ফ্রি-স্টাইল ফুটবলে হেডস্কার্ফে মালয়েশিয়ান তরুণী!

অফবিট ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ফ্রি-স্টাইল ফুটবলে হেডস্কার্ফে মালয়েশিয়ান তরুণী

walton

ফুটবলপ্রেমীদের ‘ফ্রি-স্টাইল’ ফুটবল খেলা দেখিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন খইরুন্‌নিসা নামে এক মালয়েশিয়ান মুসলিম তরুণী। হিজাব বা হেডস্কার্ফ পরিহিত ১৮ বছর বয়সী ওই তরুণীর ‘ফ্রি-স্টাইল ফুটবল খেলা দেখে বিস্মিত মালয়েশিয়ার পুরুষ খেলোয়াড়রাও। এরইমধ্যে প্রশংসা ও জনপ্রিয়তা কুড়িয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়াতেও।

php glass

হিজাব সম্পর্কে খইরুন্‌নিসা সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘ফুটবল খেলার জন্য হেডস্কার্ফ কোনো প্রতিবন্ধকতা নয়’।

প্রায় সাড়ে তিন কোটি জনসংখ্যার দেশ মালয়েশিয়ায় ৬০ শতাংশেরও বেশি মুসলমান। সেখানকার অনেক মুসলিম নারীই ইসলামী রীতি অনুযায়ী ঐতিহ্যবাহী হিজাব ও ঢিলেঢালা পোশাক পরিধান করেন। ...ফ্রি-স্টাইল ফুটবলে খেলোয়াড়রা সাধারণত তাদের শরীরকে কাজে লাগিয়ে বল দিয়ে নানান অ্যাক্রোবেটিক কলাকৌশল প্রদর্শন করেন। ২০১৬ সালে কিশোর বয়সে ইউটিউবের ভিডিও দেখে দেখে ফ্রি-স্টাইল ফুটবল শিখতে শুরু করেন খইরুন্‌নিসা। সপ্তাহে চার থেকে পাঁচ দিন প্রতি সেশনে তিন ঘণ্টা করে ফ্রি-স্টাইল প্র্যাকটিস করেন তিনি।

তার মতে, ইসলাম খেলাধুলায় নারীদের থামায় না। শরীর প্রদর্শন না করেও ফ্রি-স্টাইল ফুটবলে খেলা যায়। তাছাড়া পরিবারের সদস্যদের সমর্থনও পেয়েছেন তিনি।

ফ্রি-স্টাইল ফুটবলের কলাকৌশল দেখিয়ে এরইমধ্যে অনেক ভক্ত জুটিয়ে নিয়েছেন খইরুন্‌নিসা। ইনস্টাগ্রামে তার ফলোয়ারের সংখ্যা ৭২ হাজারের বেশি।

...
খইরুন্‌নিসার প্রত্যাশা, তার আইডল ফ্রি-স্টাইল সুপারস্টার লিসা ঝিমোচের সঙ্গে দেখা করবেন তিনি।

মালয়েশিয়ার সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলাগুলোর মধ্যে একটি ফুটবল। তবে তাদের পুরুষ জাতীয় দলটি বিশ্বে অসম্মানজনক ১৭১তম অবস্থানে রয়েছে। 

বাংলাদেশ সময়: ০৪৩৪ ঘণ্টা, জুলাই ১৬, ২০১৮
এএটি/এনএইচটি

এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়েতে কাটলো বিনিয়োগ সংকট, গতি কাজে
রংপুরে হোটেল-বেকারির অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট
ভবন থেকে ফেলে দেওয়ায় নবজাতকের মৃত্যু
মেসির গোলেও শিরোপা ধরে রাখতে পারল না বার্সা
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রেনে কাটা পড়ে যুবক নিহত


পাহাড়ি ফুটবলকন্যা মনিকার বিশ্বজোড়া খ্যাতি!
জাহাজশিল্পে ক্যারিয়ার গড়ুন বাগেরহাট মেরিন ইনস্টিটিউটে
চকরিয়ায় ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে শিক্ষার্থীর মৃত্যু
এতিমখানা ও মাদ্রাসায় ঈদ বস্ত্র বিতরণ
বিপদসীমার নিচে মনু নদের পানি, জনমনে স্বস্তি