‘অতিমানবের’ মতো কি আপনিও পারবেন দ্রুতগতিতে পড়তে?

অফবিট ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

লেখাগুলো এভাবে একই জায়গায় বারবার চলে আসবে। ফলে দৃষ্টি থাকবে স্থির।

walton

আপনি কতো দ্রুতগতিতে কোনো লেখা পড়তে পারেন? অধিকাংশ ক্ষেত্রেই উত্তরটা আসবে স্বাভাবিক গতিতে। অতিমানবেরা কতো দ্রুত কোনো লেখা পড়তে পারেন, সেটা বলা মুশকিল। তবে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক ধরনের প্রযুক্তি তৈরি করেছে, যে প্রযুক্তির সাহায্যে আপনি স্বাভাবিকের থেকেও দ্রুতগতিতে কোনো লেখা পড়তে পারবেন। অনেকটা ‘অতিমানবের’ গতিতে।  

php glass

স্বাভাবিকভাবে কোনো ইংরেজি লেখা পড়ার জন্য কি করা হয়? পাতার একেবারে উপরের দিকে আমাদের দৃষ্টি চলে যায়। এরপর দৃষ্টি বাম থেকে ডান দিকে এক লাইনের পর আর এক লাইনে চলে আসে। এভাবেই আমরা স্বাভাবিক গতিতে কোনো ইংরেজি লেখা পড়ি। 

লেখাগুলো এভাবে একই জায়গায় বারবার চলে আসবে। ফলে দৃষ্টি থাকবে স্থির।এ প্রক্রিয়ায় সাধারণত খুব দ্রুত কোনো ইংরেজি লেখা পড়া যায় না। এর প্রধান কারণ আমাদের দৃষ্টিতে সব সময় একটি গতি থাকে। ফলে আমরা খুব দ্রুত কোনো লেখা পড়তে পারি না। 

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ নিয়ে পর্যবেক্ষণ চালিয়েছে। তারা দেখেছে স্বাভাবিকভাবে কোনো একটি ইংরেজি লেখা পড়তে কতো সময় লাগে। এছাড়াও বাম থেকে ডান দিকে চোখের গতিও পর্যবেক্ষণ করেন তারা। 

লেখাগুলো এভাবে একই জায়গায় বারবার চলে আসবে। ফলে দৃষ্টি থাকবে স্থির।এরপর বিবিসি এক ধরনের প্রযুক্তি তৈরি করে। যে প্রযুক্তির সাহায্যে একই জায়গায় লেখাগুলো চলে আসবে। বাম থেকে ডান দিকে দৃষ্টি পরিবর্তন করতে হবে না। যার ফলে পাঠকের দৃষ্টি থাকবে স্থির। এভাবে স্বাভাবিকের থেকে দ্রুত গতিতে কোনো লেখা পড়া যাবে। 

বিবিসির এ প্রযুক্তির সাহায্যে ছোট স্ক্রিনের লেখা, স্মার্টফোন, স্মার্টওয়াচের লেখা দ্রুতগতিতে পড়া যাবে।  

বাংলাদেশ সময়: ০৩০০ ঘণ্টা, আগস্ট ১৩, ২০১৮
এএইচ/এএ

এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়েতে কাটলো বিনিয়োগ সংকট, গতি কাজে
রংপুরে হোটেল-বেকারির অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট
ভবন থেকে ফেলে দেওয়ায় নবজাতকের মৃত্যু
মেসির গোলেও শিরোপা ধরে রাখতে পারল না বার্সা
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রেনে কাটা পড়ে যুবক নিহত


পাহাড়ি ফুটবলকন্যা মনিকার বিশ্বজোড়া খ্যাতি!
জাহাজশিল্পে ক্যারিয়ার গড়ুন বাগেরহাট মেরিন ইনস্টিটিউটে
চকরিয়ায় ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে শিক্ষার্থীর মৃত্যু
এতিমখানা ও মাদ্রাসায় ঈদ বস্ত্র বিতরণ
বিপদসীমার নিচে মনু নদের পানি, জনমনে স্বস্তি