ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০ সফর ১৪৪২

অফবিট

জলপ্রপাতে আটকা পরিবারের প্রাণ বাঁচালো ‘পানির বোতল’!

অফবিট ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬২১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯
জলপ্রপাতে আটকা পরিবারের প্রাণ বাঁচালো ‘পানির বোতল’! বোতলের গায়ে লেখা ‘হেল্প’। ছবি: সংগৃহীত

ছুটির দিনে সপরিবারে নির্জন গিরিখাত এলাকায় ভ্রমণে বেরিয়েছিলেন এক ব্যক্তি। কথা ছিল, পথের শেষপ্রান্তে দড়ি বাঁধা থাকবে, যা ব্যবহার করে সহজেই বের হয়ে আসা যাবে। কিন্তু, কপাল মন্দ! সেখানে পৌঁছে দড়ির নাম-নিশানাও মিললো না, উল্টো খরস্রোতা জলপ্রপ্রাতে আটকা পড়লেন সবাই। এমনই এলাকা- মোবাইলের নেটওয়ার্ক নেই, জনমানুষের চিহ্নও দেখা যায় না। এখন উপায়? 

কথায় আছে, প্রয়োজনই আবিষ্কারের জনক। তেমনি বিপদে পড়েই বুদ্ধি খুললো ওই ব্যক্তির।

কাগজে বিপদের কথা লিখে পানির বোতলে ভরে ভাসিয়ে দিলেন নদীতে, যা দেখে উদ্ধারকারীদের খবর দেন অন্য দুই পর্যটক।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় ঘটেছে এ ঘটনা।  

বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানায়, বাবা দিবসের ছুটি কাটাতে কার্টিস হুইটসন তার প্রেমিকা ও ১৩ বছরের ছেলেকে নিয়ে ভ্রমণে বের হয়েছিলেন। পরিকল্পনা ছিল, গিরিখাতের মধ্য দিয়ে আরোয়ো সিকো নদী অনুসরণ করে জলপ্রপাত পর্যন্ত পৌঁছাবেন। এরপর, সেখানে থাকা দড়ি বেয়ে বের হয়ে ক্যাম্পে ফেরত আসবেন।

সবই ঠিকঠাক ছিল। ভ্রমণকালে বড় বড় পাথর বেয়ে, নদীতে ভেসে, খোলা আকাশের নিচে স্বপ্নের মতো রাত কাটছিল তাদের।

কিন্তু, তিনদিন চলার পর তারা এমন একটা জায়গায় পৌঁছান, যেখানে গিরিখাতের ঢাল অন্তত ৪০ ফুট উঁচু। সেখানে যে দড়ি থাকার কথা, সেটাও খুঁজে পাওয়া গেল না। অর্থাৎ, তারা উপরেও যেতে পারছেন না, আবার নিচেও নামতে পারছেন না। তার ওপর, বিপদ বাড়িয়ে দেয় জলপ্রপাতের প্রবল ধারা।

কোনো দিকেই যাওয়ার উপায় নেই। এমন উভয়সঙ্কট পরিস্থিতিতে হঠাৎ দারুণ এক বুদ্ধি আসে হুইটসনের মাথায়। সময় কাটাতে খেলাধুলার স্কোর লিখে রাখতে কাগজ রেখেছিলেন প্রেমিকা ক্রিস্টাল রামিরেজ। ওই কাগজে নিজেদের আটকে পড়ার কথা লিখে একটি সবুজ প্লাস্টিকের বোতলে ভরে নদীতে ছুঁড়ে মারেন হুইটসন। তবে, তার আগে বোতলের গায়েও দাগ কেটে ইংরেজিতে লিখে দেন ‘হেল্প’ (সাহায্য)।  

আটকা পড়ার কথা লেখা ‍চিরকুট।  ছবি: সংগৃহীত

বিপদবার্তা নিয়ে ভাসতে ভাসতে চলে যায় বোতলটি। সৌভাগ্যক্রমে কিছু দূর পরেই ওই বোতল ও চিরকুট খুঁজে পান দুই পর্যটক। দ্রুত তারা উদ্ধারকারী বাহিনীকে খবর দেন। এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই উদ্ধার করা হয় আটকে পড়া পরিবারটিকে।  

হুইটসন জানান, জীবন বাঁচানো ওই দুই পর্যটকের সঙ্গে দেখা করতে চান তিনি। তবে, সেটি বেশ কঠিন। কারণ, উদ্ধারকারীরা জানিয়েছেন, ওই দু’জন খবর জানানোর পর নিজেদের নাম ঠিকানা না জানিয়েই চলে গেছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১২২০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯
একে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa