ্রিয়ানা। ছবি: সংগৃহীত

walton

কিছুতেই ঘোর কাটছে না আদ্রিয়ানার। মাত্র কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানেই বদলে গেছে তার জীবন। যে সকালে কয়েক ঘণ্টা হেঁটে কর্মস্থলে এসেছিলেন, সেই রাতেই বাড়ি ফিরেছেন নিজের গাড়িতে চেপে। স্বপ্নটা যেন একদিনেই সত্যি হয়ে ধরা দিয়েছে তার কাছে।

পুরো নাম আদ্রিয়ানা এডওয়ার্ডস। কাজ করেন টেক্সাসের গ্যালভেস্টন শহরের একটি রেস্তোরাঁয়। পর্যাপ্ত অর্থ না থাকায় প্রতিদিন ২২ কিলোমিটার হেঁটে কর্মস্থলে আসা-যাওয়া করতে হতো তাকে।

গত বুধবারও (২৭ নভেম্বর) রোজকার মতো হেঁটে কাজে এসেছিলেন আদ্রিয়ানা। নিয়মমতো এক দম্পতিকে সকালের নাশতা এগিয়ে দেন তিনি। সেসময় কথার ফাঁকে তারা জানতে পারেন, আদ্রিয়ানা প্রতিদিন অনেক লম্বা পথ হেঁটে কাজ করতে আসেন ও এই কষ্ট লাঘবে গাড়ি কেনার জন্য একটু একটু করে বেতনের টাকা জমাচ্ছেন।

এরপর স্বাভাবিকভাবেই খাবারের বিল মিটিয়ে বের হয়ে যান ওই কাস্টমার দম্পতি। আদ্রিয়ানা তখনও জানতেন না, কী চমক অপেক্ষা করছে তার জন্য।

রেস্তোরাঁ থেকে বেরিয়ে ওই দম্পতি স্থানীয় একটি গাড়ির শোরুমে যান। সেখান থেকে নতুন একটি চকচকে গাড়ি নিয়ে সোজা হাজির হন আদ্রিয়ানার কর্মস্থলে, তুলে দেন থ্যাংকসগিভিংয়ের উপহার।

এমন মহানুভব দম্পতি অবশ্য নিজেদের নাম-পরিচয় প্রকাশ করেননি। তবে গাড়ির বদলে অন্য কিছু চেয়েছেন মেয়েটির কাছে। তাদের দাবি, সুযোগ পেলে আদ্রিয়ানাও যেন অন্যদের সাহায্য করেন।  

তাদের এই দাবি খুশিমনেই মেনে নিয়েছেন উপহার পাওয়া এই তরুণী। কারণ তিনি জানেন, অপ্রত্যাশিত উপহার পেলে মানুষ কতটা খুশি হয়!

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৯, ২০১৯
একে

আম্পানে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে টাইগাররা
করোনা ও দুর্যোগে গণমাধ্যমের ভূমিকা শীর্ষক মতবিনিময়
একদিনে রেকর্ড ৩২৪ পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত
লালমনিরহাটে মানবিক সহায়তা কার্ডে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ
রোগী ভর্তি নিতে ক্লিনিক মালিকদের অনুরোধ ছাত্রলীগের


সিএমপির কনস্টেবল মামুন করোনা পজিটিভ ছিলেন
বরিশালে বাসে দ্বিগুণ ভাড়া আদায়ে জরিমানা
করোনা উপসর্গ নিয়ে ভৈরবে ৩ জনের মৃত্যু
সরকারি চাকুরেদের নমুনা সংগ্রহ-চিকিৎসা ফুলবাড়িয়া হাসপাতালে
শ্রবণ প্রতিবন্ধীদের মধ্যে যুবলীগের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ